এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে স্পিকার, মন্ত্রী ও মেয়রদের শোক

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০১:২০, জুলাই ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:২০, জুলাই ০৭, ২০২০

এন্ড্রু কিশোর (৪ নভেম্বর ১৯৫৫-৬ জুলাই ২০২০)না ফেরার দেশে চলে গেলেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। সোমবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যায় মারা যান তুমুল জনপ্রিয় এই সঙ্গীতশিল্পী। তার মৃত্যুতে সঙ্গীতাঙ্গনের পাশাপাশি রাজনীতিক অঙ্গনেও নেমে এসেছে শোক।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি এন্ড্রু কিশোরের আত্মার শান্তি কামনা এবং তার পরিবার-পরিজন ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এছাড়া এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি এবং চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। 

এদিকে শোক প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি তার শোকবার্তায় বলেন, দরাজ কন্ঠ আর কালজয়ী গানের মাঝে এন্ড্রু কিশোর বাঙালির হৃদয়ে যুগ যুগ বেঁচে থাকবেন। চার দশকের বেশি সময় ধরে দেশ ও বিদেশের মানুষের মনজয় করা এবং আটবার জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত এই সংগীতপ্রতিভার কন্ঠে মানব মনের সূক্ষ্ম অনুভূতির অনুরণন কখনো ভুলবার নয়।

একই সঙ্গে শোক জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান এবং তথ্যসচিব কামরুন নাহার।

শিল্পী এন্ড্রু কিশোর এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন, এমপি। শোকবার্তায় পরিবেশ মন্ত্রী কালজয়ী এই গুণী শিল্পীর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

তিনি বলেন, এন্ড্রু কিশোর বাংলা সংগীত জগতের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। সুদীর্ঘকাল তিনি বহু চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিয়ে 'প্লেব্যাক সম্রাট' নামে নিজেকে পরিচিত করেছেন। শুধু চলচ্চিত্রের গানেই নয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর তিনি নজরুলগীতি, রবীন্দ্র সংগীত, আধুনিক, লোক ও দেশাত্মবোধক গান গেয়েছেন। সকল শ্রেণির শ্রোতাদের নিকট এন্ড্রু কিশোরের গান ছিল সমান জনপ্রিয়। বাংলা গানের অমর শিল্পীর এই মহাপ্রয়াণ বাংলাদেশের সংগীত জগতে এক অপূরণীয় শূন্যতার সৃষ্টি হল। বাংলাদেশের সংগীতেপ্রেমী মানুষ এ মহান শিল্পীকে দীর্ঘদিন স্মরণে রাখবে।

মহান এই শিল্পীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ও উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। সোমবার পৃথক দুটি শোক বার্তায় তারা এ শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন।

শোক বার্তায় ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস তার বিদেহি আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শোকবার্তায় মেয়র তাপস বলেন, তার এই মৃত্যু শুধু সঙ্গীতাঙ্গনের জন্যই নয়, দেশের সাংস্কৃতিক আন্দোলনেরও এক অপূরনীয় ক্ষতি। তার কালজয়ী সংগীতের মাধ্যমে তিনি বেঁচে থাকবেন প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।

আর ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, এন্ড্রু কিশোর এদেশের চলচ্চিত্রের গানের একজন প্লেব্যাক সম্রাট, ১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে ‘মেইল ট্রেন’ চলচ্চিত্রে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তার কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক যাত্রা শুরু করেন। চলচ্চিত্রের গানের এই বরপূত্র তার সংগীত জীবনে ৮ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরুস্কার অর্জন করেন। কিংবদন্তি এই সংগীতশিল্পী বাংলা গানকে যেভাবে দেশ-বিদেশে পরিচিতি এনে দিয়েছেন তা সংগীতপ্রেমীরা সারাজীবন মনে রাখবে।বাংলা গানের এই নিবেদিত, মেধাবী ও চির সবুজ শিল্পীকে হারিয়ে আমরা গভীরভাবে শোকাহত।

/ইএইচএস/এসএন/ এসএস/এইচএন/এফএএন/

লাইভ

টপ