মাগুরার ঐতিহ্যবাহী যত মিষ্টান্ন

Send
মাজহারুল হক লিপু, মাগুরা
প্রকাশিত : ১৫:০০, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৪২, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯

মাগুরার দই ও মিষ্টির সুনাম রয়েছে দেশজুড়েই। বিশেষ করে মাগুরার খামার পড়ার দই আর  প্যারা সন্দেশ কিনতে বিভিন্ন স্থান থেকে অনেকেই আসেন মাগুরায়।

খামার পাড়ার চিত্ত ঘোষের দই
মাগুরার খামার পাড়ার চিত্ত ঘোষের দই-ই মূলত খামার পাড়ার দই হিসেবে পরিচিত। মাগুরার বিভিন্ন বিয়েবাড়িসহ অধিকাংশ খাবারের আয়োজনে দারুণ জনপ্রিয় খামার পাড়ার দই। মাগুরা নতুনবাজারে চিত্ত ঘোষের ভাইয়েরা চালিয়ে যাচ্ছে খামার পাড়া দধিভাণ্ডার নামের দোকানটি।
চিত্ত ঘোষের ভাই মুকুন্দ ঘোষ বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে মাগুরার সব ধরনের অনুষ্ঠানে খামার পাড়ার দই খাদ্য তালিকায় ভীষণ জনপ্রিয়। প্রতিদিনই আমাদের দইয়ের অর্ডার থাকে। বিয়ের মৌসুমে রীতিমতো হিমসিম খেতে হয়।’

ক্ষীর সন্দেশ
মাগুরা শহরের আরও একটি ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান চলন্তিকা হোটেল বিখ্যাত তাদের প্যাড়া সন্দেশের জন্য। চলন্তিকার প্যাড়া সন্দেশ শুধু মাগুরায় নয়, দেশের বাইরেও নিয়ে যায় মাগুরাবাসী।
মাগুরা চলন্তিকার স্বত্বাধিকারী বিশ্বজিত ঘোষ বলেন, ‘আমাদের প্যাড়া সন্দেশের কথা সবাই জানে। বিভিন্ন জেলায় শুধু নয়, অনেকেই দেশের বাইরেও নিয়ে যান এই সন্দেশ।’
মাগুরার আরও একটি দোকানের দই ও মিষ্টি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। শহরের জামে মসজিদ রোডে অবস্থিত সুগন্ধা মিষ্টান্ন ভাণ্ডার খুবই জনপ্রিয় এখন মাগুরাবাসীর কাছে। মাগুরার ঐতিহ্যবাহী দই এবং প্যারা সন্দেশ কিনতে এ দোকানেও ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারা। সাথে এখানকার ক্ষীরের সন্দেশও বেশ জনপ্রিয়।

প্যাড়া সন্দেশ
সুগন্ধা মিষ্টান্ন ভান্ডারের মালিক খোকন ঘোষ বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি মাগুরার ঐতিহ্যবাহী মিষ্টিগুলো অভিজ্ঞ কারিগর দিয়ে তৈরি করে একই দোকানে বিক্রি করতে। সেক্ষেত্রে আমরা ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।’
ব্যবসায়ী সজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘খামার পাড়ার দই এবং চলন্তিকার মিষ্টি মাগুরার এতিহ্য। আমরা যেকোনও অনুষ্ঠানে খাদ্য তালিকায় এর বিকল্প ভাবতে পারি না। তবে সুগন্ধা নতুন হলেও ওদের ক্ষীরের সন্দেশ ও দই সত্যিই অপূর্ব। আমি মাগুরার বাইরেও যেখানেই যাই সাধারণত এই খাবারগুলো উপহার হিসেবে নিয়ে যাই।’

/এনএ/

লাইভ

টপ