দিল্লির বিভিন্ন মসজিদে তাবলিগ জামাতে ৮ শতাধিক বিদেশি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:১৭, এপ্রিল ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:১৮, এপ্রিল ০৪, ২০২০

দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজ তাবলিগ জামাত থেকে গত সপ্তাহে ২ হাজার ৩০০ মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়। তদন্তে উঠে আসে দেশটির রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদে বিদেশি নাগরিকরা অবস্থান করছেন। ৩১ মার্চ দিল্লি পুলিশ রাজ্য সরকারকে জরুরি একটি চিঠি পাঠায়। এতে শহরের বিভিন্ন মসজিদে তাবলিগ জামাতে থাকা বিদেশি নাগরিকদের শনাক্ত করতে সহযোগিতা চাওয়া হয়। পুলিশ ১৬টি মসজিদের তালিকা করেছিল। হিন্দুস্তান টাইমস এখবর জানিয়েছে।


তদন্তকারীরা ১৮৭ জন বিদেশি ও প্রায় ৩০ জন ভারতীয় নাগরিককে শনাক্ত করার জন্য প্রস্তুত ছিলেন, যারা দিল্লির নিজামুদ্দিন এলাকায় তাবলিগ জামাতে অংশ নেওয়ার পর অন্যান্য মসজিদে অবস্থান নিয়েছেন। কিন্তু তাদের এই ধারণা ভয়াবহ ভুল বলে প্রতীয়মান হয়েছে।
মাত্র চারদিনের মাথায় পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী ও সরকারি কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত টিম দিল্লির বেশ কয়েকটি মসজিদ থেকে ৮ শতাধিক বিদেশি নাগরিককে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে। যারা নিজামুদ্দিনে আয়োজিত তাবলিগের সঙ্গে সম্পর্কিত। তবে এখনও অনেক মসজিদ বাকি রয়ে গেছে।
হিন্দুস্তান টাইমসকে এক কর্মকর্তা বলেন, সবচেয়ে আশঙ্কার বিষয় হলো এদের অনেকেই হয়ত করোনায় আক্রান্ত বলে ধরা পড়বে এবং এরই মধ্যে অনেকের মধ্যেই সংক্রমণ ছড়িয়ে দিয়েছেন।
নিজামুদ্দিন থেকে সরিয়ে নেওয়া তাবলিগ জামাতে অংশগ্রহণকারীদের সরকার পরিচালিত বিভিন্ন কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। বিভিন্ন মসজিদ থেকে যাদের পাওয়া গেছে তাদের এখনও করোনা পরীক্ষা করা হয়নি। এক বা দুই দিনের মধ্যে পরীক্ষা শুরু হবে।
দিল্লি রাজ্য সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সিনিয়র কর্মকর্তাও বিভিন্ন মসজিদে তাবলিগ জামাতের সদস্যদের চিহ্নিত করার কথা স্বীকার করেছেন। তবে তিনি নির্দিষ্ট সংখ্যা জানাতে পারেননি। তিনি বলেন, মাঠ পর্যায় থেকে আমরা এখনও চূড়ান্ত প্রতিবেদনের অপেক্ষায় আছি।
নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, উত্তর-পূর্ব জেলার মসজিদগুলো থেকে প্রায় ১০০, দক্ষিণ-পূর্ব জেলা থেকে ২০০, দক্ষিণ জেলায় ১৭০ ও পশ্চিম জেলায় ৭ জনকে পাওয়া গেছে।
নিরাপত্তা সংস্থাগুলো জানিয়েছে, ১ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজে প্রায় ২ হাজার ১০০ বিদেশি নাগরিক বিভিন্ন সময় উপস্থিত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারকাজ খালি করার সময় ২১৬ জনকে পাওয়া গেছে। এছাড়া ৮২৪ জন চিল্লার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়েছেন।
এক কর্মকর্তা বলেন, আমরা ধারণা করছি অবশিষ্ট প্রায় ৯০০-র মতো বিদেশি মূলত শহরের বিভিন্ন মসজিদে রয়েছে।
নিজামুদ্দিন মারকাজ থেকে তাবলিগ জামাতের সদস্যদের মধ্যে ২৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া প্রায় ২০০ জনের মধ্যে লক্ষণ রয়েছে। দিল্লি সরকার এখনও পরীক্ষার ফল হাতে পায়নি। তবে মারকাজ সংশ্লিষ্ট আক্রান্তদের সংখ্যা দিল্লির মোট আক্রান্তের দুই-তৃতীয়াংশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দিল্লিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮৬ জন। শহরটিতে করোনায় মৃত ছয় জনের সঙ্গেও মারকাজের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ