শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:০৬, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৬, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

মন্ত্রিসভার বৈঠক (ছবি: ফোকাস বাংলা)`বাংলাদেশ শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট আইন-২০২০’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সভাকক্ষে বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট আইন-২০২০ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এটা পরিচালনার জন্য কোনও আইন ছিল না। ২০০৮ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা পরিষদের ‘ঢাকা শিশু হাসপাতাল অধ্যাদেশ ২০০৮’ অনুযায়ী এটা পরিচালিত হচ্ছিল। এই অধ্যাদেশগুলোকে আইনে পরিণত করার বিষয়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা আছে। এ কারণে এটি আইনে পরিণত করা হয়েছে।’
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘ঢাকা শিশু হাসপাতাল ও বাংলাদেশ শিশু স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটকে একীভূত করে এই আইন করা হয়েছে। ২১টি ধারা সম্বলিত বাংলাদেশ ‘শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট আইন-২০২০’ প্রণয়ন করা হয়েছে।’
খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘এই আইন অনুযায়ী ইনস্টিটিউট পরিচালনায় ১২ সদস্যের একটি বোর্ড থাকবে। বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সদস্যারা তিন বছরের জন্য মনোনীত হবেন। একজন পরিচালক থাকবেন, যিনি এই হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি এই আইনের যথাযথ বস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকারি গেজেট ও প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিধি প্রণয়ন করতে পারবেন। সরকারের পূর্ব অনুমোদন নিয়ে এই বিধির সঙ্গে অসামঞ্জস্যপূর্ণ নয়, এরূপ প্রয়োজনীয় প্রবিধান ব্যবস্থাপনা বোর্ড প্রণয়ন করতে পারবে। এটা ধারা ১৯-এ বলা আছে।’
মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ‘এই আইনের মাধ্যমে ঢাকা শিশু হাসপাতাল পরিচালিত হলে সর্বস্তরের শিশুদের উন্নত চিকিৎসাসেবা প্রণয়নের মাধ্যমে একটি সুস্থ-সবল জাতি গঠনে হাসপাতালটি বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করবে বলে জাতি আশা করে।’

 

/এসআই/আইএ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ