কাশ্মিরের বিধিনিষেধকে দানবীয় আখ্যা দিলেন ভারতের সম্পাদকেরা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪৫, আগস্ট ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫২, আগস্ট ১০, ২০১৯

ভারত সরকারের আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় কাশ্মিরে সৃষ্ট অচলাবস্থাকে দানবীয় আখ্যা দিয়েছেন দেশটির সম্পাদকেরা। শনিবার এডিটরস গিল্ড অব ইন্ডিয়ার এক বিবৃতিতে জম্মু কাশ্মিরে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দেওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। কাশ্মির উপত্যকায় সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করায় ভারত সরকারের সমালোচনা করা হয়েছে ওই বিবৃতিতে।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে গত সোমবার (৫ আগস্ট) কাশ্মিরের সায়ত্ত শাসনের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়। ভাগ করা হয় আলাদা দুটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে। ভারত সরকারের ওই ঘোষণার পর কাশ্মির উপত্যকার সব ধরণের যোগাযোগের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় ল্যান্ডলাইন ও ইন্টারনেট পরিষেবা। আরোপ করা হয় কারফিউ। তবে শুক্রবার আংশিকভাবে তা প্রত্যাহার করা হয়।

এমন পরিস্থিতিতে শনিবার উদ্বেগ জানিয়ে বিবৃতি দেয় এডিটরস গিল্ড অব ইন্ডিয়া। ওই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সফররত কোনও কোনও সাংবাদিক উপত্যকার বাইরে এসে তাদের রিপোর্ট পাঠাতে পারলেও স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের জন্য এই অচলাবস্থা সম্পূর্ণ দানবীয় পরিস্থিতি তৈরি করেছে। অথচ এই সংবাদমাধ্যমগুলোই মাঠ পর্যায়ে প্রথম চোখ ও কানের কাজ করে থাকে। সরকার ভালো করেই জানে এখন ইন্টারনেট ছাড়া সংবাদ প্রক্রিয়াজাত ও প্রকাশ করা সম্ভব না’।

এডিটরস গিল্ড অব ইন্ডিয়া’র বিবৃতিতে বলা হয়, জম্মু কাশ্মিরে বর্তমানে যে পরিস্থিতি চলছে তাতে মুক্ত গণমাধ্যমের ভূমিকা খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে। আর সরকারি প্রতিষ্ঠান ও নিরাপত্তার ওপর নজর রাখা তাদের গণতান্ত্রিক দায়িত্ব।

কাশ্মিরে স্থানীয় ও বহিরাগত সাংবাদিকদের কারফিউ পাস দেওয়ার ক্ষেত্রে অন্যায্য বৈষম্যের সমালোচনা করা হয় ওই বিবৃতিতে। বলা হয় ভারতের সব সাংবাদিক ও নাগরিকের সমান স্বাধীনতা রয়েছে। সংবাদমাধ্যম সংশ্লিষ্ট যোগাযোগ স্বাভাবিক করার আহ্বান জানিয়েছে সম্পাদকদের বিবৃতিতে বলা হয়, সংবাদমাধ্যমের স্বচ্ছতা সব সময়ই ভারতের শক্তি, ভীতি নয়।

অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও যেসব সাংবাদিক মাঠ পর্যায় থেকে রিপোর্ট করছেন তাদের ধন্যবাদ জানানো হয় ওই বিবৃতিতে। সম্পাদকদের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে তাদের নিরাপত্তা ও চলাফেরার স্বাধীনতা নিশ্চিত করার আহ্বান জানানো হয়।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ