এক টেলিছবি নির্মাণের জন্য তিন বছর অপেক্ষা!

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:১৫, মে ২৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০৯, মে ২৫, ২০২০

শুটিংয়ে নির্মাতা ও অভিনেতাপ্রতিনিয়তই একক-টেলিছবি-ধারাবাহিক নাটক সম্প্রচার হচ্ছে টিভিসহ নানা মাধ্যমে। আজকাল খবর মিলছে, দুদিনের সিদ্ধান্তে এক বা দেড় দিনেও শুটিং শেষ হয় নানাবিধ নাটক-ছবির!

তবে ঠিক তার বিপরীত চিত্র মিলেছে একটি টেলিছবি নির্মাণের পেছনের গল্প শুনে। যে ছবিটি বানাতে সংশ্লিষ্ট নির্মাতা-অভিনেতাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে টানা তিন বছর! এই অসময়ে, এতটা ধৈর্য ভাবা যায়!
এমন ঘটনাই ঘটলো ঈদের জন্য নির্মিত টেলিছবি ‘এখানে তো কোন ভুল ছিল না’র ক্ষেত্রে। এটির গল্প-চিত্রনাট্য ও নির্মাণ করেছেন শেখ নাজমুল হুদা ঈমন। আর প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন দেশের সবচেয়ে সফল বহুমাত্রিক অভিনেতা মোশাররফ করিম।
নির্মাতা শেখ নাজমুল হুদা ঈমন বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, টেলিছবিটির শুটিং মাত্র চারদিনে শেষ হলেও এই গল্পটি নিয়ে তিনি আর মোশাররফ করিম দুজনেই অপেক্ষায় ছিলেন লম্বা সময়। কারণ, তিন বছর আগেই দুজনের কথা হয়েছিল গল্পটি নিয়ে। দুজনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কাজটি একসঙ্গে করার।
ঈমন বলেন, ‘গল্পটি আমার অসম্ভব প্রিয়। মনে আছে, ২০১৭ সালের কোনও এক রাতে গল্পটি নিয়ে মোশাররফ করিম ভাইয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়। আমরা গভীর রাত পর্যন্ত গল্পটি নিয়ে আলোচনা করি। আলোচনার ফলাফল এমন ছিল, কাজটি আমরা একসঙ্গেই করবো।’
মাঝের তিন বছর একাধিকবার কাজটি করতে চাইলেও সম্ভব হয়নি। কারণ, একদিকে মোশাররফ করিমের শিডিউল জটিলতা, অন্যদিকে শেখ নাজমুল হুদা ঈমনের বিজ্ঞাপন নির্মাণকেন্দ্রিক ব্যস্ততা।
অবশেষে সব সামলে লকডাউনের আগে আগে টেলিছবিটির শুটিং করেন তারা। এতে মোশাররফ করিম ছাড়াও অভিনয় করেছেন তানজিকা আমিন, এস এস জায়ান, আশরাফুল আশিস, মাহাবুবুর রহমান, সৈয়দ বোরহান, অঙ্গন, শর্মী শারমিন প্রমুখ।
টেলিছবিটি প্রচার হবে ঈদের দিন (২৫ মে) সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে, মাছরাঙা টেলিভিশনে।

সাজু মুনতাসিরের প্রযোজনায় হাংরি বাগস ফিল্মস-এর নির্মাণে এই টেলিছবিটিতে দেখা যাবে একরোখা স্বভাবের মধ্যবয়স্ক সরকারি কর্মকর্তা মোশাররফ করিমের জীবন-সংসার। যেখানে তার স্ত্রীর ভূমিকায় রয়েছেন তানজিকা আমিন। তাদের সংসারে রয়েছে একটি পুত্রসন্তানও।
নির্মাতা শেখ নাজমুল হুদা ঈমন বলেন, ‘এটা আসলে আমাদের মধ্যবিত্ত জীবনের ছোট্ট একটি চিত্র তুলে আনার চেষ্টা মাত্র। আমার লেখা গল্পটিকে মোশাররফ ভাই তিন বছর ধরে বিশ্বাস করেছেন। আমরা প্রাণভরে কাজটি করার চেষ্টা করেছি। কারণ, গল্পটি আমাদেরও। এর বেশি আগাম বললে দর্শকরা বিরক্ত হবেন। তাই বলছি না। আমাদের আশা, কাজটি দর্শকদের ভাবাবে।’

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ