X
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের পর জাপানের সঙ্গে মহড়া যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২৩আপডেট : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২৫

জাপানের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার জাপান সাগরে অনুষ্ঠিত এই মহড়ায় অংশ নেয় উভয় দেশের একঝাঁক যুদ্ধবিমান। এদিন জাপানের ভূখণ্ডের ওপর দিয়ে একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া। এরপরই সাগরে যৌথ মহড়া চালায় ওয়াশিংটন ও টোকিও। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী তরফে জাপান সাগরে এই মহড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। হাওয়াইভিত্তিক ইউএস ইন্দো প্যাসিফিক কমান্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষার প্রতি ওয়াশিংটনের ইস্পাতকঠিন অঙ্গীকার অব্যাহত রয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের পর জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়াসুকাজু হামাদা বলেন, পিয়ংইয়ংয়ের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পাল্টা হামলা চালানোর সক্ষমতা তৈরি থেকে শুরু করে সব ধরনের পথ খোলা রাখছে টোকিও।

উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ও পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এছাড়া কোনও পূর্ব-সতর্কতা বা পরামর্শ ছাড়া অন্য দেশের দিকে বা তার ভূখণ্ডের ওপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ আন্তর্জাতিক নিয়মের পরিপন্থী। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র অ্যাড্রিয়েন ওয়াটসন বলেছেন, পিয়ংইয়ং স্পষ্টতই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব এবং আন্তর্জাতিক রীতিনীতির প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন করেছে।

বিষয়টি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান তার জাপানি ও দক্ষিণ কোরিয়ার সমকক্ষদের সঙ্গে কথা বলেছেন। ‘উপযুক্ত ও শক্তিশালী যৌথ ও আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া’ নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার নিষিদ্ধ অস্ত্র কর্মসূচি এগিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা কমিয়ে দিতে ওয়াশিংটন তার চেষ্টা অব্যাহত রাখবে বলেও জানান তিনি।

/এমপি/
রমজানের আগেই পণ্যের ন্যায়সঙ্গত মূল্য নিশ্চিত করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী
রমজানের আগেই পণ্যের ন্যায়সঙ্গত মূল্য নিশ্চিত করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী
১০ ডিসেম্বর সর্বদলীয় কর্মসূচি নিয়ে আসবো: মির্জা ফখরুল
১০ ডিসেম্বর সর্বদলীয় কর্মসূচি নিয়ে আসবো: মির্জা ফখরুল
ডেঙ্গুতে আরও ৩ মৃত্যু
ডেঙ্গুতে আরও ৩ মৃত্যু
‘ব্যবসায়ীরা ফেরেশতা নন, প্রয়োজনে কারাগারে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে’
‘ব্যবসায়ীরা ফেরেশতা নন, প্রয়োজনে কারাগারে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে’
সর্বাধিক পঠিত
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
হাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
আঙুলের অপারেশন করতে গিয়ে মৃত্যুহাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ