সরকার কোনও পরিস্থিতিতেই ভারতের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হতে দেবে না: রাজনাথ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:০৭, মে ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৪০, মে ৩১, ২০২০

ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং হুঁশিয়ার করে বলেছেন, সরকার যেকোনও পরিস্থিতিতেই ভারতের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হতে দেবে না। ভারত-চীন সীমান্তে উত্তেজনা চলার মধ্যেই শনিবার (৩০ মে) এ হুঁশিয়ারি দেন তিনি। রাজনাথ জানান, সমস্যার সমাধান সূত্র খুঁজে বের করার জন্য সামরিক ও কূটনৈতিক এ দুই পর্যায়েই ভারত-চীন দ্বিপাক্ষিক আলোচনা চলছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

রাজনাথ

সম্প্রতি লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখাকে কেন্দ্র করে ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। চীন সেখানে ভারতীয় এলাকায় ঢুকে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ভারতের পানিসীমা ও আকাশসীমা লঙ্ঘনেরও অভিযোগ উঠছে বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে। লাদাখ ও উত্তর সিকিমে দুই দেশই সেনা ও সমরাস্ত্রের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বাড়িয়েছে। লাদাখের কাছে বিমানঘাঁটিও তৈরি করেছে চীন। এরমধ্যেই গত ২৭ মে ভারত ও চীনের মধ্যে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরোক্ষভাবে সে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের খবর প্রকাশ করে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

শনিবার (৩০ মে) এ ব্যাপারে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘আজ তাক’ থেকে প্রশ্ন করা হলে রাজনাথ বলেন, ‘কাল মার্কিন প্রতিরক্ষাসচিব মার্ক এস্পারকে জানিয়েছি, দ্বিপাক্ষিক স্তরে সমস্যা মেটানোর উপযুক্ত ব্যবস্থা আছে।’

টেলিফোনে এস্পারের সঙ্গে কথা হয় রাজনাথের। সূত্রের বরাত দিয়ে আরেক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে,  রাজনাথ এস্পারকে বলেছেন, পূর্ব লাদাখে চীনের আগ্রাসনের দিকে কড়া নজরদারি বহাল রাখবে ভারত। পাশাপাশি এ কথাও তিনি মার্কিন প্রতিনিধিকে জানান যে দ্বিপাক্ষিক স্তরেই বিষয়টির মোকাবিলা করতে প্রস্তুত দিল্লি। সরকারের তরফে দেওয়া বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, দু’দেশের মধ্যে ঢালাও প্রতিরক্ষা সহযোগিতা নিয়ে কথা বলার ছাড়াও ভবিষ্যতে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে অংশীদারত্ব বাড়ানো নিয়েও আলোচনা হয়েছে। আলোচনার পরে শনিবার রাজনাথ সিং জানিয়ে দিলেন, উত্তেজনা কমাতে চীনের সঙ্গে সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চলছে। তবে দেশের মর্যাদার সঙ্গে আপস করা হবে না। 

/এফইউ/

লাইভ

টপ