X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

‘বাংলাদেশের কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তার কোনও পদে থাকা উচিত না’

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১০:২৭

নিজ ক্যাম্পাসে পুলিশের হামলার শিকার হয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এরপর আন্দোলন বেগবান হয়েছে। আন্দেলনে এখন এক দাবি, উপাচার্যকে পদত্যাগ করতে হবে। বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) প্রাক্তন শিক্ষার্থীরাও। ইতোমধ্যে তারা অ্যালামনাইয়ের পক্ষ থেকে সংহতি জানিয়েছেন আন্দোলনের প্রতি। তারা বলছেন, এমন ঘটনা ঘটতে পারে, এটা তাদের কল্পনাতেও ছিল না।

ওমর শেহাব সিএসই-২০০০ ব্যাচের অ্যালামনাই। বর্তমানে নিউইয়র্কের আইবিএম থমাস জে. ওয়াটসন রিসার্চ সেন্টারে একজন তত্ত্বীয় কোয়ান্টাম কম্পিউটার বিজ্ঞানী। পাশাপাশি তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ডিপার্টমেন্ট অব ডিফেন্সের অনুদানপ্রাপ্ত গবেষক এবং বাংলাদেশে পাঠ্যপুস্তক পরিমার্জন কমিটির সদস্য। তিনি অ্যালামনাই হিসেবে আন্দোলন ও করণীয় বিষয়ে কথা বলেছেন বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে।

বাংলা ট্রিবিউন: আন্দোলন কী থেকে শুরু হলো আর সেটা আমরণ অনশনের দিকে গেলো কীভাবে?

ওমর শেহাব: ছাত্রী হলের শিক্ষার্থীরা ন্যূনতম জীবনমানের দাবিতে প্রথমে আন্দোলন শুরু করে এবং প্রভোস্ট তাদের সঙ্গে ভীষণ অশোভন আচরণ করে। এরপর যখন তারা তাদের দাবি দাওয়া নিয়ে উপাচার্যের কাছে যায়, তখন উপাচার্য পুলিশ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী দিয়ে হামলা চালায়। এর প্রতিবাদে আন্দোলনের এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীরা আমরণ অনশন শুরু করে।

বাংলা ট্রিবিউন: শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষকদের কোনও অংশ সংহতি জানিয়েছে কি? অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষক সামনে এসেছেন। সাস্টে তেমন কিছু দেখেন কিনা?

ওমর শেহাব: অনেক দেরিতে শিক্ষক সমিতি সংহতি জানিয়েছে। তারা সম্ভবত নৈতিক দিক চিন্তা করেননি, শুধু রাজনৈতিক হিসাব নিকাশ মাথায় রেখে করেছেন। আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে ১০ জন শিক্ষক যোগাযোগ করেছিলেন। তারা চান আমার সঙ্গে ফেসবুক লাইভে সংহতি ঘোষণা করবেন। কিন্তু পরে চাকরিতে অসুবিধা হবে বলে পিছিয়ে গেছেন। এই উদাহরণ থেকে বোঝা যায়, এই উপাচার্য নিজের প্রতিষ্ঠানে ভয় আর তোষামোদের কী পরিবেশ সৃষ্টি করেছেন।

বাংলা ট্রিবিউন: ভিসির পদত্যাগই একমাত্র দাবি কেন?

ওমর শেহাব: শাবিপ্রবিতে অনেকদিন ধরে চলে আসা অন্যায় আর অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদ করছিলেন শিক্ষার্থীরা। উপাচার্য তাদের পুলিশ ডেকে ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের দিয়ে পিটিয়েছেন। এটি ভীষণ অন্যায়। এই উপাচার্যের শুধু পদত্যাগ করাই যথেষ্ট নয়, বাংলাদেশের কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তার কোনও পদে থাকা উচিত না।

বাংলা ট্রিবিউন: অ্যালামনাই কখন এবং কেন মনে করলো আন্দলনকারীদের সমর্থন দেওয়া উচিত?

ওমর শেহাব: যেদিন উপাচার্য পুলিশ আর কিছু সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা করালো, সেদিন থেকে আমরা তাদের খাওয়া-দাওয়া আর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছি। যতদিন লাগবে লাগুক, আমরা আছি। আমরা এও বলে দিয়েছি, আন্দোলনের কৌশল বা সিদ্ধান্তে অংশ নেবো না। সেগুলো একান্তই বর্তমান ছাত্রছাত্রীদের ব্যাপার। আমরা শুধু মানবিক সাহায্য দেবো। আমরা নিজেরাও আমাদের সময়ে উপাচার্যের ইশারায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছিলাম, তাই তাদের কষ্টটা বুঝি।

বাংলা ট্রিবিউন: শিক্ষার্থীদের দাবি আন্দলনের ফান্ড রেইজিংয়ের জন্য যে বিকাশ, রকেট বা অন্যান্য মাধ্যম ব্যবহার করা হচ্ছিল, সেগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফান্ড রেইজিংয়ে কোনও সেন্ট্রাল মনিটরিং ছিল কি?

ওমর শেহাব: এখন পর্যন্ত বর্তমান শিক্ষার্থীরা খুব সুন্দর করে আমাদের কাছ থেকে অনুদানগুলো নিচ্ছে। যখনই আমরা টাকা পাঠাই কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে তারা প্রাপ্তি স্বীকার করে এবং কেন্দ্রীয়ভাবে মোট তহবিলের হিসাব দিয়ে দেয়। এর চেয়ে স্বচ্ছভাবে আন্দোলন চালানো সম্ভব কিনা আমি জানি না। তারা বিকাশ ও রকেটের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আশা করি, এই সমস্যার সুরাহা হবে। এটা ভাবার কোনও কারণ নেই যে, বিকাশ আর রকেট ছাড়া আমরা ছোট ভাইবোনদের সাহায্য করতে পারবো না।

বাংলা ট্রিবিউন: পাঁচ দিন পার হয়ে গেছে অনশনের। শিক্ষার্থীরা দ্রুত অসুস্থ হয়ে যাচ্ছে। এই মুহূর্তে করণীয় কী বলে মনে করেন?

ওমর শেহাব: শিক্ষার্থীদের করণীয় কি আমরা জানি না। কারণ, প্রাক্তন হিসেবে আমরা তাদের আন্দোলনের কৌশল বা সিদ্ধান্তে নাক গলাই না। আমাদের করণীয় হলো, যতক্ষণ পর্যন্ত তাদের দাবির সঙ্গে নৈতিকভাবে আমরা একমত, ততক্ষণ মানবিক সাহায্য দিয়ে যাবো। সরকারের করণীয় হলো, এই মুহূর্তে উপাচার্যকে পদত্যাগে বাধ্য করা।

 

/আইএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর
ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর
অবশেষে এ সপ্তাহ থেকে বিরোধী দলগুলোর কার্যালয়ে যাচ্ছে বিএনপি
অবশেষে এ সপ্তাহ থেকে বিরোধী দলগুলোর কার্যালয়ে যাচ্ছে বিএনপি
জিন্স ও টপস পরায় তরুণীকে মারধরের ঘটনায় যুবক আটক
জিন্স ও টপস পরায় তরুণীকে মারধরের ঘটনায় যুবক আটক
বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব
গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ-এর প্রথম উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকবৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
রাজবাড়ীতে ১৩ জন আটক, কিশোরগঞ্জে একজনের কারাদণ্ড
শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষারাজবাড়ীতে ১৩ জন আটক, কিশোরগঞ্জে একজনের কারাদণ্ড
শিক্ষার্থীদের ‘ইউনিক আইডি’র ডাটা এন্ট্রির সময় বাড়লো
শিক্ষার্থীদের ‘ইউনিক আইডি’র ডাটা এন্ট্রির সময় বাড়লো
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণে বাজেটে শিক্ষা খাতে ২০ শতাংশ বরাদ্দ দাবি
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণে বাজেটে শিক্ষা খাতে ২০ শতাংশ বরাদ্দ দাবি