বাংলাদেশিদের জন্য সিঙ্গাপুর ট্যুরিজম বোর্ডের নতুন উদ্যোগ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:০০, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:১২, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯

সিঙ্গাপুরে একটি চিড়িয়াখানায় গণ্ডার ও দুই পর্যটকপর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের জন্য নতুন উদ্যোগ নিয়েছে সিঙ্গাপুর ট্যুরিজম বোর্ড (এসটিবি)। এর শিরোনাম ‘ইন সিঙ্গাপুর ইনসেন্টিভস অ্যান্ড রিওয়ার্ডস (ইন্সপায়ার)’। বৈশ্বিক সম্মেলন, ইনসেন্টিভস, কনভেনশন ও প্রদর্শনী (এমআইসিই) ক্ষেত্র থেকে দেশটিতে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক পর্যটক সমাগম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায় এসটিবি।
সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় ট্যুরিজম বোর্ড এমআইসিই আওতাভুক্ত পর্যটকদের জন্য দলবদ্ধভাবে ভ্রমণের ৬৩ ধরনের অভিজ্ঞতা নির্বাচন করেছে। এসব অভিজ্ঞতার মধ্যে খাবার থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও দর্শনীয় স্থানে দলগঠনের চর্চায় উদ্বুদ্ধ করা হবে। দলবদ্ধভাবে ভ্রমণকে উৎসাহ প্রদান এবং পর্যটকরা যেন সিঙ্গাপুর ভ্রমণের অনন্য অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন সেজন্য এসব সুবিধাকে ‘ইন্সপায়ার’ প্রোগ্রামে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এগুলোকে ভাগ করা হয়েছে চারটি বিভাগে। যেমন সিঙ্গাপুরের খাবার, বিনোদন ও রাতের জীবন, থিম্যাটিক ট্যুর ও শেখার অভিজ্ঞতা, আকর্ষণভিত্তিক ও স্বতন্ত্র দল তৈরির কার্যক্রম।
উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্য ও সিঙ্গাপুরের প্রাণকেন্দ্র বোটানিক গার্ডেনে পর্যটকদের পছন্দ অনুযায়ী গুল্ম ও স্পাইস দিয়ে তৈরি খাবার পাওয়া যায়। কোনও পর্যটক দল যদি সিঙ্গাপুরের সিলিকন ভ্যালি সফরে আগ্রহী হন, তাহলে তারা ওয়ান নর্থ এলাকায় ভ্রমণ করতে পারেন। যেসব পর্যটক সিঙ্গাপুরের বিখ্যাত সবুজ ভূমির সৌন্দর্য দেখতে চান তারা সমুদ্রের পাশের গার্ডেনগুলোতে র‍্যাপসোডি শো উপভোগ করতে পারেন। ওসিবিসি স্কাইওয়ে থেকে সাগরের পাশের এসব জায়গায় রাতের মনোরম রূপ দেখা যায়।

এ বছরের ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সিঙ্গাপুরে ভ্রমণ করলে ইন্সপায়ার প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে পারবেন এমআইসিই ক্ষেত্রের পর্যটকরা। দলটিতে সর্বনিম্ন ২০ জন বিদেশির অংশগ্রহণ থাকতে হবে এবং তাদের সিঙ্গাপুরে কমপক্ষে তিন দিন অবস্থান করতে হবে। আগ্রহীদের অবশ্যই ২০২১-এর ৩১ মার্চের মধ্যে https://www.visitsingapore.com/mice/en/ ওয়েবসাইটে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে। 

সিঙ্গাপুরে পাখির খেলা উপভোগ করছেন পর্যটকরাবিশ্বব্যাপী ইন্সপায়ার প্রোগ্রামটি চালুর মাধ্যমে সিঙ্গাপুরে বিটিএমআইসিই ভ্রমণকারীদের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশাবাদী দেশটির ট্যুরিজম বোর্ড। ২০১৮ সালে ২৯ লাখেরও বেশি বিটিএমআইসিই পর্যটক সিঙ্গাপুরে ভ্রমণ করতে এসেছিলেন, যা ২০১৭ সালের পর্যটক সংখ্যা থেকে ১২ দশমিক ১ শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে বিদেশি পর্যটক সমাগম আগের বছরের তুলনায় ৭ দশমিক ২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪৬৮ কোটি সিঙ্গাপুর ডলার রাজস্ব এসেছে।
সিঙ্গাপুর ট্যুরিজম বোর্ডের ডেপুটি চিফ এক্সিকিউটিভ মেলিসা অও বলেন, ‘২০১৮ সালে বিটিএমআইসিই ক্ষেত্রে সফলতা অর্জনের পর বৈশ্বিকভাবে ইন্সপায়ার প্রোগ্রামটি চালু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। এর আগে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও নির্দিষ্ট কিছু অঞ্চলে করপোরেট গ্রুপে এই সুবিধা দেওয়া হয়। এবারের ইন্সপায়ার-এর বৈশ্বিক সংস্করণে আমেরিকা, উত্তর এশিয়া, ওশেনিয়াসহ আরও কিছু দেশের বাজারকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’

 

/সিএ/জেএইচ/
টপ