রুশ ও চীনা ভ্যাকসিন ব্যবহারের সম্ভাবনা কম: যুক্তরাষ্ট্র

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:২২, আগস্ট ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:১২, আগস্ট ০২, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ চীন ও রাশিয়ার উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। শুক্রবার প্রতিনিধি পরিষদের একটি উপ-কমিটির শুনানিতে এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন দেশটির সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি’র এক প্রতিবেদনে এই বিষয় উঠে এসেছে।





বেশ কয়েকটি চীনা কোম্পানি কোভিড-১৯-এর প্রতিষেধক উদ্ভাবনের সামনের সারিতে রয়েছে। রাশিয়া সেপ্টেম্বরে নিজেদের ভ্যাকসিন প্রয়োগের সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা নির্দিষ্ট করেছে। কিন্তু ফাউচি বলছেন, দুটি দেশে উদ্ভাবিত ভ্যাকসিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবহারের সম্ভাবনা কম। কারণ, এসব দেশের নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা পশ্চিমের তুলনায় অস্বচ্ছ।
করোনা মহামারিতে ট্রাম্প প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে পর্যালোচনা করছে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভস সাব-কমিটি। শুক্রবার (৩১ জুলাই) তারা মার্কিন কংগ্রেসে একটি শুনানির আয়োজন করে। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি হতে যাওয়া করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে কথা বলেন ফাউচি। তিনি বলেন, আমি সত্যি আশা করি যে চীন ও রাশিয়া কারও দেহে ভ্যাকসিন প্রয়োগের আগে প্রকৃত পরীক্ষা চালাবে। পরীক্ষার আগেই ভ্যাকসিন প্রস্তুত বলে দাবি করাটা আমার কাছে সমস্যাজনক বলে মনে হয়।
যুক্তরাষ্ট্র করোনার ভ্যাকসিনের জন্য ‘অপারেশন ওয়ার্প স্পিড’ গ্রহণ করেছে। এর আওতায় সানোফি, জিএসকে কোম্পানিকে ২১০ কোটি ডলার প্রদান করবে ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের জন্য। মডার্নার তৈরি ভ্যাকসিনটিকে সবচেয়ে সম্ভাবনাময় বলে মনে করা হচ্ছে। এরইমধ্যে এ ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হয়েছে। এ ধাপে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর দেহে এ ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে পরীক্ষা করা হবে।
শুনানিতে ফাউচি জানান, ২০২০ সালের শেষ নাগাদ মানুষের হাতে ভ্যাকসিন পৌঁছাবে কিনা তা নিয়ে তিনি ‘সতর্ক আশাবাদী’। তবে তার আশা, ভ্যাকসিনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে অন্য দেশের ওপর নির্ভর করতে হবে না।
করোনা মহামারিতে ট্রাম্প প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে পর্যালোচনা করছে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভস সাব-কমিটি। শুক্রবার (৩১ জুলাই) তারা মার্কিন কংগ্রেসে একটি শুনানির আয়োজন করে। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি হতে যাওয়া করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে কথা বলেন ফাউচি। তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি শরতের শেষে কিংবা শীতের শুরুতে আমরা একটি নিরাপদ ও কার্যকর’ ভ্যাকসিন হাতে পাবো। ট্রায়াল দেওয়া ছাড়া কারও পক্ষেই নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয় যে এটি নিরাপদ কিংবা কার্যকর। তবে আমরা সতর্ক আশাবাদী যে এ ভ্যাকসিন সফল হবে।’

/এএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ