ভ্যাকসিন ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে মহামারি নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়: ট্রাম্পের সহযোগী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:০০, অক্টোবর ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০৪, অক্টোবর ২৬, ২০২০

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ সহযোগী ও হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ মার্ক মিডোস স্বীকার করেছেন, ভ্যাকসিন বা থেরাপি ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব নয়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মিডোস দাবি করেছেন, একমাত্র ভ্যাকসিন ও থেরাপির মাধ্যমেই করোনাকে পরাজিত করা সম্ভব। যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ৯ দিন আগেও যখন করোনার প্রকোপ বেড়ে চলেছে, তখনই এমন স্বীকারোক্তি দিলেন ট্রাম্পের এ সহযোগী। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

মার্ক মিডোস

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এরইমধ্যে প্রায় ২ লাখ ২৫ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে করোনার প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে। শনিবার দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ ৮৪ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। সরকারের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পক্ষ থেকে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হলেও, খোদ ট্রাম্প প্রশাসনের কর্মকর্তাদেরকেই তা উপেক্ষা করতে দেখা যাচ্ছে। আসন্ন নির্বাচনের জন্য প্রচার-প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে তাদের।

এমন অবস্থায় রবিবার (২৫ অক্টোবর) সিএনএন-এর স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার দেন মিডোস। মিডোসের কাছে সঞ্চালক জেক টেপার জানতে চান, যুক্তরাষ্ট্র কেন মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছে না। জবাবে তিনি বলেন, ‘কারণ এটি জ্বরের মতোই একটি সংক্রামক ভাইরাস।’ চিফ অব স্টাফ আরও দাবি করেন, ট্রাম্প প্রশাসন একে নিয়ন্ত্রণে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারব না। আমাদেরকে এ সত্যটুকু নিয়ন্ত্রণ করতে হবে যে আমরা ভ্যাকসিন, থেরাপি কিংবা অন্য কোনও প্রতিষেধক পাব।’

চিফ অব স্টাফ আরও বলেন, ‘আমাদেরকে যথাযথ প্রতিষেধক নিশ্চিত করতে হবে। সেটা থেরাপি হতে পারে, ভ্যাকসিন হতে পারে কিংবা চিকিৎসা হতে পারে। নিশ্চিত করতে হবে যে এ ভাইরাসের কারণে মানুষ যেন না মারা যায়।’ 

/এফইউ/

লাইভ

টপ