১৮ বছরে এনটিভি‘এই করোনাকালেও পর্দাটাকে আমরা ঝাপসা করতে চাইনি’

Send
সুধাময় সরকার
প্রকাশিত : ০০:০১, জুলাই ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:১৪, জুলাই ০৩, ২০২০

সম্প্রচারের ১৮ বছরে পদার্পণ করলো দেশের অন্যতম বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভি। সময়ের সাথে আগামীর পথে—স্লোগান নিয়ে ২০০৩ সালের এই দিনে (৩ জুলাই) যাত্রা শুরু করে চ্যানেলটি।

১৭ বছর ধরেই চ্যানেলটি দেশের অন্যতম জনপ্রিয় প্রচারমাধ্যম হিসেবে নিজের অবস্থান ধরে রেখেছে। বিশেষ করে চ্যানেলটির নাটক, অনুষ্ঠান ও রিয়েলিটি শো’র জনপ্রিয়তা ও ইতিহাস বেশ সমৃদ্ধ।
প্রতিষ্ঠান ১৭ বছর অতিক্রম করা প্রসঙ্গে চ্যানেলটির অনুষ্ঠান মহাব্যবস্থাপক আলফ্রেড খোকন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সবচেয়ে বড় প্রশান্তি হলো, এই চ্যানেলটির প্রতি মানুষের অগাধ আস্থা আছে। যদিও সেটি তৈরি করা খুব সহজ কাজ ছিল না। মানুষ অনেকদিন ধরেই বিশ্বাস করে, এনটিভিতে যেটা প্রচার হবে সেটার মিনিমাম একটা সৌন্দর্য ও সত্যতা রয়েছে। এটাই আমাদের সামনের পথে এগিয়ে যাওয়ার জন্য বড় শক্তি। এটুকু আস্থা ধরে রাখাই এখন আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ।’
খোকন আরও বললেন, ‘অনেকেই বলেন, আমাদের চ্যানেল দেখলে চোখে শান্তি পান। এই চোখে শান্তি পাওয়ার জন্য টিভি স্ক্রিনটা পরিষ্কার দেখাতে হয়। সে জন্য আমাদের দক্ষ কলাকুশলী রয়েছেন। পাশাপাশি রয়েছে টিমের মধ্যে সমন্বয়। কারণ, পর্দায় যখন পরিচ্ছন্ন দেখা যাবে, সেখানে লাইটম্যানকে যেমন পরিকল্পিত লাইট করতে হবে, তেমনি ক্যামেরাম্যানকে সঠিক এক্সপোজার দিয়ে তা ক্যামেরায় ধারণ করতে হবে। আবার শিল্পীর মেকআপটাও সঠিক হওয়া চাই। গ্রাফিক্স টিমের মানানসই গ্রাফিক্স চাই। সব মিলিয়ে পুরো টিমের সমন্বয়টা অনেক বেশি প্রয়োজন, যেটা আমাদের আছে। অনুষ্ঠান ও নাটকের মতো আমাদের নিউজও জনপ্রিয়। নির্মোহ, সত্য খবর পরিবেশনের জন্য দেশের মানুষ এনটিভিকে বিশ্বাস করেন।’

এদিকে চ্যানেল সূত্রে জানা গেছে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। যার শুরুটা হচ্ছে ৩ জুলাই ভোর ৬টা ৫৫ মিনিট থেকে ‘প্রবাসে আনন্দে’ নামের অনুষ্ঠান দিয়ে। এরপর সকাল ৮টা ২০ মিনিটে প্রচার হবে সরাসরি বিশেষ অনুষ্ঠান ‘ছুটির দিনের গান’। দেবলীনা সুরের উপস্থাপনা ও মোহাম্মদ নূরুজ্জামানের প্রযোজনায় এই অনুষ্ঠানে গাইবেন সামিনা চৌধুরী।

দুপুর ২টা ৩৫ মিনিটে প্রচার হবে পুরনো টেলিছবি ‘বুকের বাঁ পাশে’। মিজানুর রহমান আরিয়ানের রচনা ও পরিচালনায় এতে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো, মেহজাবীন চৌধুরী, লুৎফর রহমান জর্জ, সুষমা সরকার, শেলী আহসান প্রমুখ। বিকাল ৫টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘১৮ বছরে এনটিভি’। সরাসরি এ অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করবেন জাহাঙ্গীর চৌধুরী। ইভান সাইরের উপস্থাপনায় এতে অংশ নেবেন নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, ফেরদৌস হাসান, ফেরদৌস আরা, পার্থ বড়ুয়া, তারিন জাহান প্রমুখ।
মেহজাবীন-আফরান নিশো/ নাটক ‘বুকের বাঁ পাশে’
রাত ৯টায় প্রচার হবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বিশেষ অনুষ্ঠান ‘এনটিভিতে হলো শুরু’। কাজী মোহাম্মদ মোস্তফা ও মোহাম্মদ নূরুজ্জামানের যৌথ প্রযোজনায় অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন আফরোজা সুমী। বিশেষ এই আয়োজনে অংশ নিয়েছেন আবু হেনা রনি, রাজিব ও প্রমি। রাত সাড়ে ৯টায় প্রচার হবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বিশেষ নাটক ‘গল্প নয়’। ফারিয়া হোসেন ও চয়নিকা চৌধুরীর যৌথ রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন চয়নিকা চৌধুরী। অভিনয় করেছেন, জাকিয়া বারী মম, আনিসুর রহমান মিলন, ইরফান সাজ্জাদ, আবুল হায়াত, মিলি বাশার, মাসুম বাশার প্রমুখ।
নাটকটি সম্পর্কে চয়নিকা চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এটা আমার নির্মাণে ৪০০তম নাটক। ফলে নির্মাতা হিসেবে এই নাটকটি আমার কাছে বিশেষ কিছু। সেই বিশেষে নতুন মাত্রা যোগ হলো, যখন জানলাম নাটকটি প্রচার হচ্ছে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে।’
এই নির্মাতা আরও বলেন, ‘আমার জীবনের বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ কাজ এই চ্যানেলটিতে প্রচার হয়েছে। যার সবগুলোই কামাল (সদ্য প্রয়াত এনটিভির অনুষ্ঠান প্রধান মোস্তফা কামাল সৈয়দ) আঙ্কেলের হাত ধরে। এবারই প্রথম উনাকে ছাড়া কিছু প্রচার হচ্ছে। এমন আনন্দ দিনে এটাও একটা বেদনা বটে।’



শুটিংয়ে চয়নিকা চৌধুরী ও আনিসুর রহমান মিলন/ নাটক ‘গল্প নয়’
এদিকে বিশেষে আয়োজনে রাত সাড়ে ১১টায় চ্যানেলটিতে প্রচার হবে সরাসরি অনুষ্ঠান ‘এনটিভির ১৮ বছর: গণমাধ্যমের দশ দিগন্ত’। সাংবাদিক জহিরুল আলমের উপস্থাপনায় বিশেষ এই আয়োজনে অংশগ্রহণ করবেন আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, মাহফুজ আনাম, রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল ও মঞ্জুরুল ইসলাম।
জন্মদিনের বিশেষ আয়োজন সম্পর্কে এনটিভির অনুষ্ঠান মহাব্যবস্থাপক আলফ্রেড খোকন বলেন, ‘অনেকেই করোনাকাল বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়ে ঘরে বসে ইন্টারনেটের মাধ্যমে রোজ অনেক ধারার অনুষ্ঠান প্রচার করে। আমরা কিন্তু সেটি এখনও করিনি। এই করোনাকালেও আমরা ঘরে বসে থাকিনি। করোনার দায় দিয়ে এনটিভির পর্দাটাকে ঝাপসা করতে চাইনি। যত কষ্টই হোক, জীবন বাজি থাক- তবু দর্শকদের সামনে আমরা স্বচ্ছটাই তুলে ধরতে চেয়েছি। জন্মদিনকে ঘিরে অনেক সরাসরি সম্প্রচার অনুষ্ঠান রয়েছে আমাদের। কিন্তু আমরা অনলাইনের সাহায্য নিইনি। সবই সম্প্রচার হবে নিজস্ব স্টুডিও থেকে সরাসরি। অবশ্যই সেটি যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে করতে হচ্ছে। কষ্ট হচ্ছে। তবু করছি, পিছপা হইনি। কারণ, মানুষের আস্থা অর্জনের চেয়ে রক্ষা করা কঠিন, সেই কঠিন চেষ্টায় আমরা জেগে আছি সারাক্ষণ।’আলফ্রেড খোকন

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ