কোনও মানুষ না খেয়ে থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

Send
বাংলা ট্রিবউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৩, অক্টোবর ২৬, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:২৭, অক্টোবর ২৬, ২০১৬

 

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাদেশের মানুষের জন্য কাজ করতে ছাত্রলীগ নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছাত্রলীগ নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ছুটিতে যখন বাড়িতে যাবে, দেখবে আশপাশে কোনও গৃহহীন আছে কিনা, কেউ না খেয়ে আছে কিনা। এখানে (বাংলাদেশ) কোনও দারিদ্র্য থাকবে না। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে কোনও মানুষ না খেয়ে থাকবে না। গৃহহারা থাকবে না। আমরা সবার জন্য খাদ্য ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করব।’ বুধবার গণভবনে অষ্টম বারের মতো আওয়ামী লীগ সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানাতে ছাত্রলীগ নেতারা গেলে তাদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

‘মনের শত্রু বড় শত্রু’ উল্লেখ করে ছাত্রলীগ নেতাদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘মনে রাখবে, কখনও যেন মানসিক দৈন্য তোমাদের না পেয়ে বসে। ’ তিনি বলেন, ‘তোমাদের একটা দায়িত্ব দেব, পরীক্ষার পরের যে সময়টা থাকে, প্রত্যেকের নিজের বাড়িতে নিরক্ষর আছে কিনা, খুঁজে বের করে তাদের অক্ষরজ্ঞান দিতে হবে। আমরা নিরক্ষরতা দূর করতে চাই। আমরা চাই প্রতিটি মানুষ শিক্ষার আলোয় আলোকিত হোক চাই।’

এ সময় ছাত্রলীগ নেতাদের নিজ-নিজ এলাকার স্কুল-কলেজ ঠিকমতো চলে কিনা, সেখানকার পড়াশোনার খোঁজ নেওয়ার পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি আমাদের সন্তানদের বলেছি, তোমাদের কোনও অর্থ সম্পদ দিয়ে যেতে পারব না। একটা সম্পদ দিয়ে যাব, সেটা শিক্ষা, বিদ্যা। সেটাই হবে তোমাদের মূল সম্পদ। শিক্ষা থাকলে কোনও কিছু করে খেতে পারবে। ধার করে ঘি খাওয়ার চেয়ে কষ্ট করে নুন-ভাত খাওয়া অনেক মর্যাদার। আমাদের বাবা বঙ্গবন্ধু শিক্ষা দিয়েছেন, নিচের দিকে তাকিয়ে চলবে। নিচের দিকে তাকালে সৎ হয়ে চলার উৎসাহ পাবে। আর ওপরের দিকে তাকালে তাদের মতো চলতে অসৎ হতে শিখবে। আমাদের চলতে হবে আদর্শ নিয়ে, নীতি নিয়ে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশীয় শিল্পকে আমি গুরুত্ব দেই। যেমন তাঁতিদের উজ্জীবিত করতে নিজে দেশীয় শাড়ি পরি।’  তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার উন্নত ও শান্তিপূর্ণ দেশ। কোনও ছেলে-মেয়রা বিপথে যেন না যায়, সেটা দেখতে হবে। মসজিদের ইমাম, শিক্ষক সবাইক বলেছি, এ শিক্ষা দিতে, ইসলাম শান্তির ধর্ম। কেউ যেন জঙ্গিবাদে না যায়। মাদকাসক্ত না হয়। নিজেকে জানতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী পড়লে তোমরা এগুলো বুঝতে পারবা। মানুষ দল করে মন্ত্রী হওয়ার জন্য, আর বঙ্গবন্ধু মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দলে মনোনিবেশ করেছেন দল গড়ার জন্য।

ছাত্রলীগ নেতাদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগ সভাপতি আরও বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কর্তব্যবোধ থাকতে হবে। কী পেলাম, এ হিসাব না করে দেশকে কী দিতে পারলাম, সে হিসাব করতে হবে। ছাত্র হিসেবে তোমাদের সবচেয়ে বড় দায়িত্ব হচ্ছে, লেখাপড়া করা।’ তিনি বলেন, ‘তোমাদের লেখাপড়া শিখতে হবে। মানুষের মতো মানুষ হতে হবে। কারণ অশিক্ষিত কেউ ক্ষমতায় আসলে কী করতে পারে, সেটা আমার মনে হয়, তোমাদের আর বুঝিয়ে বলতে হবে না।’

বিএনপির শীর্ষ নেতাদের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘কেউ মেট্রিক ফেল, কেউ টেনেটুনে ম্যাট্রিক পাস। তারা অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়।’ তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগ সব সময় একটা আদর্শ নিয়ে চলবে। তোমাদের মাঝ থেকেই আগামী দিনের মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী ও বড় নেতা গড়ে উঠবে। তোমরা আদর্শ নিয়ে গড়ে উঠলে আদর্শবান নেতা পাওয়া যাবে। আমরা চাই না কেউ মাদকাসক্ত হোক, জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ুক।’

/পিএইচসি/ এমএনএইচ/

লাইভ

টপ