X
বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২
২৬ শ্রাবণ ১৪২৯

মাথাপিছু আয় ২৫৯১ ডলার

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৪:৪৯আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৬:০২

চূড়ান্ত হিসাবে বিগত ২০২০-২১ অর্থবছরে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ৫৯১ মার্কিন ডলার হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। ওই অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) ৯ মাসের সাময়িক হিসাবে ছিল ২ হাজার ৫৫৪ মার্কিন ডলার (প্রায় ২ লাখ ১৬ হাজার ৫৮৯ টাকা)। অর্থবছর শেষে চূড়ান্ত হিসাবে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ৫৯১ ডলার (প্রায় ২ লাখ ১৯ হাজার ৭৩৮ টাকা) হয়েছে।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সাময়িক হিসাবে এসব তথ্য উঠে এসেছে। মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিবিএসের এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘এটা আমাদের ফিগার, যে কেউ এটা নিয়ে গবেষণা করতে পারেন। আমরা সামগ্রিকভাবে ভালো করেছি বলেই মাথাপিছু আয় বেড়েছে।’ 

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো প্রতিবছর মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হারসহ কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক নির্দেশক প্রাক্কলনও প্রকাশ করে আসছে। এ পর্যায়ে চূড়ান্ত তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে ২০২০-২১ অর্থবছরের জিডিপির চূড়ান্ত হিসাব প্রকাশ করা হয়েছে। চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী জিডিপির প্রবৃদ্ধির হার দাঁড়িয়েছে শতকরা ৬ দশমিক ৯৪ ভাগ, যা সাময়িক হিসাবে ছিল ৫ দশমিক ৪৩ ভাগ ।

সার্বিক বিবেচনায় কৃষি খাতের ২০২০-২১ অর্থবছরে চূড়ান্ত হিসাবে শতকরা ৩ দশমিক ১৭ ভাগ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে, যা সাময়িক হিসাবে ছিল ২ দশমিক ৩৭ ভাগ। এরমধ্যে শস্য উপ-খাতে ২ দশমিক ২৯ শতাংশ, পশুপালন উপ-খাতে ২ দশমিক ৯৪ শতাংশ, বন উপ-খাতে ৪ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং মৎস্য খাতে ৪ দশমিক ১১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ।

২০২০-২১ অর্থবছরে ম্যানুফ্যাকচারিং খাতের প্রবৃদ্ধি ১১ দশমিক ৫৯ শতাংশ প্রাক্কলন করা হয়েছে। বছর শেষে বিদ্যুৎ খাতে ১১ দশমিক ৯৫ শতাংশ এবং নির্মাণ খাতে ৮ দশমিক ০৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে।

সার্বিকভাবে চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী শিল্প খাতে ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ১০ দশমিক ২৯ ভাগ, যা সাময়িক হিসাবে ছিল ৫ দশমিক ৯৯ ভাগ।

সেবা খাতের মধ্যে চূড়ান্ত হিসাবে পাইকারি ও খুচরা ব্যবসা খাতে ৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ, যানবাহন খাতে ৪ দশমিক ০৪ শতাংশ, ব্যাংক ও বিমা খাতে ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ, শিক্ষা খাতে ৫ দশমিক ৮১ শতাংশ ও স্বাস্থ্য খাতে ১০ দশমিক ৬০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে। সার্বিকভাবে চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী সেবা খাতে ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৫ দশমিক ৭০ শতাংশ, যা সাময়িক হিসাবে ছিল ৫ দশমিক ৮৬ ভাগ।

/ইএইচএস/ইউএস/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
মানবিক নেতা বঙ্গবন্ধু
মানবিক নেতা বঙ্গবন্ধু
রুশ পর্যটকদের নিষিদ্ধ করুন, পশ্চিমাদের জেলেনস্কি
রুশ পর্যটকদের নিষিদ্ধ করুন, পশ্চিমাদের জেলেনস্কি
কুমিরের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে ফিরলেন যুবক
কুমিরের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে ফিরলেন যুবক
নারী উদ্যোক্তাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও শিক্ষিকা গ্রেফতার
নারী উদ্যোক্তাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও শিক্ষিকা গ্রেফতার
এ বিভাগের সর্বশেষ
বাঁধে বেশি বেশি ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
বাঁধে বেশি বেশি ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
ডলার সাশ্রয়ে টেলিটকের ফাইভ-জি থেকে সরে এলো সরকার
ডলার সাশ্রয়ে টেলিটকের ফাইভ-জি থেকে সরে এলো সরকার
একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন
একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন
মেট্রোরেলের শব্দ কমাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা
মেট্রোরেলের শব্দ কমাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা
মন্ত্রিসভার সদস্যসহ সবাইকে মিতব্যয়ী হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী
মন্ত্রিসভার সদস্যসহ সবাইকে মিতব্যয়ী হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী