বাংলাদেশসহ সব দেশের জন্য ভেন্টিলেটর ডিজাইন উন্মুক্ত করলো মেডিট্রনিক

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০৫, মার্চ ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৫, মার্চ ৩১, ২০২০

 

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও যাতে চিকিৎসক ও রোগীদের জন্য দ্রুততম সময়ে ভেন্টিলেটর তৈরি করতে পারে সেজন্য নিজেদের পিউরিটান বেনেট-৫৬০ (পিবি ৫৬০) ভেন্টিলেটরটির ডিজাইন স্পেসিফিকেশন উন্মুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে মেডিক্যাল প্রযুক্তি খাতে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান মেডিট্রনিক পিএলসি। এ ঘোষণাটি সাম্প্রতিক এফডিএ নির্দেশনা এবং বিশ্বব্যাপী জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা সরকারি সংস্থাসমূহের নিয়মের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) মেডিট্রনিকের পাবলিক রিলেশন বিভাগের কর্মকর্তা জন নর্দান  এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান।  

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের জন্যও এর পেটেন্ট উন্মুক্ত করেছে। এর ফলে, স্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর সহায়তায় বাংলাদেশ সরকারও খুব দ্রুত ভেন্টিলেটর উৎপাদন করতে পারবে। এছাড়াও মেডিট্রনিকের গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের সদস্যরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভেন্টিলেটর উৎপাদনের জন্য প্রকৌশলীদের সহায়তা দেবে।

মেডিট্রনিক জানায়, ২০১০ সালে বাজারে আসে পিবি-৫৬০ মডেলের ভেন্টিলেটর। বাজারে অবমুক্ত হওয়ার পর বিশ্বের প্রায় ৩৫টি দেশে বিক্রি হয় এই ভেন্টিলেটরটি। এ ভেন্টিলেটর প্রযুক্তিগত নকশা এমনভাবে করা হয়েছে যাতে উৎপাদন প্রতিষ্ঠান, উদ্ভাবক, স্টার্ট-আপ এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহজেই এ ভেন্টিলেটর নকশা ও প্রস্তুত করতে পারবে।  পিবি-৫৬০ ভেন্টিলেটরটির সেবার নির্দেশিকা (ম্যানুয়াল), নকশা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় নথি, উৎপাদন প্রক্রিয়া বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য ও ভেন্টিলেটরটি তৈরির রূপরেখা ইতিমধ্যে তাদের ওয়েবসাইটে (Medtronic.com/openventilator)  পাওয়া যাচ্ছে । সোমবার থেকে পিবি ৫৬০ ভেন্টিলেটরটির ডিজাইন স্পেসিফিকেশন পাওয়া যাচ্ছে। অতি শিগগিরই সফটওয়্যার কোড ও অন্যান্য তথ্য পাওয়া যাবে।

পিবি-৫৬০ ভেন্টিলেটরটি সুবিন্যস্ত, ওজনে হালকা ও বহনযোগ্য। এ কারণে ভেন্টিলেটরটির মাধ্যমে বয়স্ক ও শিশুদের সহজেই অক্সিজেন দেওয়া যাবে। ভেন্টিলেটরটি খুব সহজেই যে কোনও পরিচর্যা কেন্দ্রে (ক্লিনিক্যাল সেটিং) ও বাসায় ব্যবহারের জন্য উপযোগী। এবং এর মাধ্যমে মোবাইল রেসপিরেটরি সাপোর্ট দেওয়া যায়।

মেডিট্রনিকের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও মিনিম্যালি ইনভেসিভ থেরাপিস গ্রুপের প্রেসিডেন্ট বব হোয়াইট বলেন, ‘কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে জীবন রক্ষাকারী সরঞ্জাম হিসেবে ভেন্টিলেটর অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি বিষয়।  এই বৈশ্বিক সঙ্কট মোকাবিলায় সকলের সম্মিলিত প্রয়াস অত্যন্ত জরুরি। ভেন্টিলেটরের চাহিদার কথা বিবেচনা করে, গত কয়েক সপ্তাহে আমরা আমাদের পিউরিটান বেনেট-৯৮০ ভেন্টিলেটরটির উৎপাদন বাড়িয়েছি। আমরা জানি, আমাদের আরও অনেক কিছু করার সক্ষমতা আছে এবং আমরা সে লক্ষ্যে নিরলস চেষ্টা করে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, ‘ইতিমধ্যেই পিবি ৫৬০ ভেন্টিলেটরটির নকশা সংক্রান্ত বিষয়গুলো সকলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। আমরা আশা করছি, এর ফলে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ভেন্টিলেটরের সঙ্কট দূর করতে বৈশ্বিকভাবে ভেন্টিলেটরের উৎপাদন আরও বৃদ্ধি পাবে।’

উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়া ছাড়াও তীব্র শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত সমস্যায় ভেন্টিলেটর কার্যকরী ভূমিকা রাখে। শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যাজনিত রোগীদের ভেন্টিলেটরের মাধ্যমে অক্সিজেন সরবরাহ করলে তারা শ্বাস নিতে পারে। রোগীকে ভেন্টিলেটর দেওয়া হলে ওই সময় রোগীর ফুসফুস বিশ্রাম নিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসতে থাকে। অক্সিজেন সরবরাহ ঠিক রাখার মাধ্যমে ওই সময় রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে ভেন্টিলেটর। ভেন্টিলেশনের সাহায্য ছাড়া, তীব্র শ্বাসকষ্টে থাকা রোগীদের অনেক সময় বাঁচানো সম্ভব হয় না।

প্রসঙ্গত, আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনভিত্তিক মেডিট্রনিক পিএলসি হচ্ছে মেডিক্যাল প্রযুক্তি সরবরাহ, সেবা ও সমাধান প্রদানে বিশ্বের অন্যতম বড় প্রতিষ্ঠান।

 

/এসও/এমআর/

লাইভ

টপ