রায়ের পর ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দিলেন এলকে আদভানি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:১৬, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৬, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০

১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ থেকে খালাস পেয়ে বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা এলকে আদভানি বলেছেন, আদালতের এই রায় তার ও বিজেপির মতাদর্শ এবং রাম মন্দির আন্দোলনের প্রতি তাদের প্রতিশ্রুতির বিজয়। বুধবার আদালতের রায় ঘোষণার পর জয় শ্রী রাম স্লোগান দিয়ে তিনি ওই মুহূর্তকে সবার জন্যই আনন্দের বলে আখ্যা দেন। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।বিজেপি নেতা এলকে আদভানি

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর উন্মত্ত হিন্দুত্ববাদীরা অযোধ্যার শতাব্দীপ্রাচীন বাবরি মসজিদ ধ্বংস করে। মসজিদ ধ্বংসের পর অযোধ্যায় ২টি মামলা দায়ের করা হয়। একটি মামলা ছিল মসজিদ ধ্বংসের চক্রান্তের। আরেকটি মামলা করা হয় মসজিদ ধ্বংসে জনতাকে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে। দুটি মামলার বিচার প্রক্রিয়া আলাদা ভাবে চলছে। মসজিদ ধ্বংসের চক্রান্তের মামলায় বুধবার রায় দিয়েছে লক্ষ্ণৌর আদালত। ওই মামলায় মোট ৪৯ জন অভিযুক্তের মধ্যে ১৭ জন আগেই মারা গেছেন। এলকে আদভানিসহ বাকি অভিযুক্তদের সবাইকেই এদিন খালাস দেওয়া হয়।

রায়ের পর এক বিবৃতিতে ৯২ বছর বয়সী বিজেপি নেতা এলকে আদভানি বলেন, ‘এই রায় আমার ও বিজেপি’র বিশ্বাস এবং রাম জন্মভূমি আন্দোলনের প্রতি প্রতিশ্রুতির প্রমাণ দেয়। আমি নিজেকে আরও ধন্য মনে করছি কারণ এই রায়টি ২০১৯ সালে নভেম্বরে সুপ্রিম কোর্টের যুগান্তকারী আরেকটি রায়ের পদাঙ্ক অনুসরণ করে এসেছে যাতে অযোধ্যায় একটি মহান রাম মন্দির দেখার দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন পূরণ হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে, ওই মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর গত ১৫ আগস্ট স্থাপন করা হয়েছে।’  

এল কে আদভানি আরও বলেন, তিনি এই তাৎপর্যপূর্ণ রায়কে সর্বান্তকরণে স্বাগত জানাচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, ‘দেশের আরও লাখো মানুষের মতো আমিও অযোধ্যায় সুন্দর রাম মন্দির নির্মাণ শেষ হওয়া দেখার অপেক্ষায় আছি।’

আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, সমাজবিরোধীরা অবকাঠামোটি ধ্বংস করে। অভিযুক্তরা ধ্বংস থামানোর চেষ্টা করেছিলো।

তবে ২০০০ সালে এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাবরি মসজিদ ধ্বংস করাকে ভয়াবহ ভুল আখ্যা দিয়েছিলেন এলকে আদভানি। ওই সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আজও পর্যন্ত আমি জানি না, এটা সংঘবদ্ধ মানুষের ক্ষোভ ছিলো, নাকি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়া একদল মানুষ ছিলো নাকি আন্দোলনের নেতাদের সঙ্গে একমত না হওয়া একটি ছোট গ্রুপের পূর্বনির্ধারিত কাজ ছিলো, তা নিয়ে এখনও আমি কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারিনি।’

/জেজে/

লাইভ

টপ