অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগে ৪ জবি শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার

Send
জবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:২০, জানুয়ারি ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৪, জানুয়ারি ০৬, ২০২০

৪ জবি শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার

অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) চার শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। নবাগত এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগে তাদের সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। সোমবার (৬ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বহিষ্কার সংক্রান্ত তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করা হয়েছে । বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার জানিয়েছেন, অভিযোগ প্রাথমিকভাবে সত্য মনে হওয়ায় বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্তরা হলেন, ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের ১২ তম ব্যাচের অঙ্কন বাউল, সাব্বির আহম্মদ, আবু সুফিয়ান ও রাব্বী। এঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে আহ্বায়ক করে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে , ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের ১২ তম ব্যাচের চার শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাগত এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করার অভিযোগ ওঠে। তাদের এ আচরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসুলভ নয় এবং শৃঙ্খলা পরিপন্হী হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের চারজনকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ঘটনার তদন্তের জন্য প্রক্টর ড. মোস্তফা কামালকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য দুই জন সদস্য হলেন সহকারী প্রক্টর মো. জাফর ইকবাল ও শিল্পী রানী সাহা। আগামী দশ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, তদন্ত কমিটি করা গঠন করা হয়েছে, তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে কিনা সেটা আমরা তদন্ত করে দেখবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান বলেন, অভিযোগ প্রাথমিকভাবে সত্য মনে হওয়ায় তাদের সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণ হলে তারা বহিষ্কার হবে। এর আগে গত ২ জানুয়ারি, যেকোনও প্রকার র‌্যাগিং-এর বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করেছিল প্রশাসন। এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল, কারও বিরুদ্ধে র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ পাওয়া গেলেই স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে।

/এমআর/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ