এককভাবে কোনও দেশের পক্ষে গ্রহণযোগ্য চাকরির নিশ্চয়তা দেওয়া কঠিন: প্রধানমন্ত্রী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৬, জুলাই ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫১, জুলাই ০৮, ২০২০

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (ফাইল ছবি) করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী যা হচ্ছে, তার প্রেক্ষাপটে এককভাবে কোনও দেশের পক্ষে গ্রহণযোগ্য (ডিসেন্ট) চাকরির নিশ্চয়তা দেওয়া অত্যন্ত কঠিন। কিন্তু সবাই মিলে চেষ্টা করলে এটি করা সম্ভব বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার গ্লোবাল সামিটে বক্তব্য প্রদানকালে করোনাভাইরাসের প্রকোপ মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে তিনটি পরামর্শ দেন।
তিনি বলেন, 'এখন যেটি প্রয়োজন, সেটি হচ্ছে সব দেশ, আন্তর্জাতিক সংস্থা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণে সমন্বিত ও বৈশ্বিক উদ্যোগ।'

ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার উদ্যোগের কেন্দ্রবিন্দুতে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাকে থাকতে হবে এবং তাদের জি-৭, জি-২০, ওইসিডি ও আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে সমর্থন করতে হবে বলেও তিনি জানান।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ ধনী-দরিদ্র সবার জন্য সমান কিন্তু এর প্রভাব ধনী ও গরিবের মধ্যে বৈষম্য আরও প্রকট করে তোলে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশেষ করে অভিবাসী ও নারী কর্মীদের ক্ষেত্রে এই বৈষম্য আরও প্রকট বলে অভিহিত করেন তিনি।

প্রথম পরামর্শে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'এই সমস্যাসংকুল সময়ে অভিবাসী শ্রমিকদের চাকরি বজায় রাখতে হবে।' দ্বিতীয়ত, যদি চাকরি হারায় তবে সম্পূর্ণ দায়-দেনা ও ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দিতে হবে এবং তাদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে হবে। তৃতীয়ত, মহামারি শেষ হওয়ার পরে তাদের আবার চাকরি ফিরিয়ে দিতে হবে, যাতে অর্থনীতি আবার চাঙ্গা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অভিবাসী শ্রমিকদের চাকরি হারানো এবং রেমিট্যান্স কমে যাওয়া আমাদের জন্য একটি বড় উদ্বেগের বিষয়। কারণ, এসডিজি অর্জনে রেমিট্যান্স একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার।

/এসএসজেড/এএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ