হায়দরাবাদে করোনাভাইরাস আকৃতির গাড়ি

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:২০, এপ্রিল ১২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:২০, এপ্রিল ১২, ২০২০

করোনাভাইরাস আকৃতির গাড়িকরোনাভাইরাসকে একবিংশ শতাব্দীর বৃহত্তম ঘটনাগুলোর অন্যতম বললে ভুল হবে না। কোভিড-১৯ নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সবাই চেষ্টা করছেন। তাদেরই একজন সুধাকর যাদব। ভারতের হায়দরাবাদের এই বাসিন্দা গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডধারী। করোনা মহামারি সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে একটি গাড়ি ডিজাইন করেছেন তিনি। অণুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে করোনাভাইরাস দেখলে যেমন লাগে এর আকৃতি তেমনই।

১০০ সিসি ইঞ্জিন বিশিষ্ট চার চাকার বৃত্তাকার সবুজ রঙা গাড়িটিতে কেবল একটি আসন রয়েছে। এতে চড়ে ৪০ কিলোমিটার পথ স্বাচ্ছন্দ্যে পাড়ি দেওয়া যাবে।

হায়দরাবাদের সুধা কার মিউজিয়ামের স্বত্বাধিকারী সুধাকর। তার ইচ্ছে, কোভিড-১৯ রোগের ভয়াবহতা সম্পর্কে মানুষকে অবগত করা। তিনি বলেন, ‘মডেলটি তৈরি করতে ১০ দিন লেগেছে। আশা করি, আমরা সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে পারবো এবং ঘরে থাকার জন্য মানুষকে বোঝাতে সক্ষম হবো।’

বিশ্বের বৃহত্তম ট্রাইসাইকেল (তিন চাকা বিশিষ্ট) বানিয়ে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়েন সুধাকর যাদব। এর দৈর্ঘ্য ৩৭ ফুট। একই কারণে লিমকা বুক অব রেকর্ডসে আছে তার নাম। বিখ্যাত টিভি অনুষ্ঠান “রিপ্লি’স বিলিভ ইট অর নট”-এ দেখা গেছে তাকে।

করোনাভাইরাস আকৃতির গাড়িএর আগে বিভিন্ন উপলক্ষে অদ্ভুত ডিজাইনের গাড়ি তৈরি করেছেন সুধাকর। এর মধ্যে এইডস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য তিনি বানিয়েছেন কনডম মোটরসাইকেল, মাথার সুরক্ষার জন্য হেলমেট কার এবং ধূমপানের আসক্তি ছাড়ার জন্য সিগারেট মোটরসাইকেল। তালিকায় এবার যুক্ত হলো করোনা আকৃতির গাড়ি।

এদিকে হায়দরাবাদ পুলিশ করোনাভাইরাস আকৃতির হেলমেট ডিজাইন করেছে। গত সপ্তাহে এক শোভাযাত্রায় মোটরসাইকেল ও ঘোড়ায় এটি ব্যবহার করেন শহরটির পুলিশ সদস্যরা। অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন হায়দরাবাদ পুলিশ কমিশনার আনজানি কুমার।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

/জেএইচ/
টপ