কোয়ারেন্টিনের সুযোগ দিতে অফিস ছাড়লেন শাহরুখ-গৌরি!

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:৩৭, এপ্রিল ০৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৭, এপ্রিল ০৫, ২০২০

বলিউড বাদশা শাহরুখ খান ও তার স্ত্রী গৌরির ব্যক্তিগত একটি চারতলা অফিস ভবন আছে ভারতের মুম্বাইয়ে। কোয়ারেন্টিনের ধারণক্ষমতা বাড়ানোর জন্য সেটি কাজে লাগাতে বৃহানমুম্বাই মিউনিসিপ্যাল করপোরেশনকে (বিএমসি) প্রস্তাব দিয়েছেন তারা। এতে নারী, প্রবীণ ও শিশুদের প্রয়োজনীয় সবকিছু আছে।

‘স্ট্রঙ্গার টুগেদার’, ‘অ্যানিথিং ফর মুম্বাই’ এবং ‘না টু করোনা’ হ্যাশট্যাগগুলো যুক্ত করে শনিবার (৪ এপ্রিল) টুইটারে এসব তথ্য জানায় বিএমসি। একইসঙ্গে শাহরুখ-গৌরি দম্পতির এমন উদারতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে এই সংস্থা।
বিএমসির টুইটের প্রতিক্রিয়ায় গৌরি লিখেছেন, ‘মুম্বাইকে সহযোগিতা করার অংশ হতে পেরে আমরা উভয়ে কৃতজ্ঞ।’
খবরটি জানাজানির পরপরই ‘এসআরকে অফিস ফর কোয়ারেন্টিন’ হ্যাশট্যাগ ভারতে টুইটারের শীর্ষ ট্রেন্ডিং হয়ে ওঠে। ভক্তরা শাহরুখকে ভালোবাসা আর প্রশংসা ভাসিয়েছেন। একজনের মন্তব্য, ‘জনসেবায় বেঞ্চমার্ক তৈরি করেছেন তিনি।’
করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় শাহরুখ খান ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি উদ্যোগের ঘোষণা দিয়েছেন। তার ক্রিকেট দল কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর), প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড চিলিজ এন্টারটেইনমেন্ট, রেড চিলিজ ভিএফএক্স ও দাতব্য সংস্থা মীর ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ কয়েকটি ত্রাণ তহবিলে অনুদান দিচ্ছেন তিনি। অসহায় মানুষের প্রতি প্রয়োজনের সময় হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় প্রশংসিত হচ্ছেন ৫৪ বছর বয়সী এই তারকা।
দুর্যোগের সময় বহু মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের পদক্ষেপ নিয়েছেন শাহরুখ। তাই সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির জন্য দু’হাত বাড়িয়েছেন তিনি।
শাহরুখের উদ্যোগগুলো হলো মোদির ত্রাণ তহবিল ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে অঘোষিত অঙ্কের অনুদান, মহারাষ্ট্র ও পশ্চিমবঙ্গে ৫০ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) বিতরণ, মুম্বাইয়ের ৫ হাজার ৫০০ পরিবারকে এক মাস খাদ্যসহায়তা, ২ হাজার লোকের খাবার রান্নার কিচেন স্থাপন, প্রতিদিন ১০ হাজার মানুষের মধ্যে ৩ লাখ খাদ্যপণ্য বিতরণ, দিল্লির ২৫০০ দিনমজুরের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য এবং উত্তর প্রদেশ, দিল্লি, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরাখণ্ডের শতাধিক অ্যাসিড দগ্ধকে মাসিক ভাতা প্রদান।
শাহরুখের নতুন পদক্ষেপ করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধের চেষ্টায় বিএমসিকে সহায়তা করবে। কেবল ত্রাণ সরবরাহ করাই নয়, কোভিড-১৯ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং সামর্থ্যবানদের এগিয়ে আসতে উৎসাহিত করাই তার লক্ষ্য।
দাতব্য সেবায় অবদানের জন্য গত বছর লন্ডনের ইউনিভার্সিটি অব ল থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট পান শাহরুখ।

/জেএইচ/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ