করোনা ভাইরাস: চীনের পাশে আছে বাংলাদেশ

Send
শেখ শাহরিয়ার জামান
প্রকাশিত : ০০:১৮, জানুয়ারি ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩১, জানুয়ারি ২৯, ২০২০

মাসুদ বিন মোমেনকরোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে চীনের পাশে থাকবে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। তিনি জানান, চীনে মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে। সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা কয়েক হাজার। চীনের এই পরিস্থিতিতে পাশে আছে বাংলাদেশ এবং এই বার্তা তাদের অবহিত করা হয়েছে।

পররাষ্ট্র সচিব বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এই সময়ে আমরা চীনের পাশে আছি এবং আমরা জানিয়ে দিয়েছি তাদের কোনও কিছুর প্রয়োজন হলে আমাদের যদি জানায় আমরা সেটি সরবরাহ করবো।’

চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের সর্বশেষ অবস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কেউ সংক্রমিত হয়নি। বেইজিংয়ে আমাদের দূতাবাস এবং কুনমিং-এর মিশন সর্বক্ষণ বাংলাদেশিদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে।’
এদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘কুনমিংয়ের একটি ছোট শহরের বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০১ জন বাংলাদেশি ছাত্রকে মূল শহরে নিয়ে আসা হয়েছে এবং ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ডরমিটরিতে তাদের সুরক্ষার জন্য রাখা হয়েছে। তারা সবাই সুস্থ আছে।’
এছাড়া উহানে অবস্থান নেওয়া বাংলাদেশিদের জন্য গঠিত ইউচ্যাট গ্রুপে সর্বশেষ ৩২৪ জন যোগ দিয়েছে এবং সবার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বেইজিংয়ে বাংলাদেশের দূতাবাস বলে তিনি জানান।
তিনি বলেন, ‘আমরা সবার কাছ থেকে নাম ও যোগাযোগের নম্বর জোগাড় করে রাখছি যাতে করে তাদের সঙ্গে যে কোনও মুহূর্তে আমরা যোগাযোগ করতে পারি। এছাড়া চীন সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে বাংলাদেশিদের ইচ্ছানুযায়ী দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি।’
চীনের প্রস্ততি সম্পর্কে জানতে আমরা ঢাকায় তাদের দূতাবাসের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছি এবং কোনও সহায়তা প্রয়োজন হলে আমাদের জানানোর জন্য তাদের বলে রেখেছি বলে তিনি জানান।
এদিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন মঙ্গলবার সকালে বলেছেন, ‘আমরা কোনও ভ্রমণ সতর্কতা দেইনি। আমরা কোনও আতঙ্ক সৃষ্টি করতে চাই না। আমরা চলাচলে কোনও বাধা দেইনি, শুধু বলেছি আমরা সতর্ক থাকবো।’
তবে তিনি বলেন, চীন ও দক্ষিণ কোরিয়া থেকে যারা দেশে আসছেন, তাদের হিসাব-নিকাশ ও পর্যবেক্ষণে রাখবে সরকার।
এদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এক বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি আছে জানিয়ে চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের কারণে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।
ভাইরাস প্রতিরোধের ব্যবস্থাপনা প্রসঙ্গে মন্ত্রী জানান, কুর্মিটোলায় দুইশ’ চিকিৎসক রয়েছেন। তাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। ডব্লিউএইচও-এর গাইড লাইন অনুসারে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। দেশের সব হাসপাতালে এই গাইড লাইন পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
তবে সম্প্রতি বাংলাদেশিদের চীন ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
সরকারি হিসাব অনুযায়ী, গত ১৫ দিনে শাহ আমানত বিমানবন্দর দিয়ে মোট ২৮০৫ জন লোক চীন থেকে বাংলাদেশে এসেছে। এই কয়দিনে ৭ হাজার ৫৭০ জন নাগরিক নিজ দেশে গিয়েছেন, তারা ১৫ দিন পর ফিরে আসবেন।

/এসএসজেড/টিএন/এমএমজে/

লাইভ

টপ