দেখে নিন সত্যজিৎ রায়ের অনবদ্য সব কীর্তি (ভিডিও)

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:২০, মে ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৪৩, মে ০২, ২০২০

সত্যজিৎ।২ মে। সালটা ছিল ১৯২১। কলকাতার বিখ্যাত রায় পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এক ‘মানিক’- সত্যজিৎ। এই পরিবারের একের পর এক প্রজন্ম সাহিত্য থেকে সিনেমা জগতে নিজের ছাপ ফেলেছে। সত্যজিৎ রায় ছিলে তার সবচেয়ে যোগ্য উত্তরসূরি। সিনেমার পরতে পরতে রেখেছেন অবদান। লেখক হিসেবেও তিনি সহজাত। বাংলা সিনেমাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া এই বরপুত্রের আজ শততম জন্মদিন। এদিনে দেখতে পারেন তার পরিচালিত কিছু ছবি-

পথের পাঁচালী: বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস ‘পথের পাঁচালী’ অবলম্বনে নির্মিত এটি। অপু ত্রয়ী চলচ্চিত্র ধারাবাহিকের প্রথম চলচ্চিত্র ‌‘পথের পাঁচালী’। এর মুখ্য চরিত্র অপুর হিসেবে সুবীর বন্দ্যোপাধ্যায় অভিনয় করেছেন।


অভিযান: তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে এটি নির্মিত। অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ওয়াহিদা রেহমান, রুমা গুহ ঠাকুরতা, জ্ঞ্যানেশ মুখোপ্যাধ্যায়, চারুপ্রকাশ ঘোষ, রবি ঘোষ ও অরুণ রায়।
 

অপুর সংসার:  চলচ্চিত্রটি অপু ট্রিলজির শেষ পর্ব। এতে অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও শর্মিলা ঠাকুর।

পরশ পাথর: অপু ট্রিলজির পরে সত্যজিৎ রায়ের প্রথম পরিচালিত চলচ্চিত্র। এটি তার প্রথম হাসির, যাদু ও পরাবাস্তব ছবি। এর প্রধান চরিত্র আছেন প্রখ্যাত তুলসী চক্রবর্তী।
 

গুপী গায়েন বাঘা বাইন: উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী রচিত রূপকথা অবলম্বনে এই চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়েছে। সত্যজিৎ-পত্নী বিজয়া রায়ের স্মৃতিচারণা ‘আমাদের কথা’ থেকে জানা যায়, শিশুপুত্র সন্দীপ রায়ের অনুরোধে তিনি এই ছবিটি নির্মাণ করেন। গুপী তপেন চট্টোপাধ্যায় ও বাঘা হিসেবে রবি ঘোষ অভিনয় করেন।

জয়বাবা ফেলুনাথ: এটা সত্যজিৎ রায় নির্মিত শেষ ফেলুদা চলচ্চিত্র। এতে ফেলুদার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং মগনলাল মেঘরাজের ভূমিকায় উৎপল দত্ত ।
 

নায়ক: সত্যজিৎ রায়ের নিজের লেখা অন্যতম চলচ্চিত্র এটি। এতে অভিনয় করেছেন উত্তম কুমার ও শর্মিলা ঠাকুর।
 

কাপুরুষ: ছবিটির মূল নাম ‘কাপুরুষ মহাপুরুষ’। দুটি আলাদা স্বাদের গল্পকে একসাথে নিয়ে সিনেমাটি নির্মিত। কেন্দ্রীয় চরিত্রে আছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

প্রতিধ্বনি: সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি এই চলচ্চিত্র। যার মূল ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ধৃতিমান চট্রোপ্যাধায়।
 


অভিযান: তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে এটি নির্মিত। অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ওয়াহিদা রেহমান, রুমা গুহ ঠাকুরতা, জ্ঞ্যানেশ মুখোপ্যাধ্যায়, চারুপ্রকাশ ঘোষ, রবি ঘোষ ও অরুণ রায়।

চারুলতা: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বড় গল্প ‘নষ্টনীড়’ অবলম্বনে এর চিত্রনাট্য তৈরি। রচয়িতা হিসেবে আছেন সত্যজিৎও। অভিনয়ে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, মাধবী মুখোপাধ্যায়।


অরণ্যের দিনরাত্রি: সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘অরণ্যের দিনরাত্রি’ উপন্যাস অবলম্বনে এই চলচ্চিত্রটি নির্মাণ। অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, শর্মিলা ঠাকুর, কাবেরি বসু, শুভেন্দু চট্টোপাধ্যায়, রবি ঘোষ, সমিত ভঞ্জ ও পাহাড়ী সান্যাল।

কাঞ্চনজঙ্ঘা: চলচ্চিত্রটি কাঞ্চনজঙ্ঘা পর্বতটির কাছাকাছি অবস্থিত জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র, দার্জিলিংয়ে সপরিবারে ছুটি কাটাতে যাওয়া একটি উচ্চ শ্রেণির বাঙালি পরিবার নিয়ে। এতে অভিনয় ছবি বিশ্বাস, করুণা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অনিল চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।


অশনি সংকেত: বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত। এতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী ববিতা। সহঅভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।


গণশত্রু: সমাজের সুবিধাভোগী শ্রেণি নিজেদের স্বার্থ সংরক্ষণের জন্য সাধারণ মানুষের ধর্মবোধকে কীভাবে ব্যবহার করে, তা ছবিটিতে উঠে এসেছে। এতে অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, রুমা গুহঠাকুরতা, মমতাশঙ্কর, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।


মহানগর: নরেন্দ্রনাথ মিত্রের একটি ছোটগল্প অবলম্বনে নির্মিত এটি। অভিনয়ে অনিল চট্টোপাধ্যায় ও জয়া ভাদুড়ি (বচ্চন)।


চিড়িয়াখানা: শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনপ্রিয় গোয়েন্দা চরিত্র ব্যোমকেশ বক্সী অবলম্বনে এই চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়েছে। সিনেমায় ব্যোমকেশ বক্সীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন উত্তম কুমার।

আগন্তুক: এটি সত্যজিতের শেষ চলচ্চিত্র। তারই লেখা ছোটগল্প অতিথি অবলম্বনে এটি তৈরি করেছেন। কেন্দ্রীয় চরিত্রে আছেন উৎপল দত্ত, মমতা শঙ্কর, দীপঙ্কর দে, ধৃতিমান চট্রোপ্যাধ্যায়, প্রমোদ গাঙ্গুলি ও রবি ঘোষ।


/এম/

লাইভ

টপ