স্বাধীনতা দিবসে আসছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৩৫, অক্টোবর ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৭, অক্টোবর ৩১, ২০২০

সংবাদ সম্মেলনে পরিচালক দীপংকরসহ র‌্যাবের কর্মকর্তারাজলদস্যু ও বনদস্যুমুক্ত সুন্দরবনের প্রেক্ষাপট নিয়ে তৈরি হচ্ছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’খ্যাত নির্মাতা দীপংকর দীপনের চলচ্চিত্র ‘অপারেশন সুন্দরবন’। এর কাজ একেবারে শেষ পর্যায়ে। তাই এটি মুক্তির সম্ভাব্য দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেছে ছবিটির প্রযোজক র‍্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটি। স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তিতে আগামী ২৬ মার্চ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

আজ (৩১ অক্টোবর) বিকালে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ানের (র‍্যাব) সদর দফতরে ছবিটির অগ্রগতি ও সার্বিক বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাহিনীর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা মোট তিনটি ভাগে চলচ্চিত্রটির শুটিং শেষ করতে যাচ্ছি। আশা করছি, স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তি উপলক্ষে ২৬ মার্চ চলচ্চিত্রটি মুক্তি দিতে পারবো। ‘অপারেশন সুন্দরবন’ লাভজনক নয়, সমাজ সংস্কারমূলক চলচ্চিত্র। সুন্দরবনের যেসব দস্যুরা স্বাভাবিক জীবনে ফেরত এসেছেন, তাদের জীবন যাপনের মান উন্নয়নে চলচ্চিত্র থেকে উপার্জিত মুনাফা ব্যয় করা হবে।’’operation_sundarban_bmdb_image

আশিক বিল্লাহ আরও বলেন, ‘২০১২ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে র‌্যাব পরিচালককে প্রধান সমন্বয়কারী করে সুন্দরবনের জলদস্যু দমনের টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। এর মাধ্যমে জলদস্যু মুক্তকরণ প্রক্রিয়াও শুরু হয়। লিড অ্যাজেন্সি হিসেবে র‌্যাব ২০১২ সাল থেকে সুন্দরবনে জোড়ালোভাবে অভিযান পরিচালনা করে আসছে। এতে গ্রেফতার হয় ২৬২ জলদস্যু। একের পর এক অভিযানে ফেরারি জীবনের অবসান ঘটিয়ে আত্মসমর্পণের পথ বেছে নেয় জলদস্যুরা।’’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সিনেমাটির পরিচালক দীপংকর দীপন বলেন, ‘‘২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি তৎকালীন র‌্যাব প্রধান ড. বেনজীর আহমেদ আমাকে বলেন, ‘সুন্দরবন জলদস্যু মুক্ত হওয়ার ঘটনা নিয়ে সিনেমা তৈরি করতে চাই।’ এজন্য তিনি আমাকে সরেজমিন পরিদর্শনে যাওয়ার অনুরোধ করেন। দীর্ঘদিন সেখানে থাকার সময় তৎকালীন র‌্যাবে কর্মরত অফিসারদের খোঁজ-খবর করি। তাদের কাছ থেকে সুন্দরবন জলদস্যু মুক্ত করার বিভিন্ন গল্প ছাড়াও স্থানীয় জেলে, সেখানে বসবাস করা পরিবার ও দস্যুদের মাধ্যমে নির্যাতিত অনেকের সঙ্গে কথা বলি। এরপরই সিনেমাটির কাজ শুরু হয়। এরইমধ্যে ৩৩ দিনের শুটিং শেষ হয়েছে।’’

জানা যায়, চলচ্চিত্রটিতে র‌্যাবের অনেক কর্মকর্তা জড়িত আছেন। এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন- সিয়াম আহমেদ, নুসরাত ফারিয়া, রিয়াজ, রাইসুল ইসলাম আসাদ, জিয়াউল রোশন, তাসকিন রহমান, শতাব্দী ওয়াদুদ, সামিনা বাশারসহ আরও অনেকে। এছাড়া প্রায় ১৩ শ’ জন সিনেমাটিতে অভিনয় করছেন। এখন চলছে এর শেষ পর্যায়ের কাজ।

/এআরআর/এম/

লাইভ

টপ