ভিডিও কলে মায়ের জানাজায় ইরফান

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০০, এপ্রিল ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৪, এপ্রিল ২৬, ২০২০

ইরফান খান, (ডানে) মায়ের সঙ্গেমা হারালেন বলিউড অভিনেতা ইরফান খান। তার মা সাঈদা বেগম ভারতের রাজস্থান রাজ্যের জয়পুর শহরে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। শনিবার সন্ধ্যায় তার দাফন হয়েছে। কিন্তু আরোপিত অবরোধের (লকডাউন) কারণে সেখানে যেতে পারেননি ইরফান। তাই ভিডিও কলের মাধ্যমে মায়ের জানাজায় অংশ নেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ডেইলি নিউজ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস (ডিএনএ) জানিয়েছে, জয়পুরের কাছে চুঙ্গি নাকা কবরস্থানে সাঈদা বেগমকে দাফন করা হয়। লকডাউনের কারণে এ সময় পরিবারের হাতেগোনা কয়েকজন উপস্থিত থাকার সুযোগ পেয়েছেন।
নয়াদিল্লিভিত্তিক সংবাদ সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল (এএনআই) জানিয়েছে, ইরফানের মা সাঈদা ২৫ এপ্রিল (শনিবার) সকালে মারা যান। দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি।
টুইটারে বলিউড বাণিজ্য বিশ্লেষক কোমল নাহতা জানান, সাঈদা বেগমের বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর।
করোনাভাইরাস মহামারি ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ায় আগামী ৩ মে পর্যন্ত সারা ভারত লকডাউনে থাকবে। তাই অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইট চলাচল স্থগিত রয়েছে। এ কারণে মাকে শেষ বিদায় জানাতে রাজস্থানে যাওয়া হলো না ইরফানের। শোনা যাচ্ছে তিনি ভারতে নেই।
ইংরেজি দৈনিক দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের দাবি, ‘লাইফ অব পাই’ ছবির এই তারকা মুম্বাইয়ে আটকে আছেন। তার ভাই সালমান খান (সুপারস্টার নন) বলেন, ‘শনিবার সকালে হঠাৎ মায়ের স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে। কিছু দিন আগে মা ইরফান ভাইয়ের শরীরের খোঁজ-খবর নিয়েছিলেন।’
বলিউডভিত্তিক ওয়েবসাইট স্পটবয়কে ইরফানের ‘পিকু’ ছবির পরিচালক সুজিত সরকার বলেন, ‘খবরটি শুনে খুবই খারাপ লাগছে। যদিও ইরফানের সঙ্গে আমার এখনও কথা হয়নি। সে কোথায় আছে জানি না।’
রাজস্থানের টঙ্কের নবাব পরিবারের বংশধর ছিলেন সাঈদা বেগম। জয়পুরের বেনিওয়াল কান্তকৃষ্ণ কলোনিতে থাকতেন তিনি।
২০১৮ সালের মে মাসে নিওরোএন্ডোক্রাইন টিউমারে আক্রান্ত হন ইরফান। উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে অনেকটা সময় ছিলেন তিনি।
এ বছর ‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরেছেন ইরফান। এটি তারই অভিনীত অভাবনীয় ব্যবসাসফল ছবি ‘হিন্দি মিডিয়াম’-এর সিক্যুয়েল। হোমি আদাজানিয়ার পরিচালনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন কারিনা কাপুর, রাধিকা মদন ও দীপক দোবরিয়াল।
‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’ মুক্তির পর দর্শকরা ভালোই দেখছিল। কিন্তু কয়েকদিন পরই কোভিড-১৯ রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণে সিনেমা হল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ডিজনি প্লাস হটস্টারে এখন ছবিটি দেখা যাচ্ছে।

/জেএইচ/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ