আচারের বয়ামে ইয়াবার চালান, গ্রেফতার ১

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৬, আগস্ট ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৭, আগস্ট ১৯, ২০১৯

 



ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো কার্বন পেপারে মুড়িয়ে নিয়ে তার ওপর কলো স্কচটেপ লাগানো হয়। এরপর সেগুলো ঢোকানো হয় আচারের বয়ামে। কক্সবাজার থেকে সেই বয়াম নিয়ে আসা হয় ঢাকায়। পৌঁছে দেওয়া হয় মাদক কারবারিদের হাতে।
এমন অভিনব পন্থায় ইয়াবার চালান নিয়ে আসার পর ধরা পড়েছে কুমিল্লার বুড়িচং থানার বাসিন্দা নাসির উদ্দিন সরকার (৩৫)। তার সঙ্গে থাকা দুটি আচারের বয়াম থেকে ২৬ হাজার ২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১। রবিবার (১৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উত্তরার একটি আবাসিক হোটেল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
সোমবার (১৯ আগস্ট) র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং) মিজানুর রহমান এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, র‌্যাব-১ সদস্যরা গোপন সূত্রে জানতে পারেন, ইয়াবার একটি বড় চালান মিয়ানমার থেকে কক্সবাজার হয়ে ঢাকায় আসছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে নজরদারি বাড়ানো হয় এবং সন্দেহভাজন ব্যক্তির গতিবিধি অনুসরণ করে র‌্যাব।
গ্রেফতার নাসিরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, সে মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তার মাদক সিন্ডিকেটে ১৫-২০ জন যুক্ত রয়েছে। এই সিন্ডিকেট রাজধানীসহ আশপাশের জেলায় মাদক ব্যবসা করছে।
মাদক সিন্ডিকেটের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া সম্পর্কে আসামি নাসির জানায়, সে ২০০৮ সালে দুবাই যায়। পরের বছর দেশে ফিরে আসে। এরপর মোবাইল ফোনের দোকান দেয়। সেখানে লোকসান হওয়ায় ড্রেজার মেশিনে চুক্তিভিত্তিক মাটি কাটার কাজ শুরু করে। একপর্যায়ে রাজধানীর এক মাদক ব্যবসায়ীর সঙ্গে তার পরিচয় হয়। মোটা অঙ্কের টাকা উপার্জনের প্রলোভন দেখিয়ে মাদক ব্যবসার কথা বললে সে রাজি হয়। এ পর্যন্ত মাদক সিন্ডিকেটের হয়ে ২০-২৫টির মতো চালান রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় সে সরবরাহ করেছে বলে জানিয়েছে।
মাদক চোরাচালানের এই চক্রটির সঙ্গে জড়িত আরও কয়েকজনের নাম পেয়েছে র‌্যাব। তাদের গ্রেফতারে গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

/আরজে/এইচআই/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ