দেশে-বিদেশে কাউন্সিলর মিজানের শত কোটি টাকার সম্পদ

Send
দীপু সারোয়ার
প্রকাশিত : ১৭:৩৩, জানুয়ারি ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০১, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

হাবিবুর রহমান মিজান ৩০ কোটি ১৬ লাখ ৮৭ হাজার ৩৩১ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা হলেও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান ওরফে পাগলা মিজান আসলে শতাধিক কোটি টাকার সম্পদের মালিক। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা দুর্নীতির মামলার তদন্তে নেমে এমন তথ্যই পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

তদন্তের অংশ হিসেবে রবিবার (২৬ জানুয়ারি) মিজানকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সংস্থাটি। এদিন দুপুর ১২টার দিকে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মিজানকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক প্রধান কার্যালয়ে নেওয়া হয়। দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধানের নেতৃত্বে একটি টিম তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।
এর আগে গত ২ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ একেএম ইমরুল কায়েশ মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
গত বছরের ১১ অক্টোবর র‌্যাবের অভিযানে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থেকে গ্রেফতার হন মিজান। এ সময় তার কাছ থেকে ১টি পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগাজিন ও ২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। পরে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় শ্রীমঙ্গল থানায় এবং অর্থ উদ্ধারের ঘটনায় রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় অর্থপাচার আইনে মামলা করে র‌্যাব। আর মিজানের বিরুদ্ধে দুদকের মামলাটি হয় গত বছরের ৬ নভেম্বর। মামলার বাদী দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান। দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪-এর ২৭ (১) ধারা ও দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ১৯৮৭-এর ৫(২) ধারায় মামলাটি করা হয়েছে।

কাউন্সিলর মিজানের যত সম্পদ
১. ১৯৯৬ সালে মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়ার ‘বি’ ব্লকে সরকারি জমি দখল করে স্বপ্নপুরী হাউজিং কমপ্লেক্স গড়ে তোলেন মিজান। ৩০ কাঠার ৩টি প্লটে ৬ তলার ৩টি ভবন আছে সেখানে। এরমধ্যে ২টি ভবনের মালিক তিনি। ভবন দুটিতে আছে ২৫টি ফ্ল্যাট।
২. স্বপ্নপুরী হাউজিং কমপ্লেক্সের ২ হাজার গজ দূরে ১৫ কাঠা জমিতে ৭ তলা একটি নির্মাণাধীন ভবনেরও মালিক তিনি।
৩. রাজধানীর নয়াপল্টনে আছে ৬ তলা বাড়ি।
৪. মোহাম্মদপুরে আছে ১০ কাঠার প্লট।
৫. গাজীপুরে আছে ৩৫ কাঠার প্লট।
৬. রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বেড়িবাঁধ সংলগ্ন বছিলা সড়কের হাবিব প্লাজার ৩০ কাঠা জমি দখল করে তৈরি করেছেন মার্কেট।
৭. বছিলা সড়কে আরও ৪৮২ কাঠা জমি দখলে আছে মিজানের। সেখানে দোকান করে ভাড়া দিয়েছেন।
৮. মোহাম্মদপুরে আছে ১ হাজার ৩৫০ বর্গফুটের ৪টি ফ্ল্যাট।
৯. মোহাম্মদপুরে ৫ ও ৬ তলা আরও দুটি বাড়ি আছে।
১০. ১ কোটি টাকার স্থায়ী আমানত (এফডিআর) আছে।
১১. স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক ও ডাচ্-বাংলা ব্যাংকে আছে ৬ কোটি টাকা।
এর বাইরে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস ও অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতেও মিজানের বাড়ি ও গাড়ি আছে।

আরও পড়ুন...
‘পাগলা’ মিজান থেকে কাউন্সিলর

/এইচআই/এমওএফ/

লাইভ

টপ
X