বিরল পদত্যাগে বাধ্য হলেন ভ্যাটিকান কর্মকর্তা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:১৬, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:১৬, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০

ক্যাথলিক খ্রিষ্ট ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের কার্যালয়ের এক ঘোষণায় জানানো হয়েছে, ভ্যাটিকানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা কার্ডিনাল জিওভান্নি অ্যাঞ্জেলো বেকিউ অপ্রত্যাশিতভাবে পদত্যাগ করেছেন। এর আগে তিনি ভ্যাটিকান সচিবালয়ের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছেন। চার্চের তহবিল বিনিয়োগ করে লন্ডনে একটি বিলাসবহুল ভবন কেনার একটি বিতর্কিত চুক্তির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন কার্ডিলান বেকিউ। ওই চুক্তিটি নিয়ে বর্তমানে আর্থিক তদন্ত চলছে। কোনও অন্যায় করার কথা অস্বীকার করে আসছেন তিনি। তবে ভ্যাটিকানে এই ধরণের পদত্যাগের ঘটনা খুবই বিরল। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।পোপ ফ্রান্সিসের ঘনিষ্ঠ সহযোগি হয়ে উঠেছিলেন কার্ডিনাল জিওভান্নি অ্যাঞ্জেলো বেকিউ

৭২ বছর বয়সী কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউ কূটনীতিক হিসেবে ভ্যাটিকানের নানা দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ভ্যাটিকান সচিবালয়ের প্রভাবশালী পদ জেনারেল অ্যাফেয়ার্স প্রতিনিধি হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন। ওই সময়ে তিনি প্রতিদিনই পোপের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেন আর তার বিশ্বস্ত সহযোগীদের অন্যতম হয়ে ওঠেন। ২০১৮ সালে কার্ডিনাল বানান পোপ ফ্রান্সিস। তখন তিনি ভ্যাটিকানের সেইন্ট এবং আর্শীবাদ সংক্রান্ত বিষয় তদারককারী বিভাগের নতুন দায়িত্ব পান।

ইতালির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী বৃহস্পতিবার কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউকে পোপ ফ্রান্সিস জানিয়ে দেন পদত্যাগ করা ছাড়া তার সামনে আর কোনও উপায়। তার কিছুক্ষণ পরই ওই পদত্যাগের ঘোষণা প্রকাশ করা হয়। ভ্যাটিকানের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, পবিত্র পিতা (পোপ ফ্রান্সিস) তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন। তবে এই বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু ওই বিবৃতিতে জানানো হয়নি।

ইতালীয় সংবাদমাধ্যসে শুক্রবার সকালে কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউ’র যে উদ্ধৃতি প্রকাশ হয়েছে তাতে তিনি বলেছেন, ‘এটি আমার জন্য, আমার পরিবারের জন্য এবং আমার দেশের জনগণের জন্য একটি আঘাত। আমি দুঃখভারাক্রান্ত মনে বাধ্যতার মনোভাব আর চার্চ এবং পোপের প্রতি ভালোবাসা থেকে এটি গ্রহণ করেছি।’

ভ্যাটিকানের জেনারেল অ্যাফেয়ার্স প্রতিনিধি হিসেবে নিযুক্ত থাকার সময়ে কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউ লন্ডনের একটি অভিজাত এলাকায় বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট কেনার চুক্তির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ২০ কোটি ডলার মূল্যের ওই অ্যাপার্টমেন্ট কেনার ঘটনায় গত বছর ভ্যাটিকান সচিবালয়ে এক অভিযানের পর পাঁচ কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়। ভ্যাটিকানের কর্মকর্তারা সেখান থেকে নথিপত্র ও কম্পিউটার জব্দ করেন।

পরে ওই বছরের জুন মাসে চাঁদাবাজি এবং অর্থ আত্মসাতে সন্দেহভাজন হিসেবে ইতালির ব্যবসায়ী জিয়ানলুইগি তোরজিকে গ্রেফতার করে ভ্যাটিকান পুলিশ। তবে ওই অ্যাপার্টমেন্ট কেনার ঘটনায় এ বছর সমর্থন জানান কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউ। ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি বলেন, ‘একটি ভবনে বিনিয়োগ করা হয়েছে। সুবিধামতো ভালো সুযোগ পেয়ে এটা করা হয়েছিল, কিন্তু আজ অনেকেই তা নিয়ে আমাদের হিংসা করছে।’ দরিদ্রদের জন্য সংগ্রহ করা অর্থ দিয়ে ওই অ্যাপার্টমেন্ট কেনার কথা অস্বীকার করেন তিনি। দাবি করেন ভ্যাটিকানের পাওয়া সরাসরি অনুদান (পিটার’স পেন্স) ব্যবহার করে ওই চুক্তি করা হয়েছে।

তবে কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেকিউ’র আকস্মিক বিদায়ের সঙ্গে শুধু লন্ডনের চুক্তির সম্পর্ক রয়েছে বিষয়টি এমন নাও হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতালিয়ান খবরগুলোতে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে, পিটার পেন্স তহবিলের অন্য বিনিয়োগ নিয়েও তার প্রতি অসন্তুষ্ট ছিলেন পোপ। গত বছর ইতালিয়ান সাপ্তাহিক এল’এসপ্রেসো জানায় ভ্যাটিকানের দুর্নীতিবিরোধী কর্তৃপক্ষ আরও প্রায় ৭২ কোটি ৫০ লাখ ডলার বিনিয়োগ নিয়ে সন্দেহ পোষণ করছে।

উল্লেখ্য, ভ্যাটিকানের কর্মকর্তার পদ থেকে সরে গেলেও অ্যাঞ্জেলো বেকিউ তার কার্ডিনাল পদবী ধরে রাখতে পারবেন। যদিও আগামী পোপ নির্বাচনে ভোট দানের সুযোগ পাবেন না তিনি। এর আগে সর্বশেষ যে কার্ডিনাল পোপ নির্বাচনে ভোট দানের সুযোগ হারিয়েছিলেন তিনি হলেন স্কটিশ কার্ডিনাল কেইথ ও’ব্রায়েন। যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় ২০১৩ সালে পদত্যাগ করেন তিনি। এর পাঁচ বছরের মাথায় তার মৃত্যু হয়।

/জেজে/

লাইভ

টপ