‘জনসন আমার হৃদয় ভেঙে দিয়েছে’

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:২৩, নভেম্বর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:২৫, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নেওয়ার অভিযোগ উঠছে যুক্তরাষ্ট্রের এক নারী ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। রবিবার জেনিফার আরকারি নামের ওই নারী মন্তব্য করেছেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তার হৃদয় ভেঙে দিয়েছেন। যুক্তরাজ্যের সম্প্রচারমাধ্যম আইটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেছেন তিনি।

২০০৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত লন্ডনের মেয়র ছিলেন বরিস জনসন। অভিযোগ উঠেছে, সে সময় ব্যক্তিগত সম্পর্ক থাকার কারণে জেনিফারকে অনৈতিক বরাদ্দ ও বিদেশি বাণিজ্যে সম্পৃক্ত করেছেন তিনি। আইটিভি দাবি করেছে, তাদের মধ্যে চার বছরেরও বেশি সময় পর্যন্ত প্রেমের সম্পর্ক ছিলো।

আইটিভির এক অনুষ্ঠানে প্রযুক্তি উদ্যোক্তা জেনিফার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘আমাকে যেভাবে ভূতের মতো বিবেচনা করেছো তাতে আমার হৃদয় ভেঙে গেছে।’ তিনি বলেন, ‘আমি বুঝতে পারছি না কেন তুমি আমাকে অবজ্ঞা করছো। আমি কি কোনও এক রাতের অতিথি নাকি পানশালা থেকে তুলে আনা কোনও মেয়ে?’

কনজারভেটিভ দলের চিকিৎসক ক্যারি সিমন্ডসের সঙ্গে সম্পর্কের জেরে বরিস জনসনকে ছেড়ে যান তার স্ত্রী। বর্তমানে তার সঙ্গেই ডাউনিং স্ট্রিটে একসঙ্গে থাকেন জনসন। জেনিফারের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে জনসন বলে আসছেন, তার এমন কোনও সম্পর্ক ছিলো না যার কারণে স্বার্থের সংঘাতের তদন্ত হতে পারে।

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ