X
সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২
২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

বন্যার কবলে স্কুল-কলেজের ৫ লাখ ৮৪ হাজার শিক্ষার্থী

 এস এম আববাস
২৮ জুন ২০২২, ১৬:১৩আপডেট : ২৮ জুন ২০২২, ১৬:১৩

দেশের ১৮টি জেলার ৮৬টি উপজেলার মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের ১ হাজার ৮৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল-কলেজ) পাঁচ লাখ ৮৪ হাজার ৬৬৮ জন শিক্ষার্থী বন্যার কবলে পড়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক শাহেদুল খবির চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘বন্যাকবলিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (স্কুল-কলেজ) ও শিক্ষার্থী সংক্রান্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। তবে বন্যায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষয়-ক্ষতি সংক্রান্ত প্রতিবেদন এখনও পাওয়া যায়নি। খুব শিগগিরই পাওয়া যাবে।’

সিলেটসহ সারাদেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অবনতির পর গত ২২ জুলাই মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের ই-ভ্যালুয়েশন উইং থেকে সব আঞ্চলিক পরিচালক ও উপপরিচালকদের কাছে তথ্য চাওয়া হয়।  আঞ্চলিক অফিসগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সম্প্রতি প্রতিবেদন পাঠায় অধিদফতরে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্যাকবলিত উপজেলাগুলোর ১২১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে পাঠদান সম্ভব। আংশিকভাবে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব ১০২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। আর ৯১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এখনও পাঠদান সম্ভব নয়। বন্যাকবলিত এলাকার ৫৭০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে জেলাভিত্তিক তথ্যে জানানো হয়, দেশের ১৮টি জেলার ৮৬টি উপজেলার ১ হাজার ৮৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত হলেও বরিশাল, খুলনা ও চট্টগ্রামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যার কবলে পড়েনি।

হবিগঞ্জ

সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার ছয়টি  উপজেলার ৩৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ৩৪ হাজার ৬৬১ জন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোয় পাঠদান বন্ধ রয়েছে। জেলার ৭৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

সিলেট

সিলেট সদরের ১৩টি উপজেলার ৩৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২ লাখ ৮ হাজার ১৯৩ জন। বন্যাকবলিত এলাকার ৫৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে পাঠদান কার্যক্রম সম্ভব। আংশিকভাবে পাঠদান সম্ভব ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। আর ২৮৮টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান এখনও কার্যক্রম পরিচালনা সম্ভব নয়। ১৯১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জ জেলার ১১টি উপজেলার ২৬৫টি  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত।  এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৪ হাজার ২৬২ জন। বন্যাকবলিত ২৬৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনওটিতেই এখনও পাঠদান সম্ভব নয়। ১৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে ।

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার জেলার ৫টি উপজেলার ৪০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থী ৩৮ হাজার ৩৫৯ জন। ৪০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনওটিতেই এখনও পাঠদান সম্ভব নয়। ২৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

গাইবান্ধা

গাইবান্ধা জেলার ৪টি উপজেলার ২১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ছয় হাজার ৪২০ জন। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান সম্ভব। আংশিকভাবে সম্ভব ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। আর ৯টি প্রতিষ্ঠানে এখনও পাঠদান সম্ভব নয়। ১১টি প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে। 

কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রাম জেলার ৮টি উপজেলা ৯৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ২৮ হাজার ৯৫৪ জন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৯টিতে পাঠদান সম্ভব, আংশিকভাবে পাঠদান সম্ভব ২৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। আর ৫৫টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান সম্ভব নয়। ১৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

লালমনিরহাট

লালমনিরহাটের ২টি উপজেলার ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ৪৮৫ জন। বন্যাকবলিত উপজেলার ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে পাঠদান সম্ভব। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আংশিকভাবে পাঠদান সম্ভব। আর একটিতে সম্ভব নয়।  দুইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৩টি উপজেলার ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ২ হাজার ৮৪৯ জন। জেলার ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আংশিকভাবে সম্ভব, আর ৫টি সম্ভব নয়। ৩টি প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র  করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ জেলা সদরের একটি উপজেলার ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ৩২৫ জন। বন্যাকবলিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটিতে আংশিকভাবে পাঠদান সম্ভব আর একটিতে সম্ভব নয়। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইলের ৫টি উপজেলার ৩৯টি প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ১০ হাজার ৮৪৮ জন। বন্যাকবলিত প্রতিষ্ঠানগুলোর ২৬টিতে বর্তমানে পাঠদান সম্ভব, ৬টিতে আংশিকভাবে সম্ভব। আর ৭টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান এখনও সম্ভব নয়। ২৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

জামালপুর

জেলার ৪টি উপজেলার ২৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ১১ হাজার ৫২০ জন। বন্যাকবলিত ২৮টি প্রতিষ্ঠানগুলোয় বর্তমানে পাঠদান সম্ভব নয়। একটি প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জের ৫টি উপজেলার ৩২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ১৩ হাজার ১৮৯ জন। বন্যাকবলিত প্রতিষ্ঠানগুলোয় এখনও পাঠদান সম্ভব নয়। ১৪টি প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে। 

শেরপুর

শেরপুরের একটি উপজেলার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এই প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩৭৪ জন। এখন পাঠদান সম্ভব নয়।

নেত্রকোনা

নেত্রকোনার ১০টি উপজেলার ১৩৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা ৪৬ হাজার ১৬ জন। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৪টিতে পাঠদান সম্ভব, ১০টিতে আংশিকভাবে সম্ভব। আর এখনও পাঠদান সম্ভব নয় ১২২টিতে। ৪২টি প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে।

বগুড়া

বগুড়ার ২টি উপজেলার ৮টি প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ২ হাজার ৪২৫ জন। প্রতিষ্ঠানগুলোয় এখনও পাঠদান সম্ভব নয়।

সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জের ৩টি উপজেলার ২১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ৪ হাজার ১৭৬ জন। ২টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান সম্ভব, একটিতে আংশিকভাবে সম্ভব এবং ১৮টিতে এখনও সম্ভব নয়।

নরসিংদী

নরসিংদীর ১টি উপজেলার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থী ৬২৯ জন। প্রতিষ্ঠানে  এখনও পাঠদান সম্ভব নয়।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জের ২টি উপজেলার ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত। এই দুটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ৯৮৩ জন। একটি প্রতিষ্ঠানে আংশিকভাবে পাঠদান সম্ভব আর একটিতে সম্ভব নয়।

এদিকে বন্যা পরিস্থিতির কারণে প্রায় চার হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্যাকবলিত বলে জানা গেছে। এছাড়া কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্য কবলিত হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের পরিসংখ্যান পাওয়া যায়নি।

/এমআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
পীরগজ্ঞে তাণ্ডবের মামলায় ৫১ আসামির আত্মসমর্পণ
পীরগজ্ঞে তাণ্ডবের মামলায় ৫১ আসামির আত্মসমর্পণ
হিরো আলমকে আটকের তথ্য ঠিক নয়: পুলিশ
হিরো আলমকে আটকের তথ্য ঠিক নয়: পুলিশ
৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে স্টার্টআপ বাংলাদেশ
৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে স্টার্টআপ বাংলাদেশ
জার্মান নাগরিক কাউসমান আত্মহত্যা করেছেন, ধারণা পুলিশের
জার্মান নাগরিক কাউসমান আত্মহত্যা করেছেন, ধারণা পুলিশের
এ বিভাগের সর্বশেষ
এক চিঠি নিয়ে কওমি ঘরানায় তোলপাড়, চলছে জরুরি বৈঠক
এক চিঠি নিয়ে কওমি ঘরানায় তোলপাড়, চলছে জরুরি বৈঠক
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদান দিলেন ঢাবির সাবেক শিক্ষার্থীরা
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদান দিলেন ঢাবির সাবেক শিক্ষার্থীরা
গ্রন্থাগার শিক্ষকদের গ্রেড বৈষম্য অবসানের দাবি
গ্রন্থাগার শিক্ষকদের গ্রেড বৈষম্য অবসানের দাবি
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২ হাজার পরিবারকে পুনর্বাসন করছে মাস্তুল ফাউন্ডেশন
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২ হাজার পরিবারকে পুনর্বাসন করছে মাস্তুল ফাউন্ডেশন
নর্থ সাউথের ট্রাস্টিদের অপরাধ গুরুতর বিধায় জামিনে বাধা
নর্থ সাউথের ট্রাস্টিদের অপরাধ গুরুতর বিধায় জামিনে বাধা