সুকুমার বৃত্তির বিকাশে সাহিত্যচর্চার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ: রাষ্ট্রপতি

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:২০, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪১, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২০

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদরাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, মূল্যবোধের অবক্ষয়রোধ এবং সুকুমার বৃত্তির বিকাশে শিল্প-সাহিত্যচর্চা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নবতর চিন্তাচেতনা ও মূল্যবোধের মাধ্যমেই নতুন মানুষ সৃষ্টি সম্ভব। ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০’ উপলক্ষে শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে সৃজনশীল ও মননশীল লেখকদের বিকাশ ও অধিকার সুরক্ষার ক্ষেত্র হিসেবে অমর একুশে গ্রন্থমেলা এক অবিকল্প আয়োজন। মহান ভাষা আন্দোলনের চেতনাকে সমুজ্জ্বল রেখে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’ বাংলা ভাষা, সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক-বাহক হয়ে উঠবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।
তিনি বলেন, ‘বাংলা একাডেমি কর্তৃক এবারের একুশে গ্রন্থমেলা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গ করার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু বিষয়ক ১০০টি বই প্রকাশের উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই।’
আবদুল হামিদ বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু সর্বপ্রথম বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতীয় ‘বাংলা সাহিত্য সম্মেলন’ উদ্বোধন করেন। ভাষা শহীদদের রক্তস্নাত পথ ধরে গড়ে ওঠা বাংলা একাডেমি জাতীয় শিল্প-সংস্কৃতি বিকাশে অনন্য একটি প্রতিষ্ঠান। বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে দেশ ও দেশের বাইরে মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত করার মাধ্যমে বাংলা একাডেমি সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের প্রাণের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে বলে রাষ্ট্রপতি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

 

/ওআর/

লাইভ

টপ