শ্রীলঙ্কা সফরে চীনকে ‘শিকারী’ বললেন পম্পেও

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:১৩, অক্টোবর ২৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৯, অক্টোবর ২৮, ২০২০

চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টিকে ‘শিকারী’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। বুধবার ১২ ঘণ্টার শ্রীলঙ্কা সফরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।মাইক পম্পেও

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এমন একটি দেশে গিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন মন্তব্য করলেন যেখানে চীনের বিশাল অংকের বিনিয়োগ রয়েছে। দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কও বেশ ভালো।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপক্ষে-র সঙ্গে আলাপকালে বিশেষ করে নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়ে কথা বলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ওই বৈঠকেও তিনি চীনকে একহাত নেন বলে জানা গেছে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পম্পেও বলেন, একটি শক্তিশালী সার্বভৌম শ্রীলঙ্কা বিশ্বমঞ্চে যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগত অংশীদার।

তিনি বলেন, আমরা চাই শ্রীলঙ্কার জনগণের সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীনতা অক্ষুণ্ন থাকবে। আমরা তাদের সফল হিসেবে দেখতে চাই। তাদের জন্য টেকসই উন্নয়ন চাই।

পম্পেও বলেন, ওয়াশিংটন শ্রীলঙ্কাকে সামরিক প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। সম্প্রতি দেশটির কোস্টগার্ডের জন্য দুইটি জাহাজ উপহার দেওয়া হয়েছে।

এদিকে পম্পেও-র মন্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে টুইটারে ‘এলিয়েন বনাম শিকারি’‌র একটি ভিডিও পোস্ট করেছে শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত চীনা দূতাবাস।

চীনা দূতাবাসের টুইটে বলা হয়েছে, ‘দুঃখিত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও! আমরা চীন-শ্রীলঙ্কা বন্ধুত্ব ও সহযোগিতা নিয়ে ব্যস্ত। আপনার ‘এলিয়েন বনাম শিকারি’‌ খেলার আমন্ত্রণে আমাদের কোনও আগ্রহ নেই।

পম্পেও-র এই সফরের আগেই কলম্বোতে নিযুক্ত চীনা দূতাবাসের এক বিবৃতিতে এ সফর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, শ্রীলঙ্কার সঙ্গে চীনের সম্পর্ক দুই হাজার বছরের পুরনো। ফলে দুই দেশের মধ্যে কোনও শর্ত নির্ধারণের জন্য তৃতীয় পক্ষ নিষ্প্রয়োজন। চীনের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে শ্রীলঙ্কাকে হুমকি দেওয়ার সুযোগ নেওয়ার মার্কিন প্রচেষ্টা বেইজিং দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করছে। সূত্র: রয়টার্স।

/এমপি/

লাইভ

টপ