অস্কার ২০২০: মনোনীতদের অন্যরকম ১৭ ঘটনা

Send
জনি হক
প্রকাশিত : ১৩:০০, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫২, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০২০

(বাঁ থেকে) ‘প্যারাসাইট’ ছবির পরিচালক বং জুন-হো, ‘বম্বশেল’-এর দৃশ্যে শার্লিজ থেরন, সিনথিয়া এরিভো, ‘টয় স্টোরি ফোর’ ও স্কারলেট জোহানসনঅ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস তথা অস্কার সাধারণ হয় ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে নয়তো মার্চের প্রথম সপ্তাহে। ধারণা করা হয়, এ কারণেই প্রতি বছর জাঁকজমক আয়োজন থাকার পরও আমেরিকায় টিভিতে দর্শক তেমন পাওয়া যায় না। তাই এবার একটু আগেই বসবে অস্কারের জমকালো আসর। তাছাড়া দু’মাস ধরে অন্যান্য পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানগুলো হয় বলে চলচ্চিত্র দুনিয়ার সবচেয়ে সম্মানজনক অনুষ্ঠানটির প্রতি দর্শকদের আগ্রহ কমে আসে।

অস্কারের মধ্য দিয়ে যথারীতি এবারও হলিউডের পুরস্কার মৌসুমের সমাপ্তি ঘটবে। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল) যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে ডলবি থিয়েটারে অনুষ্ঠিত হবে ৯২তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের মহাযজ্ঞ। তার আগে শ্বেতাঙ্গদের প্রাধান্য দেওয়া ও নারী পরিচালকদের উপেক্ষা করায় ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। বর্ণ ও লিঙ্গ বৈষম্যের কালিমা লেগে থাকা মনোনয়ন তালিকা ঘেঁটে দেখা গেলো এবারের অস্কারের অন্যরকম ১৭টি দিক।

‘ম্যারেজ স্টোরি’ (বাঁয়ে) ও ‘জোজো র‌্যাবিট’ ছবিতে স্কারলেট জোহানসন১. বিশেষ ক্লাবে স্কারলেট জোহানসন
আমেরিকান অভিনেত্রী স্কারলেট জোহানসন ১২তম ব্যক্তি হিসেবে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের একই আসরে অভিনয়শিল্পী বিভাগে দুটি মনোনয়ন পেয়েছেন। ‘ম্যারেজ স্টোরি’র জন্য সেরা অভিনেত্রী ও ‘জোজো র্যা বিট’ ছবির জন্য সেরা সহ-অভিনেত্রী হিসেবে মনোনীত হয়েছেন তিনি। বাকি ১১ জনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সিগার্নি উইভার (১৯৮৯), আল পাচিনো (১৯৯৩), এমা থম্পসন (১৯৯৪), জেমি ফক্স (২০০৫), কেট ব্ল্যানচেট (২০০৮)। তবে কেউই উভয় বিভাগে অস্কার জেতেননি।

২. সেরা চলচ্চিত্র ও সেরা অভিনেত্রীর মধ্যে অমিল!
১৫ বছর ধরে সেরা চলচ্চিত্র ও সেরা অভিনেত্রীর ছবির মধ্যে মিল পাওয়া যায়নি! সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জেতা অভিনয়শিল্পী সেরা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন এমনটা খুব কমই হয়েছে। সবশেষ ২০০৪ সালে ‘মিলিয়ন ডলার বেবি’ সেরা চলচ্চিত্র হয়েছিল ও এতে কাজ করা হিলারি সোয়াঙ্ক জিতেছেন সেরা অভিনেত্রীর অস্কার। এবারও এমনটি হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। কারণ সেরা অভিনেত্রী বিভাগে ফেভারিট রেনে জেলওয়েগার অভিনীত ‘জুডি’ সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মনোনয়নই পায়নি।

সিনথিয়া এরিভো৩. সিনথিয়া এরিভোর সামনে ইতিহাস গড়ার হাতছানি
‘হ্যারিয়েট’ ছবির তারকা সিনথিয়া এরিভো অস্কার জিতলে অভিজাত এক ক্লাবে ঢুকবেন। তিনি এর আগে এমি, গ্র্যামি ও টনি অ্যাওয়ার্ডস জিতেছেন। বাকি আছে কেবল অস্কার। চারটি পুরস্কারই জিতেছেন এমন তারকাদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ হিসেবে ইতিহাস গড়ার হাতছানি ৩৩ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী-গায়িকার সামনে। ২০১৮ সালে ৩৯ বছর বয়সে রেকর্ডটি গড়েছিলেন সংগীতশিল্পী রবার্ট লোপেজ। তার কাছ থেকে রেকর্ডটি ছিনিয়ে নিতে অস্কারে দুটি সুযোগ পাচ্ছেন এরিভো। কারণ সেরা অভিনেত্রী ও সেরা মৌলিক গান বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি। ‘হ্যারিয়েট’ ছবির ‘স্ট্যান্ড আপ’ গানের রচয়িতা, সুরকার আর গায়িকা তিনিও।

‘নাইনটিন সেভেনটিন’-এর জন্য গোল্ডেন গ্লোবসে সেরা ড্রামা চলচ্চিত্র ও সেরা পরিচালকের পুরস্কার জিতেছেন স্যাম মেন্ডেস৪. একই পরিচালকের দুটি অস্কারজয়ে সময়ের ব্যবধান
যদি স্যাম মেন্ডেস সেরা পরিচালক হিসেবে পুরস্কার পান তাহলে অস্কারের ইতিহাসে একই ব্যক্তির এই বিভাগে সবচেয়ে বেশি সময়ের ব্যবধান লিখতে হবে। ১৯৯৯ সালে ‘আমেরিকান বিউটি’র জন্য অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসে সেরা পরিচালক হয়েছিলেন তিনি। এবারের আসরে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নির্মিত ‘নাইনটিন সেভেনটিন’-এর সুবাদে তার সম্ভাবনা প্রবল। এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সময়ের (১৫ বছর) ব্যবধানে সেরা পরিচালক হিসেবে দুটি অস্কার জেতার রেকর্ড বিলি ওয়াইল্ডারের দখলে। এগুলো হলো দ্য লস্ট উইকেন্ড (১৯৪৫) ও দ্য অ্যাপার্টমেন্ট (১৯৬০)।

গ্রেটা গারউইগের ‘লিটল উইমেন’ ও নোয়া বাউমবাকের ‘ম্যারেজ স্টোরি’তে অভিনয় করেছেন লরা ডার্ন (ডানে)৫. সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে প্রেমিক-প্রেমিকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা
সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মনোনীত ছবিগুলোর মধ্যে ‘ম্যারেজ স্টোরি’র নোয়া বাউমবাক ও ‘লিটল উইমেন’ ছবির গ্রেটা গারউইগ ব্যক্তিজীবনে থাকেন একই ছাদের নিচে। ২০১১ সালে তারা সম্পর্কে জড়ান। তাদের ভালোবাসার ফসল হিসেবে আছে এক সন্তান। এবারই প্রথম পরিচালক বিভাগে মুখোমুখি হলো কোনও যুগল। ২০০৯ সালে এমনটি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল। তখন জেমস ক্যামেরনের অ্যাভাটার ও ক্যাথরিন বিগেলোর দ্য হার্ট লকার সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মনোনয়ন পায়। কিন্তু ওই অস্কারের প্রায় ১৮ বছর আগেই তাদের বিয়েবিচ্ছেদ হয়েছে। এবারের অস্কারের আরও দুটি বিভাগে আছে নোয়া বাউমবাক ও গ্রেটা গারউইগের নাম। তবে এগুলো তারা প্রতিদ্বন্দ্বী নন। গ্রেটা লড়ছেন সেরা অ্যাডাপ্টেড চিত্রনাট্য বিভাগে। বাউমবাক মনোনয়ন পেয়েছেন সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য বিভাগে। কাকতালীয় হলো, দু’জনের ছবিতেই অভিনয় করেছেন লরা ডার্ন। তিনি এবার সেরা সহ-অভিনেত্রী বিভাগে ফেভারিট।

৬. ‘লিটল উইমেন’ ও ‘ম্যারেজ স্টোরি’র জন্য দিল্লি বহুদূর!
বলতেই হচ্ছে, ‘লিটল উইমেন’ ও ‘ম্যারেজ স্টোরি’র জন্য অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের সর্বোচ্চ পুরস্কার সেরা চলচ্চিত্র জয়ের সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ সেরা পরিচালক বিভাগে মনোনয়ন না পাওয়া কারও ছবি সচরাচর সেরা চলচ্চিত্র হয় না। নোয়া বাউমবাক ও গ্রেটা গারউইগ উভয়ে এদিক দিয়ে পিছিয়ে। তবে অসম্ভবও নয়। গত বছর পিটার ফ্যারেলি মনোনীত না হলেও তার পরিচালিত ‘গ্রিন বুক’ সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে পুরস্কার পেয়েছে। ২০১৩ সালেও এমনটি দেখা গেছে। তখন বেন অ্যাফ্লেক মনোনয়ন না পেলেও তার পরিচালিত ‘আর্গো’ সেরা চলচ্চিত্র হয়েছে।

রেনে জেলওয়েগার, (ডানে) ১৯৫৬ সালে তোলা জুডি গারল্যান্ডের স্থিরচিত্র৭. জুডি গারল্যান্ডের অধরা অস্কার

আমেরিকান অভিনেত্রী-গায়িকা জুডি গারল্যান্ড কখনও অস্কার জেতেননি। তবে পাওয়ার কথা ছিল। ১৯৫৪ সালে ‘অ্যা স্টার ইজ বর্ন’ ছবির জন্য তিনি সেরা অভিনেত্রী হবেন বলে ধরেই নিয়েছিল সবাই। এমনকি প্রতিক্রিয়া ধারণের জন্য হাসপাতালে তার বেডের পাশে ক্যামেরা পর্যন্ত সেট করা হয়। তখন সদ্য সন্তান প্রসব করেছিলেন তিনি। কিন্তু অস্কারর ইতিহাসে অন্যতম অঘটনের জন্ম দিয়ে ‘দ্য কান্ট্রি গার্ল’ ছবির জন্য পুরস্কারটি বাগিয়ে নেন গ্রেস কেলি। তৎক্ষণাৎ ক্যামেরাম্যানরা জুডির চারপাশ থেকে সরঞ্জাম নিযে দ্রুত বেরিয়ে যান। তার মৃত্যুর পাঁচ দশক পেরিয়ে ‘জুডি’ ছবির জন্য রেনে জেলওয়েগার সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলে অন্তত পরোক্ষভাবে হলেও প্রয়াত তারকার নামের পাশে অ্যাকাডেমির স্বীকৃতি লেখা থাকবে।

৮. রেকর্ড মেশিন ‘প্যারাসাইট’
কান উৎসবে স্বর্ণ পাম জয়ী দক্ষিণ কোরিয়ার ‘প্যারাসাইট’ ইতোমধ্যে একটি রেকর্ড গড়েছে। অস্কার জিতলে সংখ্যাটা দাঁড়াবে দুইয়ে। প্রথম কোরিয়ান ছবি হিসেবে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসে সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছে এটি। সেরা আন্তর্জাতিক কাহিনিচিত্র ও সেরা চলচ্চিত্র উভয় বিভাগে কোনও ছবির মনোনীত হওয়ার ঘটনা অস্কারের ইতিহাসে ষষ্ঠবার দেখা গেলো। আগের পাঁচটি ছবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য মেক্সিকোর ‘রোমা’ (২০১৯), অস্ট্রিয়ার ‘আমুর’ (২০১২), তাইওয়ানের ‘ক্রাউচিং টাইগার হিডেন ড্রাগন’ (২০০০)।

জনাথন প্রাইস৯. সবেধন নীলমণি জনাথন প্রাইস!
‘দ্য টু পোপস’ তারকা জনাথন প্রাইস একমাত্র মনোনীত ব্যক্তি যিনি বাস্তব একজনের (পোপ ফ্রান্সিস) চরিত্রে অভিনয় করেছেন। সেরা অভিনেতা বিভাগে মনোনয়ন পাওয়া বাকিদের মধ্যে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, অ্যান্টোনিও ব্যান্ডেরাস, অ্যাডাম ড্রাইভার ও ওয়াকিন ফিনিক্স প্রত্যেকেই কাল্পনিক চরিত্রে পর্দায় এসেছেন। যদিও ব্যান্ডেরাস অভিনীত ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি’র গল্প নিজের কিছু অভিজ্ঞতার আলোকে বুনেছেন পরিচালক পেদ্রো আলমোদোভার।

সেরা অভিনেত্রী বিভাগে মনোনীতদের তিনজনই বাস্তব নারীর চরিত্র রূপদান করেছেন। ‘জুডি’তে হলিউড অভিনেত্রী-গায়িকা জুডি গারল্যান্ডের ভূমিকায় রেনে জেলওয়েগার, ‘হ্যারিয়েট’-এ দাসত্ববিরোধী কর্মী হ্যারিয়েট টাবম্যান চরিত্রে সিনথিয়া এরিভো ও ‘বম্বশেল’ ছবিতে ফক্স নিউজ চ্যানেলের উপস্থাপক মেগেন কেলি হিসেবে পর্দায় এসেছেন শার্লিজ থেরন।

১০. ম্যাগাজিনের প্রতিবেদন থেকে চলচ্চিত্রের ভাবনা
এ বছরের পুরস্কার মৌসুমে আশান্বিত দুটি ছবি তৈরি হয়েছে পৃথক দুটি ম্যাগাজিনে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে। ১৯৯৮ সালে এস্কোয়ার ম্যাগাজিনে শিশুদের বিনোদনদাতা ফ্রেড রজারসের একটি প্রোফাইল সাক্ষাৎকার লিখেছিলেন সাংবাদিক টম জুনোড। এটি পুঁজি করে নির্মিত হয়েছে ‘অ্যা বিউটিফুল ডে ইন দ্য নেইবারহুড’।

এদিকে ‘হাসলারস’-এর গল্প ২০১৫ সালে নিউ ইয়র্ক ম্যাগাজিনে জেসিকা প্রেসলারের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে অনুপ্রাণিত। দুটি ছবিই গোল্ডেন গ্লোবসসহ বিভিন্ন পুরস্কারে কোনও না কোনও বিভাগে মনোনীত হয়েছে। কিন্তু অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসে ‘অ্যা বিউটিফুল ডে ইন দ্য নেইবারহুড’-এর সুবাদে সেরা সহ-অভিনেতা বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন টম হ্যাঙ্কস। ‘হাসলারস’ তারকা জেনিফার লোপেজকে প্রথম অস্কার মনোনয়ন পেতে আগামী ছবিগুলোর ওপর নির্ভর করতে হবে।

‘হাসলারস’ ছবিতে জেনিফার লোপেজ ও অ্যা বিউটিফুল ডে ইন দ্য নেইবারহুড’ ছবিতে টম হ্যাঙ্কস১১. বুড়ো হাড়ে ভেলকি!
সহ-অভিনেতা বিভাগে মনোনীতদের গড় বয়স ৭১! অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের আগের আসরগুলোর এই পুরস্কার বিজয়ীদের গড় বয়স ৪৯ বছর। এবারের অস্কারে সবচেয়ে কম বয়সী মনোনীত সহ-অভিনেতা হলেন ব্র্যাড পিট (৫৬ বছর)। তার প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন টম হ্যাঙ্কস (৬৩ বছর), জো পেসি (৭৬ বছর), আল পাচিনো (৭৯ বছর) ও স্যার অ্যান্থনি হপকিন্স (৮২ বছর)। পিট ছাড়া বাকি সবাই অভিনয়ের জন্য অস্কারজয়ের স্বাদ পেয়েছেন। ২০১৪ সালে ‘টুয়েলভ ইয়ারস অ্যা স্লেভ’ ছবির প্রযোজক হিসেবে অস্কার পান পিট। এবার তিনিই নিরঙ্কুশ ফেভারিট।

১২. ‘নাইনটিন সেভেনটিন’-এর জন্য বেঞ্চমার্ক ‘বার্ডম্যান’
অস্কার পণ্ডিতরা সেরা চলচ্চিত্র সম্পাদনা বিভাগে নজর রাখেন প্রতি বছর। কারণ এ বিভাগে মনোনয়ন পাওয়া ছবিই সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার জেতে! তবে এবারের অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসে সর্বোচ্চ পুরস্কারটি জয়ের দৌড়ে ‘নাইনটিন সেভেনটিন’-এর মোমেন্টাম তৈরি হয়েছে সম্পাদনা বিভাগের মনোনয়ন ছাড়াই। অস্কারে ১৯৮১ সালে ‘অর্ডিনারি পিপল’-এর পর কেবল ২০১৫ সালে আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতুর ‘বার্ডম্যান’ সম্পাদনা বিভাগের মনোনয়ন না পেয়েও সেরা চলচ্চিত্র হয়ে বিরল ঘটনার জন্ম দেয়। মজার বিষয় হলো, ‘বার্ডম্যান’ ও ‘নাইনটিন সেভেনটিন’ ছবি দুটির মধ্যে একটি মিল আছে। দুটি চলচ্চিত্রই দেখলে মনে হয় পুরোটা এক শটে ধারণকৃত! যদিও মোটেও তা নয়। দক্ষ সম্পাদনার সুবাদেই এমন লাগে দর্শকদের। অথচ সেরা সম্পাদনা বিভাগের মনোনয়ন মেলেনি ছবি দুটির!

১৩. সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মোটর রেসিং
সেরা চলচ্চিত্রের মনোনয়ন পাওয়া প্রথম মোটর রেসিং ছবি ‘ফোর্ড ভার্সেস ফেরারি’। এ আর এমন কী! তবে অতীতে মোটর রেসিংকে কেন্দ্র করে নির্মিত বেশকিছু ছবি অস্কারে উপেক্ষিত হয়েছে। এ তালিকায় উল্লেখযোগ্য ‘রাশ’ (২০১৩), ‘গ্রাঁ প্রিঁ’ (১৯৬৬), ‘ডেজ অব থান্ডার’ (১৯৯০)। এছাড়া ব্রাজিলিয়ান মোটর রেসিং চ্যাম্পিয়ন এইরতন সেনার মৃত্যুকে ঘিরে নির্মিত ‘সেনা’ (২০১০) সেরা প্রামাণ্যচিত্র বিভাগে মনোনয়ন পেতে পারতো, কিন্তু তা হয়নি। ‘ফোর্ড ভার্সেস ফেরারি’ মনোনীত হলেও সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। মোটরওয়ান ওয়েবসাইটের ক্রিস্টোফার স্মিথ মনে করেন, কঠিন প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে এই ছবিকে। যদিও মোটর রেসিং বিষয়ক ছবি হিসেবে মনোনয়ন পেতে সক্ষম হয়েছে এটি।

‘ডলমাইট ইজ মাই নেম’-এ এডি মারফি. এবারের আসরে নেটফ্লিক্সের বড় আশা ছিল ছবিটিকে ঘিরে১৪. নেটফ্লিক্সের দ্বিগুণ সুযোগ
সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে নেটফ্লিক্সের পুরস্কার জয়ের সম্ভাবনা দ্বিগুণ। গত বছর ‘রোমা’কে ঘিরে আশায় বুক বেঁধেছিল এই স্ট্রিমিং সংস্থা। প্রচারণায় দু’হাতে টাকা ঢেলেছে। শেষমেষ সেরা চলচ্চিত্র স্বীকৃতি বাগিয়ে নেয় ‘গ্রিন বুক’। এ বছরের পুরস্কার মৌসুমের জন্য বেশকিছু ছবির মাধ্যমে মাঠ প্রস্তুত করেছিল নেটফ্লিক্স। এ তালিকায় উল্লেখযোগ্য ডেভিড মিশোডের ‘দ্য কিং’, ক্রেগ ব্রুয়ার পরিচালিত ‘ডলমাইট ইজ মাই নেম’, ফার্নান্দো মেইরেলেসের ‘দ্য টু পোপস’ ও স্টিভেন সোডারবার্গের ‘দ্য লন্ড্রোমাট’। তবে তাদের প্রযোজিত ‘দি আইরিশম্যান’ ও ‘ম্যারেজ স্টোরি’ সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে মনোনীত হয়েছে। অবশ্য অ্যাকাডেমি এখনও স্ট্রিমিং ওয়েবসাইটকে সর্বোচ্চ পুরস্কারটি দিতে প্রস্তুত নয় বলে ধারণা করা হয়। তবুও যদি তাদের কোনও ছবি এবার সেরা চলচ্চিত্র হয়ে যায় তাহলে ধরে নিন সেটি মার্টিন স্করসেজির ‘দি আইরিশম্যান’!

১৫. ডায়েন ওয়ারেনের ১১তম অস্কার মনোনয়ন

‘ব্রেকথ্রো’ ছবির “আই’ম স্ট্যান্ডিং উইথ ইউ”র সুবাদে সেরা মৌলিক গান বিভাগে মনোনীত হয়েছেন আমেরিকান গীতিকার-সুরকার ডায়েন ওয়ারেন। এটি অস্কারে তার ১১তম মনোনয়ন। অন্যগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য লিয়েন রাইমসের ‘হাউ ডু আই লিভ’ (কন এয়ার), অ্যারোস্মিথের ‘আই ডোন্ট ওয়ান্ট টু মিস অ্যা থিং’ (আরমাগেডন), ফেইথ হিলের “দেয়ার ইউ’ইল বি” (পার্ল হারবার)। তবে একবারও অস্কার জেতেননি তিনি। অস্কারের ইতিহাসে নারীদের মধ্যে সর্বাধিকবার খালি হাতে ফিরে যাওয়া না রেকর্ড তার নামের পাশেই লেখা।

এদিকে সেরা মৌলিক গান বিভাগে ২৫ বছর পর আবারও মনোনয়ন পেয়েছেন স্যার এলটন জন। সবশেষ ১৯৯৫ সালে ‘দ্য লায়ন কিং’ ছবিতে তার সুর করা ও গাওয়া ‘ক্যান ইউ ফিল দ্য লাভ টুনাইট?’ অস্কার জেতে। এর গীতিকার টিম রাইস।


দৃশ্য: ‘টয় স্টোরি ফোর’১৬. রেকর্ড গড়তে পারে ‘টয় স্টোরি ফোর’
অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসে ২০০১ সালে সেরা অ্যানিমেটেড কাহিনিচিত্র পুরস্কার যুক্ত করা হয়। সেই থেকে এখন পর্যন্ত কোনও ছবির সিক্যুয়েলের এটি জেতার ঘটনা কেবল একবারই দেখা গেছে- ‘টয় স্টোরি থ্রি’। ফলে এবারের আসরে মনোনয়ন তালিকায় থাকা ‘টয় স্টোরি ফোর’ পুরস্কার জিতলে শুধু দ্বিতীয় সিক্যুয়েল হিসেবেই নয়, একই সিরিজের দুটি পর্বের জয়ের বিরল রেকর্ড সৃষ্টি হবে।

১৭. সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে ফেভারিটদের অতৃপ্তি

৯২তম অস্কারে সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে ফেভারিট ‘নাইনটিন সেভেনটিন’ ও ‘প্যারাসাইট’-এর কোনও অভিনয়শিল্পী সেরা অভিনেতা, সেরা সহ-অভিনেতা, সেরা অভিনেত্রী ও সেরা সহ-অভিনেত্রী বিভাগে মনোনীতদের মধ্যে নেই।


/জেএইচ/এমএম/

লাইভ

টপ