‘ফেব্রুয়ারিতে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াবে ৬৫ কোটি’

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:০৬, অক্টোবর ১৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৭, অক্টোবর ১৯, ২০২০

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে করোনাভাইরাসে অর্ধেক ভারতীয় আক্রান্ত হতে পারেন। সোমবার দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের এক বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্য বলেছেন, ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১৩০ কোটি জনসংখ্যার অর্ধেক  করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন এবং সংক্রমণ মন্থর হওয়া শুরু হবে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস এখবর জানিয়েছে।

কানপুরের ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট ফর টেকনোলজির অধ্যাপক মানিন্দ্র আগারওয়াল বলেন, আমাদের গাণিতিক মডেল অনুসারে এখন পর্যন্ত মোট জনগোষ্ঠীর ৩০ শতাংশ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফেব্রুয়ারিতে তা ৫০ শতাংশে পৌঁছাতে পারে।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫ লাখ ছাড়িয়েছে। বিশ্বে মোট আক্রান্তের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের পরই দেশটির অবস্থান। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি রবিবার জানিয়েছে, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে দেশটি সংক্রমণের চূড়া অতিক্রম করেছে। তবে এখনও গড়ে প্রতিদিন ৬০ হাজারের বেশি আক্রান্ত শনাক্ত হচ্ছে।

ভারত সরকারের সেরোলজিক্যাল জরিপের তথ্যের সঙ্গে এই বিশেষজ্ঞ কমিটির তৈরি মডেলে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি বলে উল্লেখ করা হয়েছে। সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সরকারি জরিপে মাত্র ১৪ শতাংশ জনগণ আক্রান্ত বলে প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়েছে।

এই বিষয়ে আগারওয়াল বলছেন, সেরোলজিক্যাল জরিপে হয়ত সঠিকভাবে নির্দিষ্ট নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। কারণ তারা যে জনগোষ্ঠীর নমুনা সংগ্রহ করছিলেন সেটির অবিমিশ্র আকারের কারণে। তবে ভাইরোলজিস্ট, বিজ্ঞানী ও অন্যান্য বিশেষজ্ঞদের কমিটির তৈরি প্রতিবেদনে আমলে নিচ্ছেন তিনি।

আগারওয়াল বলেন, আমরা নতুন মডেল তৈরি করেছি যাতে শনাক্ত না হওয়া আক্রান্তদের হিসাবে আনা যায়। ফলে আমরা আক্রান্তদের দুটি শ্রেণিতে ফেলতে পেরেছি, শনাক্ত হওয়া এবং যারা শনাক্ত হননি।

রবিবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বিশেষজ্ঞ কমিটি সতর্ক করে বলেছে, যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা না হয় তাহলে তাদের পূর্বাভাস অনুযায়ী এক মাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৬ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

 

/এএ/

লাইভ

টপ