প্রতিশ্রুতির দশ মাস পরও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির প্রধান ফটকের কাজ

Send
হাবিপ্রবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:০৮, অক্টোবর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫৫, অক্টোবর ১৬, ২০১৯

নির্ধারিত সময়ের দশ মাস শেষ হয়ে গেলেও শেষ হয়নি হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(হাবিপ্রবি) প্রধান ফটক (দ্বিতীয় গেইট) নির্মাণের কাজ। এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে ক্ষোভের। ৭০ লাখ টাকা আনুমানিক ব্যয়ের প্রধান ফটক নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন হয়েছিল ২০১৮ সালের ১০ মে। প্রকল্পটির কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার এক মাস আগেই। কিন্তু ২০২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা এসে গেলেও এখনও শেষ হয়নি প্রধান ফটক নির্মাণের কাজ।

ফটকটির নকশা ও নামফলক অত্যাধুনিক হওয়ায় ধীরগতিতে কাজ চলার অজুহাত দিয়ে বারবার পাশ কাটানোর চেষ্টা করেছেন দায়িত্বরত প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে ফটকটির নকশাকারী আর্কিটেকচার বিভাগের চেয়ারম্যান এস এম নাঈম হাসান মিথুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে নকশা অনুযায়ীই কাজ হচ্ছে বলে তিনি জানান।

ফটকটি নির্মাণের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান গোপালঞ্জের ‘শরীফ অ্যান্ড সন্স' এর সাথে কথা বলেও একই কথা জানা যায়। বরাদ্ধকৃত অর্থ নিয়ে ঠিকাদারের সঙ্গে ঝামেলা চলার যে অভিযোগ উঠেছে সেটা কেবল বিভ্রান্তি ও অপপ্রচার বলে দাবি তাদের।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার পরিচালক অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজার রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘গেটটির ডিজাইনে সামান্য ত্রুটি হয়েছিল। নামফলকটি আটকানোর জন্য স্টিলের যে ট্রাস তৈরি করা হয়েছিল সেটার ওজন ১ হাজার ৫০০ কেজির বেশি হওয়ায় সেটা ব্যবহার করা না করা নিয়ে দ্বিধায় পড়তে হয়। সর্বক্ষণ যানবাহন চলায় সেটা যদি কখনও খুলে পড়ে তাহলে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ সমস্যাটি দূর করতেই কাজ শেষ করতে বিলম্বিত হয়েছে।’

তবে ফটকটির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী তারিকুল ইসলাম এবং ‘শরীফ অ্যান্ড সন্স’ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানটি জানায়, তারা ইতোমধ্যেই ঢাকা থেকে নামফলকের উপকরণসমূহ কিনেছেন এবং কিছু পরিমানে পার্সেলও করেছেন। নামফলক লাগানো এবং বৈদ্যুতিক সংযোগের দিলেই ফটকটির কাজ শেষ। আর এ মাসেই শেষ হচ্ছে কাজ। 



/এনএ/

লাইভ

টপ