ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে রাজধানীতে বর্ণাঢ্য জশনে জুলুস

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১২:১১, অক্টোবর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০২, অক্টোবর ৩০, ২০২০

 

ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুস ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)।  দিনটি উপলক্ষে প্রতিবারের মতো এবারও রাজধানীতে জশনে জুলুস (র‍্যালি) করেছে আঞ্জুমানে রহমানিয়ার মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনে সড়কে জশনে জুলুস বের হয়।

ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুস

সকাল থেকেই ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনে জড়ো হতে থাকেন মাইজভাণ্ডারীর অনুসারীরা। দিনটি পালন করতে সারাদেশ থেকে আসেন অনুসারীরা। মাইজভাণ্ডার দরবার শরিফের সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানীর নেতৃত্বে মাইজভাণ্ডারির অনুসারীরা জশনে জুলুসে অংশ নেন। এছাড়া জশনে জুলুসে অংশগ্রহণকারীদের হাতে কলেমা তৈয়াবা, জাতীয় পতাকা, আঞ্জুমানের পতাকা এবং নানা ধরনের বাণী ও স্লোগান লিখিত ব্যানার ও ফেস্টুন ছিল। মাইজভাণ্ডারির অনুসারীদের নারায়ে তাকবির, নারায়ে রেসালাত ও গাউসিয়তের ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয় চারপাশ।

ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুস

জশনে জুলুস শেষে রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের আন্তর্জাতিক শান্তি মহাসমাবেশে করছে আঞ্জুমানে রহমানিয়ার মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া। এ সমাবেশের সভাপতিত্বে করছেন মাইজভান্ডারি  দরবার শরিফের প্রধান মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল হোসাইনী। অনুষ্ঠানে  বিদেশের ধর্মীয় নেতা, বুদ্ধিজীবী, সুফি, দার্শনিকরা উপস্থিত আছেন।

ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুস

প্রসঙ্গত, প্রায় এক হাজার ৪০০ বছর আগে এই দিনে হজরত মুহাম্মদ (সা.) জন্মগ্রহণ করেন। ৬৩ বছর বয়সে একইদিনে ইহলোক ত্যাগ করেন। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম ও ওফাত দিবস হিজরি সনের ১২ রবিউল আউয়াল ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) পালন করা হয়। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এছাড়া, আশেকানে মাইজভান্ডারী অ্যাসোসিয়েশন, আঞ্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারিয়া, বাংলাদেশ মাইজভান্ডারী ফোরাম, ফরিদপুরে বিশ্ব জাকের মঞ্জিলে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।

 

ছবি: নাসিরুল ইসলাম

/সিএ/এসটি/এমওএফ/

লাইভ

টপ