যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ছাড়িয়েছে

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:১৪, এপ্রিল ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:৫৬, এপ্রিল ০১, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা চার হাজার ছাড়িয়েছে। দেশটির জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ সময় ১ এপ্রিল বুধবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৮৯ হাজার ৬১৮। এর মধ্যে চার হাজার ৭৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসা নেওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন সাত হাজার ১০৯ জন।ফাইল ছবি
দেশটিতে এ ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে নিউ ইয়র্কে। সেখানে ইতোমধ্যেই মৃতের সংখ্যা দেড় হাজার ছাড়িয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজের পরিচালক ডা. অ্যান্থনি ফাউসি। তার আশঙ্কা, দেশটিতে এ ভাইরাসে দুই লাখ মানুষের মৃত্যু হতে পারে। গত ২৯ মার্চ সিএনএন-এর স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন শীর্ষক টক শোতে এমন আশঙ্কার কথা জানান তিনি। তার শঙ্কা, যুক্তরাষ্ট্রে ১০ লাখেরও বেশি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।

ওয়াশিংটন স্কুল অব মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের আশঙ্কা, যুক্তরাষ্ট্রে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা সর্বোচ্চ হতে পারে এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে। সেক্ষেত্রে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় হাসপাতালগুলোর ওপর চাপ বাড়বে। মহামারির চূড়ান্ত পর্যায়ে হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা ও প্রয়োজনীয় ভেন্টিলেটরেরও সংকট দেখা দিতে পারে। তবে সবচেয়ে বেশি উপদ্রুত নিউ ইয়র্কে ইতোমধ্যেই ভেন্টিলেটরের সংকট দেখা দিয়েছে।

৩১ মার্চ মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সময় তিনি সামনে অত্যন্ত বেদনাদায়ক সপ্তাহ আসছে বলে মন্তব্য করেন। তার ভাষায়, ‘আসন্ন দুইটি সপ্তাহ হতে যাচ্ছে খুব, খুবই বেদনাদায়ক।’ আসন্ন পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বর্তমান পরিস্থিতিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে তুলনা করছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেস। তিনি বলেছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীর সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ সাম্প্রতিক করোনাভাইরাস। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ফলে যে মন্দা পরিস্থিতি তৈরি হতে যাচ্ছে সে রকমটা সম্ভবত নিকট অতীতে দেখা যায়নি।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। উৎপত্তিস্থল চীনে ৮২ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেও সেখানে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমে গেছে। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে। চীনের বাইরে করোনা ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে ১১ মার্চ পৃথিবীব্যাপী মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সূত্র: বিবিসি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ