ইউক্রেনের বিমান ভূপাতিতের ঘটনায় ইরানে একাধিক সন্দেহভাজন আটক

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:০২, জানুয়ারি ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩৩, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

ইরানে ভুলবশত ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমান ভূপাতিতের ঘটনায় একাধিক সন্দেহভাজনকে আটক করেছে তেহরান। মঙ্গলবার ইরানের বিচার বিভাগের এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে আটকের সংখ্যা বা তাদের পরিচয় জানানো হয়নি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।
বিবৃতিতে বিচার বিভাগের মুখপাত্র গোলাম হোসেইন ইসমাইল বলেন, কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই এর বিষয়ে তদন্তকাজ শুরু করেছে। তদন্ত চলছে এবং বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় বিশেষ আদালত গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। মঙ্গলবার তিনি বলেছেন, দায়ীদের বিচারের আওতায় আনা হবে।

২০২০ সালের ৮ জানুয়ারি ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার বদলা নিতে ইরাকের মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় তেহরান। একইদিন তেহরান থেকে উড্ডয়নের তিন মিনিটের মাথায় ১৭৬ আরোহীসহ ইউক্রেনের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়। নিহত হয় এর সব আরোহী। পরে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর অনুসন্ধানে উঠে আসে, ইরান ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়ে বিমানটি ভূপাতিত করেছে। প্রথমে অস্বীকার করলেও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে প্লেনটি ভূপাতিত করার কথা স্বীকার করে।

ইরানের সামরিক বাহিনী স্বীকার করেছে, তারা ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমানটি ভূপাতিত করেছে। তবে এটি ছিল ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’।

সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিমানটি সেনাবাহিনীর একটি স্পর্শকাতর স্থানের কাছাকাছি চলে এসেছিল। ফলে এটিকে ‘শত্রু টার্গেট’ বলে মনে করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়; যা ছিল সম্পূর্ণরূপে একটি ‘মানবিক ত্রুটি’। তবে এ ঘটনায় জড়িতদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা হবে।

/এমপি/

লাইভ

টপ