বিদেশে করোনায় আক্রান্ত নাগরিকদের দেশে ফিরতে না দেওয়ার পরিকল্পনা ট্রাম্পের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৮:৪৯, আগস্ট ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১০, আগস্ট ১১, ২০২০

বিদেশে করোনায় আক্রান্ত মার্কিন নাগরিকদের দেশে ফিরতে না দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সংক্রান্ত একটি খসড়া প্রস্তাব বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে। এতে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের এমন কোনও নাগরিক এবং দেশটিতে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুপতি পাওয়া কোনও ব্যক্তিকে দেশে ফিরতে না দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। অর্থাৎ করোনা সন্দেহভাজন হলেই এ ব্যবস্থা কার্যকর হবে। ট্রাম্প প্রশাসনের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি।
ট্রাম্প প্রশাসনের ওই কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেন, একটি খসড়া প্রস্তাব রয়েছে। এতে কাউকে করোনা আক্রান্ত মনে করার যৌক্তিক কারণ থাকলে তাকে দেশে প্রবেশ করতে না দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে এটি এখনও চূড়ান্ত নয়। প্রস্তাবটিতে আরও পরিবর্তন বা সংশোধন আসতে পারে।

ট্রাম্প প্রশাসনের এমন পরিকল্পনার ব্যাপারে রয়টার্সের পক্ষ থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ দফতরের পক্ষ থেকে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণের আগেই যুক্তরাষ্ট্র করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন পেয়ে যেতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ট্রাম্প। মার্কিন উপস্থাপক জেরাল্ডো রিভেরার এক রেডিও অনুষ্ঠানে তিনি এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তবে তার নিজের প্রশাসন হোয়াইট হাউসের বিশেষজ্ঞরাও এতো দ্রুত ভ্যাকসিন পাওয়ার কথা কখনোই বলেননি।

করোনাভাইরাসের মহামারিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়া অর্থনীতির মধ্যেই দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে চাইছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেশটিতে করোনায় মৃতের গড় এক হাজারের বেশি হয়ে চললেও ট্রাম্প সবকিছু স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। চাপ দিচ্ছেন স্কুল খুলে দিতে। এর মধ্যেই সন্দেহভাজন করোনা আক্রান্ত নাগরিকদের দেশে ফিরতে না দেওয়ার পরিকল্পনার খবর এলো।

/এমপি/

লাইভ

টপ