X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

ঘাটারচর-কাঁচপুর রুটে এখনও চলছে আগের দুই কোম্পানির বাস

আপডেট : ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:২০

রাজধানীতে বাস সেবায় বিশৃঙ্খলা দূর করতে রুটভিত্তিক কোম্পানির অধীনে বাস সেবা চালু হয়েছে। গতকাল রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর থেকে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর রুটে ৫০টি বাস দিয়ে এই সেবার উদ্বোধন করা হয়। এই সেবা চালুর আগে রুটটিতে চলাচলকারী রজনীগন্ধা পরিবহন ও সিটি লিংক পরিবহন কোম্পানি দুটির যাত্রী পরিবহন বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটি। এই রুটে কোম্পানি দুটির ১৬১টি যাত্রীবাহী বাস চলাচল করতো।

ঢাকা নগর পরিবহন নামের এই নতুন সেবা কেমন চলছে দেখতে সোমবার সকালে রুটটিতে গিয়ে দেখা যায়, আগের কোম্পানি দুটির বাস বন্ধ করে দেওয়া হলেও সেগুলো এখনও চলাচল করছে।

এই সেবা উদ্বোধনের সময় দেওয়া বক্তব্যে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটি আহ্বায়ক ও ডিএসসিসির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘আমি ঢাকা মহানগর পুলিশকে অনুরোধ করবো, সড়কে আর কাউকে যাতে ছাড় দেওয়া না হয়। যে বাস যে রুটের, সে রুটে চলতে হবে। এর বাইরে যাওয়া যাবে না। পর্যায়ক্রমে ঢাকার সব বাসকে বাস রুট রেশনালাইজেশনে আসতে হবে।'

এমন ঘোষণার পরও কেন কোম্পানি দুটির বাস এই রুটে চলাচল করছে— খোঁজ নিতে কথা হয় কোম্পানি দুটি মালিকপক্ষের সঙ্গে। তারা বলছেন, এই রুটে আগে যে বাসগুলো চলাচল করতো, এখন সেগুলো কোন রুটে চলবে; তা নির্ধারণ করেনি কমিটি। ঢাকা নগর পরিবহনে যে ৫০টি বাস নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে— এর মধ্যে ৩০টি বাস বিআরটিসির ও ২০টি ট্রান্সসিলভা পরিবহনের। এই বাসগুলোর সঙ্গে রজনীগন্ধা ও সিটি লিংকের বেশ কিছু বাস যোগ করার দাবি জানিয়েছিল ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। কিন্তু বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটি সে দাবি মানেনি। কেন রজনীগন্ধার বাস যোগ করা হয়নি, তারও উত্তর পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ মালিকদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির এক নেতা বলেন, তারা রজনীগন্ধা ও সিটি লিংকের বাসগুলোকে রুট রেশনালাইজেশন প্রক্রিয়ায় যোগ করতে বারবার অনুরোধ জানিয়েছেন। কিন্তু কমিটি তা গ্রহণ করেনি। এটি নিয়ে পরিবহন মালিক সমিতির সঙ্গে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির দূরত্ব বাড়ছে। এভাবে চলতে থাকলে ঢাকায় গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আসবে না।

বাস রুট কমিটি সূত্র জানিয়েছে, পরিবহন মালিকরা ৪২০টি নতুন গাড়ির রেজিস্ট্রেশন ও রুট পারমিটের জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কাছে আবেদন করেন। পরে বিষয়টি কমিটির বৈঠকে উত্থাপন করেন। সমিতি কমিটিকে জানায়, অনুমোদন পাওয়া গেলে তারা সেখান থেকে ১২০টি গাড়ি রেশনালাইজেশন কমিটিকে দিতে পারবে। এতে কমিটি সম্মত হয়।

কমিটির দাবি, এই প্রতিশ্রুতিও পালন করেনি পরিবহন মালিক সমিতি। কমিটির গত ৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত বৈঠকে নতুন গাড়িগুলো বাদ দিয়ে ১০৪টি গাড়ির তালিকা দেয়। কিন্তু বিআরটিসি পরীক্ষা করে দেখে ওগুলোর মধ্যে মাত্র ৬টি গাড়ি শর্ত পূরণ করেছে। অধিকাংশ গাড়ির কাগজপত্র ও রুট পারমিট ঠিক নেই। পরে মালিক সমিতির যানবাহন ছাড়া এ রুটে পরীক্ষামূলক বাস রুট রেশনালাইজেশনের কাজ শুরু করে কমিটি।

২০১৮ সালে ঢাকা শহরে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে আহ্বায়ক করে ১০ সদস্যের বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটি গঠন করে সরকার। পরবর্তী সময়ে মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর কমিটিতে সাঈদ খোকনের স্থলে যুক্ত হন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। এখন পর্যন্ত এই কমিটি ২০টি সমন্বয় সভা করেছে। ছয়টি কোম্পানির অধীনে ঢাকার ২২টি রুটে সব বাস পরিচালনার সিদ্ধান্ত হয়। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের আগে পাইলটিং বা পরীক্ষামূলকভাবে ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত ২৮ কিলোমিটার পথে ঢাকা নগর পরিবহন চালুর পরিকল্পনা নেয় ওই কমিটি।

সব শেষ গত ১৯ ডিসেম্বর ডিএসসিসির নগর ভবনে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২০তম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভায় রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) পরীক্ষামূলকভাবে কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত ঢাকা নগর পরিবহন চালুর ঘোষণা দেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। গতকাল রবিবার সকালে মোহাম্মদপুরে এই পরিবহনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করা হয়।

সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সরেজমিনে দেখা যায়, কেরাণীগঞ্জের ঘাটারচরে পাশাপাশি দুটি কাউন্টার থেকে কিছুক্ষণ পরপর যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যাচ্ছে রজনীগন্ধা ও সিটি লিংক পরিবহন। পাশাপাশি নতুন চালু হওয়া নগর পরিবহনও চলাচল করছে  বাসগুলোতে যাত্রী ওঠা-নামা তদারকি করছেন মালিক পক্ষের লাইনম্যানরা। আর এই দুটি কাউন্টারকে ঘিরে আশপাশে অর্ধশতাধিক মোটরগ্যারেজ গড়ে উঠেছে।

রজনীগন্ধা পরিবহনের সত্ত্বাধিকারী আব্দুল কাদের বলেন, 'আমরা মনে করেছিলাম, বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটিতে রজনীগন্ধার ১২৮টি বাস যোগ হবে। কিন্তু কমিটি তা অনুমোদন করেনি। পরে নতুন রুটের অনুমোদনের জন্য ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) কাছে বাসের তালিকা জমা দিয়েছিল। এখন পর্যন্ত নতুন রুটের অনুমোদন পাইনি।' 

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঢাকা শহরের অর্ধেক যানবাহনের কাগজপত্র ঠিক নেই। এভাবে করলে তো যাত্রী সেবা দেওয়া যাবে না। আর অন্য রুটের অনুমোদন থাকায় কমিটি আমাদের বাসের কাগজপত্র ঠিক নেই বলে অভিযোগ করেছে। এটা কি ঠিক?

একই কথা বলেছেন সিটি লিংকের মালিক সৈকত সরকার। তিনি বলেন, বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটি যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসনীয়। কিন্তু আমাদের অন্য রুটে যাত্রী পরিবহনের অনুমোদনের বিষয়টিও কর্তৃপক্ষকে বিবেচনার দাবি জানাই। 

জানতে চাইলে ডিটিসিএ’র ডেপুটি ট্রান্সপোর্ট প্ল্যানার ধ্রুব আলম বলেন, ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর রুটে রজনীগন্ধার যেসব বাসের রুট পারমিট রয়েছে, সেগুলোকে আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে অন্য রুটে চলাচলের অনুমোদন দেওয়া হবে। বাকি বাসগুলো যে রুটের অনুমোদন নেওয়া, সেখানে চলাচল করবে। একইভাবে সিটি লিংকের যে বাসগুলোর রুট পারমিট ছিল, সেগুলোর জন্য বিকল্প ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এমএস/ইউএস/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষের সাক্ষাৎ
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষের সাক্ষাৎ
পাঞ্জাবকে হারিয়ে প্লে-অফের আশায় দিল্লি
আইপিএলপাঞ্জাবকে হারিয়ে প্লে-অফের আশায় দিল্লি
৪ ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
৪ ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
এশিয়ান কাপ ফুটবল: ছিটকে গেলেন বাংলাদেশ গোলকিপার
এশিয়ান কাপ ফুটবল: ছিটকে গেলেন বাংলাদেশ গোলকিপার
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
ঢাকা কখন জাগবে-ঘুমাবে, নির্দিষ্ট করতে হবে: তাপস
মেয়র তাপসের ২ বছরঢাকা কখন জাগবে-ঘুমাবে, নির্দিষ্ট করতে হবে: তাপস
রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে কেউ যেন নাশকতা করতে না পারে: ডিএমপি কমিশনার
রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে কেউ যেন নাশকতা করতে না পারে: ডিএমপি কমিশনার