‘‌দেবী’র পর অনমের ছবি ‘ফুটবল ৭১’

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৩৬, জুলাই ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:২২, জুলাই ০২, ২০২০

অনম বিশ্বাস

নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের মিসির আলি নিয়ে হাজির হয়েছিলেন পরিচালক অনম বিশ্বাস। তুমুল প্রশংসিত হওয়া ‘দেবী’ নামের এ ছবিটির নির্মাতা এবার নিয়ে আসছেন তার দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ‘ফুটবল ৭১’ নিয়ে। যেখানে উঠে আসবে মহান মুক্তিযুদ্ধের গৌরবোজ্জ্বল এক ইতিহাস। ছবিটি নির্মাণের জন্য ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়েছেন অনম।

স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের কাহিনি নিয়ে মূলত এ ছবি। অনম বললেন, ‘বাংলাদেশকে নিয়ে গর্ব করার মতো অনেক কিছু আছে। আমাদের প্রজন্ম বা আমরা সেটা সিনেমাতে সেভাবে পাচ্ছি না। এ কারণে ছবিটি নিয়ে কাজ করছি। প্রায় দেড় বছর ধরে এর কাজ চলছে। সরকারি অনুদান পাওয়ায় এটি শেষ করতে আমাদের বিশেষ সুবিধা হবে।’

৭১ সালের জুন মাসে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলটি গঠিত হয়। প্রথমদিকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত চিঠিতে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের কথা উল্লেখ করে মুজিবনগর গিয়ে তাতে যোগ দিতে বলা হয় খেলোয়াড়দের। এ সময় মুজিবনগরে প্রথমে গিয়ে উপস্থিত হন প্রতাপ শঙ্কর হাজরা, সাইদুর রহমান প্যাটেল, শেখ আশরাফ আলীসহ আলী ইমাম এবং অন্যরা। ৩১ জন বাছাই করে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল গঠন করা হয়। ২৫ জুলাই পশ্চিমবঙ্গের কৃষ্ণনগর স্টেডিয়ামে নদিয়া একাদশের বিপক্ষে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল প্রথম খেলতে নামে। ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত অর্জন এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সাহায্যার্থে অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে ভারতের বিভিন্ন স্থানে এ দলটি ফুটবল খেলায় অংশ নেয়।

অনমের ভাষ্য, ‘সিনেমাটিতে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের বীরত্ব উঠে আসবে। যেমন কাজী সালাহউদ্দিনের চরিত্রটি থাকবে। তখন তিনি কলকাতায় মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিং নিচ্ছিলেন। পরে রেডিওতে শুনলেন দেশের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ফুটবল দল গঠন করা হবে। সেখানে খেলতে ছুটে গেলেন তিনি। আমরা এমন অনেক ফুটবলারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। এগুলোর একটা আর্কাইভও হবে। পাশাপাশি কিছু ফিকশনও ঢুকবে।’

‘দেবী’ চলচ্চিত্রে কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছিলেন জয়া আহসান ও চঞ্চল চৌধুরী। নতুন ছবির জন্য তাদের ভাবছেন কিনা—এমন প্রশ্নে অনম বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা কয়েকজনের কথা ভাবছি। তবে এ ছবিতে শারীরিক পরিশ্রম অনেক। শিল্পীরা সেটা করবেন কিনা- সেটা আমাদের পরিষ্কার হতে হবে। আবার ফুটবল খেলা তো অভিনয় করে হবে না, তাই কিছু ফুটবলারও এতে থাকবেন। তবে পাণ্ডুলিপির কাজ শেষ না হওয়ায় কারও সঙ্গে আমরা আলাপ করিনি। এই মুহূর্তে এটুকু বলতে পারি, সবার খুব প্রিয় ও পরিচিত মুখ নিয়েই ছবিটি তৈরি করবো। গল্পের প্রয়োজনেই তরুণ অভিনয়শিল্পীদের প্রাধান্য থাকবে। কিছু চমকও থাকবে।’

স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের অধিনায়ক ছিলেন জাকারিয়া পিন্টু। সহ-অধিনায়ক ছিলেন প্রতাপ শঙ্কর হাজরা। ব্যবস্থাপক ছিলেন তানভীর মাজহারুল ইসলাম তান্না এবং দলের প্রশিক্ষক ছিলেন ননী বসাক।
এ চরিত্রগুলোও ছবিতে উঠে আসবে। অনম জানান, সব ঠিক থাকলে আগামী বছরের শুরুতে ছবির কাজ শুরু হবে।

/এম/এমওএফ/

লাইভ

টপ