X
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২
২২ আশ্বিন ১৪২৯
মিরপুর-গুলিস্তান রুট

ইচ্ছামতো বাস ভাড়া আদায়, যাত্রী ভোগান্তি চরমে

জুবায়ের আহমেদ
১১ আগস্ট ২০২২, ১৪:০৭আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২২, ১৫:২৯

‘সরকার কিলোমিটারের হিসাবে ভাড়া ঠিক কইরা দিছে কিন্তু গাড়ির তেল তো আর কিলোমিটারে পুড়ে না। যতক্ষণ ইঞ্জিন চালায়া রাখবেন ততক্ষণই তেল পুড়বো’— কথাগুলো বলছিলেন রাজধানীর মিরপুর-গুলিস্তান রুটে চলা শিকড় পরিবহনের সহকারী আমজাদ। তিনি বলেন, ‘রাস্তার যেই অবস্থা! যতক্ষণ চলি তারচেয়ে বেশি সময় জ্যামেই আটকায়া থাকি। তাই কিলোমিটারের হিসাবে ভাড়া কাটা সম্ভব না।’

নতুন করে গণপরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ায় আমজাদের মতো প্রায় সব বাসের চালক-হেল্পারকেই অতিরিক্ত ভাড়া নিতে বিভিন্ন বাহানায় যাত্রীদের সঙ্গে তর্কে জড়াতে দেখা যায়। জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি, ওয়েবিল, মালিকের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের চাপসহ নানা বাহানায় শুধু ভাড়া বাড়িয়েই তারা ক্ষান্ত হয় না, চলে ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ যাত্রী নেওয়া। এ নিয়ে যাত্রীদের আপত্তি কানেই তোলে না বাসের চালক-সহকারীরা। এই পরিস্থিতিকে এক যাত্রী নাম দিয়েছেন—‘বাস বোঝাই জিম্মি’।

আট মাসের ব্যবধানে দ্বিতীয় দফায় জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় গণপরিবহনে চলছে ইচ্ছামতো ভাড়া আদায়ের মহোৎসব। সরকার থেকে ভাড়া নির্ধারণ করে দেওয়া হলেও কোনও গণপরিবহনই মানছে না সেই ভাড়া। এমনকি কোনও কোনও পরিবহনে এখনও টানানো হয়নি নতুন ভাড়ার তালিকা। গন্তব্য যাই হোক না কেন—নানা বাহানায় যাত্রীদের থেকে আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত টাকা।

নিয়মিত বাসে যাতায়াত করা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রেদোয়ান শাফিন বলেন, ভাড়া নিয়ে ওদের সঙ্গে তর্ক করে কোনও লাভ নাই। ওরা কারও কথা শোনে না। আসলে আমরা সাধারণ যাত্রীরা ওদের কাছে জিম্মি।'

তেলের দাম বাড়লে ব্যবসায়ীরা লাভ বুঝে নেয় কিন্তু জনগণের লাভ কেউ দেখে না—মন্তব্য করে আরেক বাসযাত্রী নাহিদ হাসান বলেন, ‘তেলের দাম বাড়লো, বাসের ভাড়াও বাড়লো, পরে অন্যান্য জিনিসেরও দাম বাড়বে। সবাই সবার ভাগ বুঝে নিচ্ছে, কিন্তু এই জনগণের কথা কেউ ভাবে না। তারা সবকিছু চাপিয়ে দেয় আমাদের ওপর।’

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের ব্যাপারে বিআরটিএ’র পক্ষ থেকে নিয়মিত মনিটরিং করার কথা থাকলেও মিরপুর-গুলিস্তান রুটে ভাড়ার বিষয়ে কাউকে তদারকি করতে দেখা যায়নি। ফলে ভাড়া নিয়ে চলছে নৈরাজ্য।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিরুদ্ধে যাত্রীদের সচেতন ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউটকে বলেন, 'রাস্তায় গাড়ি চলাচলের বিভিন্ন দিক বিবেচনা করেই নতুন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। তাই কোনও ধরনের বাহানা দিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের সুযোগ নেই। বরং ভাড়া নৈরাজ্যের বিষয়ে যাত্রীদেরই আরও সচেতন ভূমিকা পালন করতে হবে। আমি যাত্রীদের অনুরোধ জানাচ্ছি—যদি কোনও বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের চেষ্টা করা হয় আপনারা ট্রাফিক পুলিশ বা বিআরটিএ'এর কাছে যথাযথ প্রমাণসহ গাড়ির নাম্বার এবং কোম্পানির নাম লিখে অভিযোগ জানাবেন।'

এছাড়াও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের (www.rthd.gov.bd) মাধ্যমে সরাসরি অভিযোগ করারও পরামর্শ দেন তিনি।

/এমএস/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
পর্যটকদের বিনামূল্যে ৫ লাখ বিমান টিকিট দেবে হংকং
পর্যটকদের বিনামূল্যে ৫ লাখ বিমান টিকিট দেবে হংকং
টোকিও চলচ্চিত্র উৎসবে ফিরছে চেনা জৌলুস
টোকিও চলচ্চিত্র উৎসবে ফিরছে চেনা জৌলুস
বাংলাদেশ ম্যাচের আগে যে বার্তা দিলো ইয়েমেন
বাংলাদেশ ম্যাচের আগে যে বার্তা দিলো ইয়েমেন
চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে আরও একজনের মৃত্যু
চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে আরও একজনের মৃত্যু
বাংলাট্রিবিউনের সর্বাধিক পঠিত
প্রস্তুত হন, চেরাগ জ্বালিয়ে চলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
প্রস্তুত হন, চেরাগ জ্বালিয়ে চলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
আলিবাবার জ্যাক মা পারলে আমরা পারবো না কেন: শামীমা নাসরিন
আলিবাবার জ্যাক মা পারলে আমরা পারবো না কেন: শামীমা নাসরিন
গোলমাল বাধলে ঘর স্ত্রীর নামে যাবে, স্বামীর নামে না: প্রধানমন্ত্রী
গোলমাল বাধলে ঘর স্ত্রীর নামে যাবে, স্বামীর নামে না: প্রধানমন্ত্রী
মেট্রোরেলে চাকরির সুযোগ, বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
মেট্রোরেলে চাকরির সুযোগ, বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
চোখের সামনে পড়েছিল কয়েকজনের লাশ, মৃত্যুর হাত থেকে ফিরলাম
চোখের সামনে পড়েছিল কয়েকজনের লাশ, মৃত্যুর হাত থেকে ফিরলাম