নাসা বিজয়ী টিম অলিককে শাবিতে সংবর্ধনা

Send
শাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৬:৫১, অক্টোবর ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:২৩, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতায় ব্যাপক পারদর্শিতা দেখানো শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ‘টিম অলিক’কে নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতা '১৮-তে নাসা প্রদত্ত তথ্য ব্যবহার করে বেস্ট ডেটা ইউটিলাইজেশন ক্যাটাগরিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে এই টিম। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন এ-এর গ্যালারিতে তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের প্রধান মো. মুয়িদ হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, ‘দেশের অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ও গবেষণায় অনেকাংশে এগিয়ে রয়েছে। দেশের বাইরেও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের ভাবমূর্তি তুলে ধরছে। আমরা চাই তোমরা তোমাদের এ ধারা অব্যহত রাখো। যে কোনও ধরনের সহযোগিতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে।

উপাচার্য বলেন, ‘নিজেদের সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। এজন্য একাডেমিক কার্যক্রমের পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমেও অংশ নিতে হবে। তবে কোনও ড্রপ দেওয়া যাবে না। তোমরা যে কোনও যৌক্তিক দাবি ও সমস্যা নিয়ে আসবে। আমরা তোমাদের কথা শুনবো।

তিনি বলেন, বর্তমানে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের যে উদ্যোগ নিয়েছি আগামী ৫০ বছরেও তাতে হাত দিতে হবে না। কুচক্রী মহলের কিছু শিক্ষক তা ভুলুণ্ঠিত করার চেষ্টা করছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজে কেউ হস্তক্ষেপ করলে ছাড় দেওয়া হবে না।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, স্কুল অব ফিজিক্যাল সায়েন্সেস-এর ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাজেদুল করিম। এছাড়া জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শেষে নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিজয়ী ‘টিম অলিক’ সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী কাজী মাইনুল ইসলাম ও আবু সাবিক মেহেদী এবং একই বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সাব্বির হাসানের হাতে আমন্ত্রিত অতিথিরা সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন। টিমের অন্য সদস্য পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী এস এম রাফি আদনান এ সময় উপস্থিত না থাকায় অন্য সদস্যরা তার পক্ষে ক্রেস্ট গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের শেষের দিকে নাসা আয়োজিত এই স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮-তে টিম অলিক অংশ নেয়। যেখানে বিশ্বের ৭৯টি দেশ থেকে বাছাইকৃত ২৭২৯টি টিমকে পেছনে ফেলে চার ক্যাটাগরির মধ্যে নাসায় প্রদত্ত তথ্য থেকে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপ্লিকেশন ‘লুনার ভিআর’ তৈরি করে বেস্ট ডেটা ইউটিলাইজেশন ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান দখল করে শাবিপ্রবি-র টিম অলিক। তবে ভিসা না পাওয়ায় তারা নাসা কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারে নি। তাদের পক্ষে আইসিটি মন্ত্রণালয় ও দেশের প্রতিনিধিরা সেই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। আগামী বছরও নাসা আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ