খ্যাতনামা ব্রিটিশ বাংলাদেশি শেফের আশাবাদযুক্তরাজ্যের কারি শিল্প আরও সমৃদ্ধ হবে

Send
অদিতি খান্না, যুক্তরাজ্য
প্রকাশিত : ০০:১৬, জানুয়ারি ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:১৭, জানুয়ারি ২৫, ২০২০

ভারতীয় ও বাংলাদেশি মসলাযুক্ত রান্নার ব্রিটিশ সংস্করণ কারি যুক্তরাজ্যে বিপুল জনপ্রিয়। দেশটিতে ভারতীয় উপমহাদেশের অভিবাসী সম্প্রদায়ের কাছে এই খাবার যেন একটি  শিল্পে পরিণত হয়েছে। তবে গত কয়েক বছরে দক্ষ কর্মী সংকটে বেশ কয়েকটি কারি হাউস বন্ধ হওয়ায় উদ্বেগ বাড়তে শুরু করে। প্রখ্যাত ব্রিটিশ বাংলাদেশি শেফ আখতার ইসলাম অবশ্য এটাকেই দেখছেন কারি শিল্পের স্বাদে পরিবর্তন আনার সুযোগ হিসেবে।
আখতার ইসলামের বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মা-বাবা ১৯৭০-এর দশকে বার্মিংহামে গিয়ে বসবাস শুরু করেন। শহরটিতে ওফিম নামের একটি রেস্টুরেন্ট চালান আখতার। সম্প্রতি এই রেস্টুরেন্টের কল্যাণে সম্মানজক মিশেলিন স্টার পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

তার এই পুরস্কার প্রাপ্তিকে ভারতীয় উপমহাদেশের রন্ধন শিল্পের ঐতিহ্যের উদযাপন হিসেবে দেখা হচ্ছে। এছাড়া এর মধ্য দিয়ে নিজ অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী রান্নার প্রতি তার আবেগ-অনুভূতিও ফুটে উঠেছে। আখতার ইসলামের রেস্টুরেন্ট ওফিম আধুনিক কৌশল ও নৈপুণ্য প্রয়োগ করে ভারতীয় উপমহাদেশের স্বাতন্ত্র্যমণ্ডিত স্বাদের মসলাযুক্ত খাবার পরিবেশন করে।

আখতার ইসলামের ভাষায়, ‘আমরা ভারতীয় রান্নার স্বাদকে এ অঞ্চলের সীমানার বাইরে নিয়ে যেতে লড়াই করছি।’ তার বিশ্বাস, যুক্তরাজ্যের কারি শিল্পের মডেলটি এখন বিকশিত হওয়ার সময় এসেছে।

রান্নায় আখতারের দক্ষতার কারণে ২০০৯ সালে তার সাবেক রেস্টুরেন্ট লাসানকে যুক্তরাজ্যের প্রথম ভারতীয় রেস্টুরেন্ট হিসেবে নির্বাচিত করে চ্যানেল ৪-এর দ্য এফ-এ গর্ডন রামসে। সে সময় লাসানকে ‘বেস্ট লোকাল রেস্টুরেন্ট’ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। ওই সময়ে চারদিকে তার নাম ছড়িয়ে পড়ে। ২০১১ সালের জুনে তিনি বিবিসি-র ‘গ্রেট ব্রিটিশ মেন্যু’ সম্মাননা জিতে নেন। ২০১৮ সালে তিনি বার্মিংহাম সিটি সেন্টারে নিজের প্রথম রেস্টুরেন্ট ওফিম চালু করেন।

 

/জেজে/এমপি/

লাইভ

টপ