অবশেষে সামনে এলো ট্রাম্পের মাস্ক পরার ছবি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:৫২, মে ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:৪২, মে ২৩, ২০২০

করোনাভাইরাসের শুরু থেকেই মাস্ক ব্যবহারে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে শুক্রবার স্কাই নিউজের প্রকাশিত এক ভিডিওতে তাকে নেভি ব্লু রংয়ের মাস্ক পরিহিত অবস্থায় দেখা যায়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, প্রথমে মাস্ক ব্যবহারে অস্বীকৃতি জানালেও পরে তিনি তা পরেছেন। 

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমাতে সব নাগরিককে মাস্ক পরার নির্দেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিভাগ। হোয়াইট হাউসের সব কর্মীকেও মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তবে নিজে মাস্ক পরতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছেন তিনি। বৃহস্পতিবার মিশিগানে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফোর্ডের একটি কারখানা পরিদর্শনের সময় তাকে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় দেখা গেছে। ওই কারখানায় করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ভেন্টিলেটর ও অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী তৈরি হচ্ছে।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, কারখানাটি পরিদর্শনের সময় মাস্ক পরতে ট্রাম্প অস্বীকৃতি জানিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠার পর তাকে ‘বেপরোয়া শিশু’ আখ্যা দেন মিশিগানের অ্যাটর্নি জেনারেল। এর আগে কারখানা পরিদর্শনের সময় মাস্ক পরিহিত ফোর্ড কর্মকর্তাদের পাশে নিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, কিছুক্ষণ আগে মাস্ক পরলেও তা খুলে ফেলেছেন। তিনি বলেন, ‘আগে পরেছিলাম। পেছনের দিকে থাকার সময় পরেছিলাম। সংবাদমাধ্যমকে তা দেখিয়ে বিনোদনের সুযোগ করে দিতে চাইনি।’সমালোচনার পর ট্রাম্পের মাস্ক পরার ছবি প্রকাশ করেছে এনবিসি নিউজ

ট্রাম্পের পরিদর্শন শুরুর আগে ফোর্ড কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয় পরিদর্শনের সময় প্রেসিডেন্টের মাস্ক ব্যবহার করা উচিত। তবে পরিদর্শন শেষে ফোর্ডের নির্বাহী চেয়ারম্যান বিল ফোর্ড বলেন, ‘এটা তার সিদ্ধান্ত।’ এরপরই হোয়াইট হাউসকে চিঠি লেখেন মিশিগান অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল ডানা নেসেল। সেখানে তিনি জানান, মিশিগানের আইন অনুযায়ী ইনডোর ভেন্যুতে বহু মানুষের উপস্থিতিতে কোনও আয়োজনে অংশ নিতে হলে সবারই মাস্ক পরতে হবে। ফোর্ড কারখানা পরিদর্শনের সময় ট্রাম্পের আচরণ ‘চরম হতাশাজনক’ আখ্যা দিয়ে ডানা নেসেল বলেন, ‘নিয়ম মানতে অস্বীকৃতি জানিয়ে প্রেসিডেন্ট বেপরোয়া শিশুর মতো আচরণ করেছেন। এটা তামাশা নয়।’ মিশিগানের হাজার হাজার মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছে।

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ