অফিস থেকে বাসায় ফেরা হলো না ঢাবি শিক্ষার্থীর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:০১, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৬, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

 

ভাটারারাজধানীর ভাটারায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় রাদিয়া নিতি (২২) নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। তিনি চারুকলা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী।

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বহেরাতলা গ্রামের রেজাউল করিম ফরাজির মেয়ে রাদিয়া। দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন বড়। মায়ের নাম জেসমিন। তার বাবা রেন্ট এ কারে চাকরি করেন। পরিবারের সঙ্গে ভাটারা নতুনবাজারের প্রিন্সিপাল রোডে থাকতেন রাদিয়া।
সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাদিয়াকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসকরা রাত ৮টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের ছোট ভাই রিফাত রেজা আকাশ জানান, রাদিয়া নিতি ঢাবির চারুকলা ইনস্টিটিউটের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। পড়াশোনার পাশাপাশি পল্টনের একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে ডিজাইনার হিসেবে চাকরি করতেন। সোমবার সন্ধ্যায় কর্মস্থল থেকে বাসার উদ্দেশে বাসে চড়ে ভাটারা থানাধীন আমেরিকান গ্যারেজের সামনে নামেন। ঠিক ওই সময় একটি কাভার্ডভ্যান তাকে ধাক্কা দেয়। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে বোনের মৃতদেহ দেখতে পাই।
ভাটারা থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) এছকান্দার আলী সরদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান রাদিয়া। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে রাতেই তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়। তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় ঘাতক কাভার্ডভ্যানটি জব্দ এবং চালককে আটক করা হয়েছে।
রাদিয়ার ভাই জানান, মঙ্গলবার ময়নাতদন্ত শেষে দুপুরে মরদেহটি নিয়ে যাওয়া হয়। নানার বাড়িতে দাফন করা হবে তাকে। 

/এআইবি/আরজে/এফএস/এমওএফ/

লাইভ

টপ