পরমাণুবাহী ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়ন করছে ইরান: যুক্তরাজ্য-ফ্রান্স-জার্মানি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৩৯, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪৫, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯

ইরান পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়ন করছে বলে অভিযোগ করেছে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানি। তারা জানিয়েছে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব লঙ্ঘন করে পরমাণু তৎপরতা চালাচ্ছে তেহরান। বুধবার (৪ ডিসেম্বর) জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসকে লেখা এক চিঠিতে ইউরোপের ওই তিন দেশ এই অভিযোগ করে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইরান।

২০১৫ সালের জুনে ভিয়েনায় ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন ও জার্মানির স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কার্যক্রম চালিয়ে গেলেও পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি না করার প্রতিশ্রুতি দেয় তেহরান। পূর্বসূরি ওবামা আমলে স্বাক্ষরিত এই চুক্তিকে ‘ক্ষয়িষ্ণু ও পচনশীল’ আখ্যা দিয়ে গত বছরের মে মাসে তা থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই বছরের নভেম্বর থেকে তেহরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল শুরু করে ওয়াশিংটন। এদিকে ইউরোপীয় দেশগুলো চুক্তি বাস্তবায়নের কথা মুখে বললেও কার্যত তারা কোনও পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ করে চুক্তি থেকে পর্যায়ক্রমে সরে আসে ইরান।

বুধবার ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ তিন দেশ ব্রিটেন, ফ্রান্স এবং জার্মানি দাবি করেছে- ইরানের কাছে পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। এর প্রযুক্তিগত উন্নয়নে কাজ করছে দেশটি। যা জাতিসংঘে পাস হওয়া ২২৩১ নম্বর প্রস্তাবের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

ইরানের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির বিষয়টি নিরাপত্তা পরিষদকে জানানোর জন্য তিন দেশ চিঠিতে মহাসচিবকে অনুরোধ করেছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, ইরানের পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করাই ২০১৫ সালে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবের লঙ্ঘন। ওই প্রস্তাবে পরমাণুবাহী কোনও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি না করার জন্য ইরানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। গত ২২ এপ্রিলে সাহাব-৩ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় তেহরান। ওই তিন দেশের দাবি, ওই ক্ষেপণাস্ত্রটি পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম।

অন্যদিকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেছেন, ‘পারমাণবিক চুক্তির ন্যূনতম বাধ্যবাধতা পূরণ করতে না পারায় তাদের অক্ষমতা ঢাকতে ডাহা মিথ্যা অভিযোগ এনে চিঠি দিয়েছে ইউরোপের শক্তিশালী রাষ্ট্রগুলো।’

ইউরোপের এই তিনটি দেশের অভিযোগের আগে ইরান পরমাণু বহনে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণে কাজ করছে বলে দাবি করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে সব সময় ইরান এ ধরনের অভিযোগ নাকচ করে এসেছে। দেশটি জানিয়েছে, তেহরানের হাতে কোনও পরমাণু অস্ত্র নেই এবং এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র বানানোর চিন্তাও করছে না তারা। ইরানের দাবি, ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিতান্তই তাদের অভ্যন্তরীণ প্রতিরক্ষার বিষয় এবং এ নিয়ে কারও সঙ্গে কোনও আলোচনা করা হবে না।

 

 

/এইচকে/

লাইভ

টপ