X
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৫ বৈশাখ ১৪৩১

সিরিয়ায় মার্কিন সেনাঘাঁটিতে ড্রোন হামলা, ৬ কুর্দি যোদ্ধা নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:২৮আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:২৮

সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে মার্কিন সেনা মোতায়েন থাকা একটি ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় ছয় কুর্দি যোদ্ধা নিহত হয়েছে। রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দেইর এল-জোরে অবস্থিত আল-ওমর সেনাঘাঁটিতে হামলাটি চালানো হয়। সোমবার মার্কিন সমর্থিত কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস (এসডিএফ) হামলার ঘটনাটি নিশ্চিত করেছে। তাদের বরাত দিয়ে সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) এ খবর জানিয়েছে মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি।

এক ভিডিও বার্তায় হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরান-সমর্থিত একটি ইরাকি মিলিশিয়া গোষ্ঠী। ইরাকে গোষ্ঠীটি ইসলামিক রেজিস্ট্যান্স নামে পরিচিত। ভিডিওতে অজ্ঞাত এক জায়গা থেকে তাদেরকে ড্রোনটি চালু করতে দেখা গেছে।  

ঘাঁটিতে কুর্দি যোদ্ধাদের কমান্ডো ইউনিটকে প্রশিক্ষণ দিতেন মার্কিন সেনারা। তবে মার্কিন সেনা হতাহতের কোনও খবর পাওয়া যায়নি।

জানুয়ারির শেষ দিকে সিরিয়ার সীমান্তবর্তী জর্ডানের এক সেনা ঘাঁটিতে ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়া জঙ্গি গোষ্ঠীর ড্রোন হামলায় তিন মার্কিন সেনা নিহত হয়। আহত হন আরও অনেকে।  এ ঘটনার পরপরই ইরাক ও পূর্ব সিরিয়ায় ইরান-সমর্থিত জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোকে লক্ষ্য করে প্রতিশোধমূলক হামলা চালায় মার্কিন বাহিনী। ইয়েমেনের হুথিদের লক্ষ্য করেও হামলা চালাচ্ছে তারা।

এরপর ইরাক ও সিরিয়ায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটি ও সেনাদের লক্ষ্য করে নতুন করে ড্রোন হামলা শুরু করেছে ইরানপন্থি গোষ্ঠী। এছাড়া দেশ দু’টি থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের আহ্বানও জানিয়েছে তারা।

গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার পর এই অঞ্চলে এমনিতেই অস্থিরতা বিরাজ করছে। তার ওপর এসব হামলা ও পালটা হামলার ঘটনা মধ্যপ্রাচ্যে নতুন উত্তেজনা ছড়াচ্ছে।

/এস/এএ/
সম্পর্কিত
ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের দাবি ইউক্রেনের
ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জোরদার করলো ইইউ
ভোটারদের কাছে পৌঁছাতে ভারতীয় নির্বাচনি কর্মকর্তাদের প্রস্তুতি কেমন?
সর্বশেষ খবর
ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের দাবি ইউক্রেনের
ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের দাবি ইউক্রেনের
প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে উদ্যোক্তা হিসেবে দেখতে চান প্রধানমন্ত্রী
প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে উদ্যোক্তা হিসেবে দেখতে চান প্রধানমন্ত্রী
গরমে হাসপাতালে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগী
গরমে হাসপাতালে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগী
মোস্তাফিজের অনাপত্তিপত্র ইস্যুতে দুই মেরুতে বিসিবি
মোস্তাফিজের অনাপত্তিপত্র ইস্যুতে দুই মেরুতে বিসিবি
সর্বাধিক পঠিত
এএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
রেস্তোরাঁয় ‘মদ না পেয়ে’ হামলার অভিযোগএএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
রাজধানীকে ঝুঁকিমুক্ত করতে নতুন উদ্যোগ রাজউকের
রাজধানীকে ঝুঁকিমুক্ত করতে নতুন উদ্যোগ রাজউকের
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
ফিলিস্তিনের পূর্ণ সদস্যপদ নিয়ে জাতিসংঘে ভোট
ফিলিস্তিনের পূর্ণ সদস্যপদ নিয়ে জাতিসংঘে ভোট