ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ৪

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৫৫, অক্টোবর ৩১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৫৭, অক্টোবর ৩১, ২০১৯

ধর্ষণনড়াইলে তরুণী, শিবালয়ে কলেজছাত্রী, লালমনিরহাট নারী, নেত্রকোনা ও পিরোজপুরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় পুলিশের কনস্টেবল ও যুবলীগ নেতাসহ চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

নড়াইল প্রতিনিধি জানান, লোহাগড়ায় এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে রাজিবুল মোল্যা নামে এক যুবককে পুলিশ আটক করেছে। তরুণীর মা বুধবার লোহাগড়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে নড়াইল সদর হাসপাতালে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পুলিশ রাজিবুল মোল্যাকে বৃহস্পতিবার সকালে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোকাররম হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, শিবালয়ে কলেজছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে মো. কাউসার আহম্মেদ (৩৫) নামের এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। এই ঘটনায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৩০ অক্টোবর পাটুরিয়া ঘাটে একটি আবাসিক হোটেলে এই ঘটনা ঘটে। কাউসার আহম্মেদ শিবালয় উপজেলার মহাদেবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সারাসিন গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে। শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) ওই কলেজছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

লালমনিরহাট প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ধর্ষণের অভিযোগে এক নারী লালমনিরহাট সদর থানায়  আল আমিন নামের এক কনস্টেবলের ((কনস্টেবল নম্বর ১৪১২) বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে লালমনিরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাকে সোপর্দ করা হয়েছে। তিনি রংপুর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সাব জজ ড. আব্দুল মজিদের দেহরক্ষী।  

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম বলেন, ‘বাদীর অভিযোগের পর কনস্টেবল আল আমিনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ে করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।’ 

নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, নেত্রকোনায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ করে দুই দিন আটকে রেখে পিএল মিয়ার নামের একজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ২৯ অক্টোবর রাতে সদর উপজেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। মেয়েটির বাবা-মা বৃহস্পতিবার সকালে তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট থানাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

পিরোজপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের দেড় মাস পর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এই ঘটনায় পুলিশ বাঁধন বসু (১৭) নামের একজনকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে। তিনি উপজেলার উত্তর ভিটাবাড়ীয়া গ্রামের গৌতম বসুর ছেলে। ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাকসুদুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ১৪ সেপ্টেম্বর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

 

 

 

 

/এনআই/

লাইভ

টপ