সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:১৫, নভেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৩, নভেম্বর ১২, ২০১৯

 

এনামুল হক আরমান ও ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট (ফাইল ছবি)দুই কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে যুবলীগ দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ও দুই কোটি ৫ লাখ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সম্রাটের সহযোগী এনামুল হক আরমানের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলার অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ মামলা দু’টি হয়। দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলায় দুই কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার বাদী হলেন দুদক উপপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম। আরমানের বিরুদ্ধে দায়ের মামলায় দুই কোটি পাঁচ লাখ ৪০ হাজার টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার বাদী হলেন দুদকের উপপরিচালক মো. সালাউদ্দিন।

সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা তদারক করবেন দুদক পরিচালক (বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্ত-২) সৈয়দ ইকবাল হোসেন।

বিভিন্ন স্পোর্টস ক্লাবের আড়ালে ক্যাসিনো ব্যবসা চালানোর অভিযোগে গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে অভিযান শুরু করে র‍্যাব। এর অংশ হিসেবে প্রথম দিনই গ্রেফতার করা হয় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে, দুই দিন পর গ্রেফতার করা হয় যুবলীগ নেতা ও ‘টেন্ডার কিং’খ্যাত জিকে শামীমকে। অভিযানের প্রথম দিন থেকেই আলোচনায় আসে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের নাম। এরপর গত ২৩ সেপ্টেম্বর অন্যদের সঙ্গে সম্রাটেরও দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার আদেশের পাশাপাশি ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়। গত ৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ৭ অক্টোবর সম্রাটের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করে র‍্যাব। উভয় মামলার এজাহারে বলা হয়েছে—মতিঝিল, আরামবাগ, ফকিরাপুল ও পল্টনসহ রাজধানীতে ১০টি ক্লাবে ক্যাসিনো ব্যবসা ছিল সম্রাটের। সবার কাছে তিনি ‘ক্যাসিনো সম্রাট’ হিসেবে পরিচিত। পাশাপাশি, দলীয় পদের অপব্যবহার করে চাঁদাবাজি ও টেন্ডারবাজি করতেন তিনি। কেউ চাঁদা দিতে না চাইলে তাকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করতো তার ক্যাডাররা। সম্রাটের কার্যালয় থেকে র‍্যাব অবৈধ অস্ত্র, মাদকসহ নির্যাতন করার ইলেকট্রিক শক মেশিন উদ্ধার করেছে বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম এলাকায় সম্রাটের সঙ্গে একই বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের (বহিষ্কৃত) সহসভাপতি এনামুল হক আরমানকে। 

আরও পড়ুন-

সম্রাটের উত্থান যেভাবে

ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান নিয়ে দুদক যা করছে

/ডিএস/এফএস/এমএমজে/

লাইভ

টপ